রিয়ালের মাঠে তারার মেলা

আগের দিন যেন সাবেক ও বর্তমান তারকাদের ঢল নেমেছিল রিয়ালের মাঠ বার্নাব্যুতে। কোপা লিবার্তাদোরেসের ৫৮ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালে মুখোমুখি একই শহরের দুই ক্লাব। আর্জেন্টিনার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বোকা জুনিয়র্স ও রিভার প্লেটের মধ্যকার দ্বিতীয় লেগের লড়াইটা দুইবার পিছিয়ে অনুষ্ঠিত হয় বার্নাব্যুতে। আর সেখানেই সাবেক-বর্তমান অনেক ফুটবল তারকার উপস্থিতিতে ম্যাচের জৌলুস যে আরও বেড়ে উঠেছিল।

আগের দিন যেন সাবেক ও বর্তমান তারকাদের ঢল নেমেছিল রিয়ালের মাঠ বার্নাব্যুতে। কোপা লিবার্তাদোরেসের ৫৮ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালে মুখোমুখি একই শহরের দুই ক্লাব। আর্জেন্টিনার দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বোকা জুনিয়র্স ও রিভার প্লেটের মধ্যকার দ্বিতীয় লেগের লড়াইটা দুইবার পিছিয়ে অনুষ্ঠিত হয় বার্নাব্যুতে। আর সেখানেই সাবেক-বর্তমান অনেক ফুটবল তারকার উপস্থিতিতে ম্যাচের জৌলুস যে আরও বেড়ে উঠেছিল।

ম্যাচের সব আলোই কেড়ে নেন হালের অন্যতম সেরা তারকা লিওনেল মেসি। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবের মাঠে রয়্যাল স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের (আরএফইএফ) ব্যক্তিগত আমন্ত্রণে যোগ দিয়েছেন এ বার্সেলোনা তারকা। প্রেসিডেন্ট বক্সে তার সঙ্গে ছিলেন আরও ১২ জন। এদের মধ্যে ছিলেন জর্দি অলবা, জেরার্দ পিকে, সের্জিও বুস্কেতস, আর্তুরো ভিদালও।

আর্জেন্টাইন যে সকল খেলোয়াড়রা ইউরোপের বিভিন্ন ক্লাবে খেলে থাকেন তাদের প্রায় সবাই উপস্থিত ছিলেন। তরুণ তারকা পাওলো দিবালাও ছিলেন বার্নাব্যুতে। ক্লাব সতীর্থ জিওর্জিও কিয়েলিনি, লিওনার্দো বানুচ্চি, রদ্রিগো বেনতেনচার ছিলেন তার সঙ্গে। তাদের সঙ্গে থাকার কথা ছিল হালের আরেক সেরা তারকা ক্রিস্তিয়ানো রোনালদোরও। তবে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে আসবেন না বলে আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন এ পর্তুগিজ।

ছিলেন অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ তারকা আতোঁয়া গ্রিজম্যান ও দিয়াগো গডিনও। ছিলেন দলের কোচ দিয়াগো সিমিওনিও। তারা সবাই নিজেদের সমর্থন দিয়েছিলেন বোকা জুনিয়র্সকে। গ্রিজম্যানতো বোকার জার্সি পড়েই গিয়েছিলেন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন হামেস রদ্রিগেজ, ফিলিপ লুইস, আনহেল কোরেয়া, টমাস লেমার, লিওনেল সোলারি, মার্কোস রোহো, মিশেল সালগাদো, তাপিয়া, ম্যানুয়েল লানযিনি, হ্যাভিয়ার জেনেত্তি, মাউরো ইকার্দি, মার্তিন দেমিকেলিস, কেম্বিয়াসো, ওয়ালি স্নেইডারসহ আরও অনেক তারকারাই।

ইউরোপে যেমন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ল্যাটিন আমেরিকায় তেমন কোপা লিবার্তাদোরেস। সেই ম্যাচের ফাইনালে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। তাই শুরু থেকেই নানা উত্তেজনা। সে উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে সংঘর্ষে। প্রথম লেগে বোকার মাঠে ২-২ গোলে ড্র হবার পর দ্বিতীয় লেগের লড়াইটি মাঠে গড়ায়নি নানা সহিংস ঘটনায়। মাঠে প্রবেশের আগে বোকা জুনিয়র্সের টিম বাসে সমর্থকদের হামলায় আহত হন অনেকে। এরপর বাধ্য হয়েই ম্যাচটি স্থানান্তর করা হয় বার্নাব্যুতে। আর সেখানে বোকা জুনিয়র্সকে ৩-১ গোলে হারিয়ে শিরোপা জিতে নিয়েছে রিভার প্লেট।

Comments

The Daily Star  | English

Old, unfit vehicles taking lives

The bus involved in yesterday’s crash that left 14 dead in Faridpur would not have been on the road had the government not given into transport associations’ demand for keeping buses over 20 years old on the road.

40m ago