সেনাবাহিনী জনগণের পাশে থাকবে, আশা ড. কামালের

আসন্ন ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে দেশের জনগণের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, আমরা আমাদের সেনাবাহিনীকে নিয়ে গর্বিত কারণ তারা শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। আমরা আশা করি নির্বাচনকে অবাধ সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক করতে এই মুহূর্তে সেনাবাহিনী দেশের জনগণের পাশে থাকবে।
ঢাকার পল্টনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন ড. কামাল হোসেন। ২৪ ডিসেম্বর ২০১৮। ছবি: স্টার

আসন্ন ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে দেশের জনগণের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, আমরা আমাদের সেনাবাহিনীকে নিয়ে গর্বিত কারণ তারা শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। আমরা আশা করি নির্বাচনকে অবাধ সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক করতে এই মুহূর্তে সেনাবাহিনী দেশের জনগণের পাশে থাকবে।

আজ সোমবার সন্ধ্যায় পল্টনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দেশের চলমান আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে নিজের অসন্তোষের কথা জানিয়ে সেনাবাহিনীর প্রতি এই আহ্বান জানান ড. কামাল।

ড. কামাল হোসেন যিনি একই সঙ্গে গণফোরামের সভাপতি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে ঐক্যফ্রন্টের সাত হাজারের বেশি নেতা-কর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হওয়ার পর থেকে দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি হয়েছে বলে দাবি করে তিনি বলেন, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের মোতায়েন করার পরও পরিস্থিতির পরিবর্তন হয়নি।

তিনি বলেন, পুলিশের অতি উৎসাহের কারণে প্রতিদিন আইন শৃঙ্খলার অবনতি হচ্ছে। তবে পরিস্থিতি শেষ পর্যন্ত যাই দাঁড়াক নির্বাচন থেকে তারা সরে আসবেন না বলেও আজ ফের ঘোষণা দেন তিনি।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

Ushering Baishakh with mishty

Most Dhakaites have a sweet tooth. We just cannot do without a sweet end to our meals, be it licking your fingers on Kashmiri mango achar, tomato chutney, or slurping up the daal (lentil soup) mixed with sweet, jujube and tamarind pickle.

2h ago