ভিকারুননিসায় আগামীকাল থেকে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা

অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তির দাবিতে ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা আগামীকাল রোববার থেকে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। আজ শনিবার তৃতীয় দিনের মতো শতাধিক শিক্ষার্থী স্কুলটির প্রধান ফটকের বাইরে তাদের শিক্ষকের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভের পর এই কর্মসূচি ঘোষণা করে।
শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তি দাবিতে রোববার থেকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছিলেন। ছবি: মুনতাকিম সাদ

অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া শিক্ষক হাসনা হেনার মুক্তির দাবিতে ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীরা আগামীকাল রোববার থেকে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছে। আজ শনিবার তৃতীয় দিনের মতো শতাধিক শিক্ষার্থী স্কুলটির প্রধান ফটকের বাইরে তাদের শিক্ষকের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভের পর এই কর্মসূচি ঘোষণা করে।

দুপুর পৌনে ১২টার দিকে পরীক্ষা শেষে প্রায় ১০০ শিক্ষার্থী রাজধানীর বেইলি রোডে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের সামনে বিক্ষোভ করে। এসময় বেশ কয়েকজন শিক্ষক, অভিভাবক ও স্কুলটির প্রাক্তন শিক্ষার্থী বিক্ষোভে যোগ দেন। পরে দুপুর দেড়টায় শিক্ষার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করে বলেন, হাসনা হেনা মুক্তি না পাওয়া পর্যন্ত তারা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন।

অরিত্রীকে আত্মহত্যায় প্ররোচিত করার অভিযোগে হওয়া মামলায় গত বুধবার হাসনা হেনাকে রাজধানীর উত্তরা থেকে গ্রেপ্তার করেছিল ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। এর পরদিন তাকে আদালতে হাজির করা হলে জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেওয়া হয়।

যা ঘটেছিলো অরিত্রীর সঙ্গে

৩ ডিসেম্বর বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালে নকল করার অভিযোগে শিক্ষকদের দ্বারা অপমানিত হওয়ার পর সেদিনই ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারী বাসায় ফিরে আত্মহত্যা করে।

তার বাবা জানান, তাদেরকে স্কুলে ডেকে নিয়ে বলা হয়, পরীক্ষার সময় তাদের মেয়ে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেছিল। এ কারণে সে আর পরীক্ষায় অংশ নিতে পারবে না। এমনকি, তাকে ‘টিসি’ দেওয়ারও হুমকি দেওয়া হয়।

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শান্তিনগরের বাসায় ফিরে অরিত্রী তার ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় স্কার্ফ পেঁচিয়ে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করে।

পরিবারের সদস্যরা দরজা ভেঙ্গে অরিত্রীকে উদ্ধার করে প্রথমে নিকটস্থ হাসপাতালে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা বিকাল ৪টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরিত্রীর আত্মহত্যার পর শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের আন্দোলনের মুখে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে ভিকারুননিসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস, প্রভাতী শাখার প্রধান জিনাত আখতার এবং অরিত্রীর শ্রেণি শিক্ষক হাসনা হেনাকে বরখাস্ত করা হয়। এদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পুলিশ ও র‍্যাবের কাছে চিঠিও পাঠায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরে বুধবার রাত ১১টার দিকে উত্তরা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ হাসনা হেনাকে গ্রেপ্তার করে।

Comments

The Daily Star  | English

Secondary schools, colleges to open from Sunday amid heatwave

The government today decided to reopen secondary schools, colleges, madrasas, and technical education institutions and asked the authorities concerned to resume regular classes and activities in those institutes from Sunday amid the ongoing heatwave

2h ago