ফুটবল

রামোস এখন ভিএআরের বড় ভক্ত

সপ্তাহও পার হয়নি। দুই দুইটি মূল্যবান জয়ে ভিএআরের দারুণ সহায়তা পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। লালিগায় মাদ্রিদ ডার্বিতে অ্যাতলেটিকোর বিপক্ষে বিতর্কিত জয়ের রেশ কাটতে না কাটতে এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আয়াক্সের বিপক্ষে জয়। আর তাতেই ভিএআরের বড় ভক্ত হয়ে গেছেন রিয়াল অধিনায়ক সের্জিও রামোস। অথচ কিছু দিন আগেও ভিএআরের সমালোচনা করেছিলেন তিনি।
ছবি: রয়টার্স

সপ্তাহও পার হয়নি। দুই দুইটি মূল্যবান জয়ে ভিএআরের দারুণ সহায়তা পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। লালিগায় মাদ্রিদ ডার্বিতে অ্যাতলেটিকোর বিপক্ষে বিতর্কিত জয়ের রেশ কাটতে না কাটতে এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আয়াক্সের বিপক্ষে জয়। আর তাতেই ভিএআরের বড় ভক্ত হয়ে গেছেন রিয়াল অধিনায়ক সের্জিও রামোস। অথচ কিছু দিন আগেও ভিএআরের সমালোচনা করেছিলেন তিনি।

আয়াক্সের বিপক্ষে ম্যাচের ৩৭ মিনিটের কথা। দারুণ এক হেডে বল জালে জড়ান নিকোলাস তাগলিয়াফিকো। কিন্তু ভিএআরে অফসাইডের অজুহাতে বাতিল হয় সে গোল। গোলের সময় অফসাইড পজিশনে ছিলেন দুসান তাদিচ। তিনি বল স্পর্শ না করলেও গোল বাতিলের সিদ্ধান্তই নেন রেফারি। তাদের যুক্তি বল স্পর্শ না করলেও রিয়াল গোলরক্ষক থিবো কোর্তুয়ার স্বাভাবিক খেলায় বাধা সৃষ্টি করেছেন।

শুধু এটাই নয়, রিয়াল মাদ্রিদের দ্বিতীয় গোলেও আছে বিতর্ক। মাঝ মাঠ থেকে আক্রমণে যাওয়ার পথে ফ্রাঙ্কি ডি ইয়ংকে ইচ্ছাকৃত ফেলে দেন লুকাস ভাসকেস। কিন্তু সামনে থেকে ফাউল দেননি রেফারি। ভিএআরেও বিষয়টি এড়িয়ে যান তিনি। এর আগে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষেও এমন সিদ্ধান্তে বেশ আলোচনা সৃষ্টি করেছিল। তবে এসব পাত্তাই দিচ্ছেন না রামোস। কিন্তু চলতি বছরেই লালিগার ম্যাচে এইবারের বিপক্ষে একটি সিদ্ধান্ত নিজেদের বিপক্ষে ভিএআরের সমালোচনা করতে ছাড়েননি রামোস।

অথচ আয়াক্সের বিপক্ষে জয়ের পর ভিএআর ফুটবলকে আরও সুন্দর করছে বলেই জানালেন রামোস, ‘আমি ভিএআরের বড় ভক্ত। ধীরে ধীরে এটা ফুটবলকে আরও পরিচ্ছন্ন করছে। এত মাঝে মধ্যে আমাদের উৎসবেও আঘাত হানে। তবে আজকে এটা আমাদের বিপক্ষে করা গোল বাতিল করেছে যেটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল।’

আগের দিন আয়াক্সের বিপক্ষে রিয়ালের জার্সি গায়ে ৬০০তম ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন রামোস। মাইলফলকের ম্যাচে দারুণ নাটকীয় জয় পেয়েছে তারা। তবে জয় পেলেও প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলতে পারেনি দলটি। গোছানো আক্রমণগুলো করেছিল আয়াক্সই। গোল করার মতো সুযোগও ঢের বেশি পেয়েছিল স্বাগতিকরা।

ঘরের মাঠে নিজেদের সেরাটা খেলার প্রত্যয় ঝরে অধিনায়কের কণ্ঠে, ‘আমরা জানি আমরা মান অনুযায়ী খেলতে পারিনি। আমরা সংগ্রাম করেছি। এটা আমাদের সেরা ম্যাচ ছিল না। আমাদের গুছিয়ে উঠতে হবে এবং ফিরতি লেগে আমাদের অগ্রাধিকার নিতে হবে। আমরা তাদের মাঠ থেকে দুটি গোল নিয়ে ফিরতে পারছি যেটা টুর্নামেন্টে আমাদের অনেক এগিয়ে রাখবে।’

Comments

The Daily Star  | English

Trade at centre stage between Dhaka, Doha

Looking to diversify trade and investments in a changed geopolitical atmosphere, Qatar and Bangladesh yesterday signed 10 deals, including agreements on cooperation on ports, and overseas employment and welfare.

6h ago