খেলা

বর্ণবাদী মন্তব্যের জেরে পাকিস্তান অধিনায়ক চার ম্যাচ নিষিদ্ধ

দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার আন্দেলো ফেহলুখয়োকে বর্ণবাদী মন্তব্য করে সমালোচিত হয়ে আসছিল পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ঘটনার পর আন্দেলোর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবেও ক্ষমা চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ছাড় পাননি শেষ পর্যন্ত। বর্নবাদ ইস্যুতে কঠোর অবস্থানে থাকা আইসিসি সরফরাজকে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ করেছে।
Sarfraz Ahmed
ছবি: এএফপি

দক্ষিণ আফ্রিকান পেসার আন্দেলো ফেহলুখয়োকে বর্ণবাদী মন্তব্য করে সমালোচিত হয়ে আসছিল পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। ঘটনার পর আন্দেলোর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবেও ক্ষমা চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ছাড় পাননি শেষ পর্যন্ত। বর্নবাদ  ইস্যুতে কঠোর অবস্থানে থাকা আইসিসি সরফরাজকে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ করেছে।

রোববার সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সরফরাজকে নিষিদ্ধ করার কথা জানায় আইসিসি। সরফরাজ নিষিদ্ধ হওয়ায় জোহেন্সবার্গে সিরিজের চতুর্থ ওয়ানডেতে  পাকিস্তানকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন শোয়েব মালিক।

টস করতে এসে মালিক বলেন, ‘আমরা সবাই তাকে (সরফরাজকে) চেয়েছিলাম। কিন্তু যেটা হয়েছে, আপনারা সবাই জানেন কি হয়েছে। এই ব্যাপারে আমি কোন মন্তব্য করতে চাই না। এমন পরিস্থিতিতে অধিনায়কত্বের সুযোগ পেয়েছি। সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করব।’

দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি বলেন, ‘আমরা জেনেছি তাকে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।’

বিজ্ঞপ্তিতে আইসিসি জানায়, কেবল চার ম্যাচ নিষিদ্ধই নয়। বর্নবাদ বিরোধী একটি কর্মশালাতেও তাকে অংশ নিতে হবে। সেখানে তাকে একই ধরনের অন্য অপরাধ নিয়েও বলা হবে।

ডারবানে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে চলার সময় ব্যাট করতে থাকা ফেহলুখয়োকে আপত্তিকর মন্তব্য করেন সরফরাজ। যা স্টাম্প মাইকে ধরা পড়ে। তিনি উর্দুতে বলেছিলেন, ‘ওই কালা (কৃষ্ণবর্ণ মানুষের ব্যঙ্গাত্মক রুপ), তোর মা আজ কই বসেছে? আজ তাকে কী প্রার্থনা করতে বলেছিস?’

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর দুবার ক্ষমা চান সরফরাজ। তবু শীতল হয়নি পরিবেশ। এই ব্যাপারে নিজেদের কঠোর অবস্থান জানিয়ে আইসিসি প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন জানান, ‘এই ব্যাপারে আইসিসির বরাবরই জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে চলে।’

Comments

The Daily Star  | English

MV Abdullah passing through high-risk piracy area

Precautionary safety measures in place, Italian Navy frigate escorting it

35m ago