হারের দুই কারণ দেখছেন মাশরাফি

শেষ ওভারে গিয়ে আরেকটি হার জমা হলো বাংলাদেশের খাতায়। এসব ম্যাচ শেষে যা মনে হয় একটু এদিক-সেদিক হলেই বদলে যেত চেহারা। সেই একটু-আধটুর জন্য আফসোসে পুড়ছে বাংলাদেশও। অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা মনে করছেন ব্যাটিং-ফিল্ডিংয়ের শেষ ধাপের ভুলে গিয়ে ম্যাচটা খুইয়েছেন তারা।
West Indies
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

শেষ ওভারে গিয়ে আরেকটি হার জমা হলো বাংলাদেশের খাতায়। এসব ম্যাচ শেষে যা মনে হয় একটু এদিক-সেদিক হলেই বদলে যেত চেহারা। সেই একটু-আধটুর জন্য আফসোসে পুড়ছে বাংলাদেশও। অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা মনে করছেন ব্যাটিং-ফিল্ডিংয়ের শেষ ধাপের ভুলে গিয়ে ম্যাচটা খুইয়েছেন তারা।

ব্যাটিংয়ে এক পর্যায়ে বেশ ভালো অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ। তিনজন সেট ব্যাটসম্যান ফিফটি পেরিয়েও শেষটা করতে পারেননি। ভালো গতি নিয়েই ছুটে চলা ট্রেন তাই লাইনচ্যুত হয়ে যায়। সেট ব্যাটসম্যানরা আউট হয়ে যাওয়াতে শেষ পাঁচ ওভারে বাংলাদেশ তুলতে পারে মাত্র ২৬ রান।

২৫৫ রান করেও খেলা শেষ দিকে টেনে নিয়ে আশা জিইয়ে রেখেছিল বাংলাদেশ। এক পর্যায়ে ৩ ওভারে ৩২ রান লাগত ওয়েস্ট ইন্ডিজের। কিন্তু নাজমুল ইসলাম অপুর হাত গলে বেরিয়ে যায় কেমো পলের পর পর দুই ক্যাচ। এর আগে শেমরন হেটমায়ারের ক্যাচ ছাড়েন ইমরুল কায়েস। এত ক্যাচ ফেলার দিনে শেষ বলে গিয়ে হারে বাংলাদেশ। ১৪৬ রান করে অপরাজিত থেকে বাংলাদেশের আশা মিইয়ে দেন শাই হোপ।

হারের পর ব্যাটিং-বোলিংয়ের দুই ধাপের কারণকেই বড় করে দেখছেন অধিনায়ক, ‘১৫/২০ রান আরও বেশি হওয়া উচিত ছিল। তামিম আর সাকিব ব্যাট করলে হয়ত রান তিনশোর কাছেও যাওয়ার সুযোগ ছিল। রিয়াদ আর সাকিব ব্যাট করছিল। ওরা যদি ছয়-সাত ওভার ব্যাটিং করত তাহলে হয়ত রান ২৭০/২৮০ হয়ে যেত।’

‘আর ফিল্ডিং এ অবশ্যই ক্যাচ ড্রপগুলো খরুচে হয়ে গেছে। বিশেষ করে পলের পর পর দুইটা ক্যাচ মিস হয়েছে। কেমার রোচ আসলে হয়ত প্রান্ত বদল ওদের জন্য কষ্ট হয়ে যেত আরকি।’

Comments

The Daily Star  | English

Avoid heat stroke amid heatwave: DGHS issues eight directives

The Directorate General of Health Services (DGHS) released an eight-point recommendation today to reduce the risk of heat stroke in the midst of the current mild to severe heatwave sweeping the country

44m ago