কোথাও থেকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ পাওয়া যায়নি: শিক্ষামন্ত্রী

​শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, এসএসসি, দাখিল ও ভোকেশনাল পরীক্ষায় এখনও পর্যন্ত দেশের কোথাও থেকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ পাওয়া যায়নি। সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক সহযোগিতা ও গোয়েন্দা নজরদারির কারণে এটা সম্ভব হয়েছে। সারাদেশে আজ সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা শুরু হয়েছে।
শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, এসএসসি, দাখিল ও ভোকেশনাল পরীক্ষায় এখনও পর্যন্ত দেশের কোথাও থেকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ পাওয়া যায়নি। সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক সহযোগিতা ও গোয়েন্দা নজরদারির কারণে এটা সম্ভব হয়েছে। সারাদেশে আজ সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, “দেশের কোথাও থেকে প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ পাওয়া যায়নি এবং তা হবেও না।”

আজ রাজধানীর উত্তরার আশকোনা বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ডা. দীপু মনি বলেন, ২০১৮ সালে দেশে কোনো প্রশ্নফাঁস হয়নি। আশা করছি এবছরও তা হবে না। প্রশ্নফাঁস নিয়ে যতো খবর ছিল তার প্রায় ৮০ শতাংশ ছিল গুজব। তিনি অভিভাবকসহ সবাইকে গুজবে কান না দেওয়ার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, “একেবারে নকল ও প্রশ্নফাঁস মুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা শেষ করতে নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এবার আমরা আরও কঠোর অবস্থানে রয়েছি। কেউ যদি প্রশ্নপত্র ফাঁস কিংবা তার গুজব ছড়ায় তাহলে তারা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে ধরা পড়বে। এমন ন্যাক্কারজনক কাজের সঙ্গে কেউ জড়িত থাকলে কেউ রেহাই পাবে না। তাদেরকে অবশ্যই আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।”

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যেসব নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল এর সবকটি অনুসরণ করা হয়েছে। পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে প্রশ্নবাক্স খোলা হয়েছে। সারাদেশে অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল পেপারে মোড়ানো প্রশ্নপত্র পাঠানো হয়েছে।

প্রশ্নফাঁসের গুজব রটনাকারী কয়েকজনকে ইতোমধ্যে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গ্রেফতার করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা ফেসবুকসহ ইন্টারনেটের মাধ্যমে গুজব ছড়াচ্ছে তাদের ওপর নজরদারি বসানো হয়েছে। তাদেরকে দ্রুতগতিতে দেশের আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী গ্রেপ্তার করবে। তিনি সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন করতে সকল অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সহায়তা কামনা করেন।

শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব সোহরাব হোসেন, কারিগরি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আলমগীরসহ মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন।

Comments

The Daily Star  | English

Thousands pray for rain as Bangladesh sizzles in heatwave

Thousands of Bangladeshis yesterday gathered to pray for rain in the middle of an extreme heatwave that prompted authorities to shut down schools around the country

16m ago