‘যারা নৌকায় ভোট দেবে তারা কেন্দ্রে যাবে, যারা দেবে না তারা যাবে না’

নাটোর-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বর্তমান সাংসদ সফিকুল ইসলাম শিমুল তার নেতা কর্মীদের নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, দলের বিজয় নিশ্চিত করতে নির্বাচনের দিন ভোটকেন্দ্রে যেন কেবল নৌকার ভোটাররাই থাকে, আর যারা নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে যাবে না, তাদের যেন ভোটকেন্দ্রে যেতে না দেওয়া হয়।

নাটোর-২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও বর্তমান সাংসদ সফিকুল ইসলাম শিমুল তার নেতা কর্মীদের নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, দলের বিজয় নিশ্চিত করতে নির্বাচনের দিন ভোটকেন্দ্রে যেন কেবল নৌকার ভোটাররাই থাকে, আর যারা নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে যাবে না, তাদের যেন ভোটকেন্দ্রে যেতে না দেওয়া হয়।

গত ১৭ ডিসেম্বর ছাতনি গ্রামে নির্বাচনী প্রচারণার সময় ধারণকৃত একটি ভিডিওতে সফিকুল ইসলাম শিমুলকে এ ধরনের কথা বলতে দেখা যায়।

শিমুল বলেন, “যারা নৌকা মার্কার বিরোধিতা করছেন, যারা ধানের শীষ নিয়ে লাফালাফি করছেন, আমি আমার নেতা-কর্মীদের বলতে চাই- কোনো ধানের শীষের প্রার্থী এবং সমর্থক ওই কেন্দ্রে যাবে না।”

শিমুল বলেন, “আমার নেতা-কর্মীদের বলতে চাই- ভোট দেখে নেবেন, যারা নৌকায় ভোট দেবে তারা কেন্দ্রে যাবে, ভোট দেবে না কেন্দ্র যাবে না, পরিষ্কার কথা।”

গত কয়েকদিনে বহু মানুষ ওই ভিডিওটি শেয়ার করেছেন। দ্য ডেইলি স্টারের কাছেও তা এসেছে।

ওই ভিডিওতে দেখা যায় যে, নির্বাচনী আচরণবিধির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন করে বিএনপির নেতা-কর্মীদের হুমকি দিয়ে শিমুল বলছেন, জীবন বাঁচাতে হলে তাদের নৌকার হয়ে কাজ করতে হবে, অন্যথায় “তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা আছে”।

শিমুল বলেন, “আমি বলতে চাই- আপনারা যদি ভালো চান, সুস্থ হয়ে বাঁচতে চান, এলাকায় বসবাস করতে চান, আমাদের নেতা-কর্মীদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করুন। যদি অন্য কোনো পথ অবলম্বন করেন, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা আছে।”

নির্বাচনে নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত জানিয়ে শিমুল আরও বলেন, “এই দেশের উন্নয়ন হচ্ছে, এই দেশের মানুষ ভালো রয়েছে, দেশের মানুষ শান্তিতে বসবাস করছে, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে, এই ধারা অব্যাহত রাখতে হবে। ৩০ তারিখে নৌকার বিজয় হবেই হবে, কেউ রোধ করতে পারবে না।”

ওই আসনে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর মনোনয়ন বাতিল হয়ে যাওয়ার পর তার স্ত্রী ইয়াসমিন ছবিকে দলীয় প্রার্থী করা হয়েছে। তিনি মুঠোফোনে দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, “আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কাছ থেকে প্রকাশ্য হুমকি পেয়ে তিনি অনেকাংশে তার নির্বাচনী প্রচারণা গুটিয়ে নিয়েছেন।”

প্রতিদিনই বিএনপির কর্মীদের ওপর হামলা চালানো হচ্ছে। এখন পর্যন্ত অন্তত ১৫০ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন জানিয়ে ইয়াসমিন ছবি বলেন, “গত ২০ ডিসেম্বর রিটার্নিং কর্মকর্তা কাছে সংশ্লিষ্ট ভিডিও’র এক কপি ই-মেইল করে পাঠানোর মাধ্যমে অভিযোগ করা হয়েছে।”

এ ব্যাপারে রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহরিয়াজ জানান, গতকাল তিনি ওই ভিডিও সম্পর্কে অবগত হয়েছেন। তিনি বলেন, “আমি ভিডিওটি পুলিশকে দেখতে দিয়েছি। তারা ঘটনার সত্যতা খুঁজে পেলে আমরা এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।”

Comments

The Daily Star  | English

Sajek accident: Death toll rises to 9

The death toll in the truck accident in Rangamati's Sajek increased to nine tonight

5h ago