মন্থর নয়, আগেরবার পরিস্থিতির ‘দাবি মিটিয়েছিলেন’ আশরাফুল

আগের বছর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। পাঁচ সেঞ্চুরির চারটিতেই হেরেছিল তার দল। নেমে গিয়েছিল প্রথম বিভাগে। রান করলেও ওই মৌসুমে আশরাফুলের মন্থর ব্যাটিং নিয়ে তাই উঠেছিল প্রশ্ন। এবার মোহামেডানের হয়ে নতুন মৌসুম শুরু আগে জাতীয় দলের সাবেক এই তারকা মনে করছেন আগের বছর মন্থর নয়, পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলেছিলেন তিনি।
Mohammad Ashraful
ফাইল ছবি: একুশ তাপাদার

আগের বছর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেছিলেন মোহাম্মদ আশরাফুল। পাঁচ সেঞ্চুরির চারটিতেই হেরেছিল তার দল। নেমে গিয়েছিল প্রথম বিভাগে। রান করলেও ওই মৌসুমে আশরাফুলের মন্থর ব্যাটিং নিয়ে তাই উঠেছিল প্রশ্ন। এবার মোহামেডানের হয়ে নতুন মৌসুম শুরু আগে জাতীয় দলের সাবেক এই তারকা মনে করছেন আগের বছর ঠিক মন্থর নয়, পরিস্থিতি অনুযায়ী খেলেছিলেন তিনি। 

এবার ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আশরাফুলকে দলে নিয়েছে ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে প্রিমিয়ার লিগের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। ৮ মার্চ থেকে শুরু মূল লিগ। তার আগে পুরোদমে অনুশীলন করছেন আশরাফুল। 

আগের বার কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের হয়ে পাঁচ সেঞ্চুরির চারটিই আশরাফুল করেন বেশ মন্থর গতিতে। ১৩৭ বলে অপরাজিত ১০২, ১৩৭ বলে ১০৩, ১৩১ বলে ১০৪। এরকম রান করা তিন ম্যাচেই হারে তার দল। ওইসব ম্যাচে সেঞ্চুরি পেতে তিনি বেশ মন্থর খেলেছিলেন কিনা সেই প্রশ্ন উঠেছিল।।

তার আরেকটি মন্থর সেঞ্চুরিতে (১৩৬ বলে ১০২) দল জিতেছিল। কিন্তু ওই ম্যাচে আরেক প্রান্তে তাসামুল হক খেলেছিলেন ১১৫ বলে ১০৬ রানের ইনিংস। সে ম্যাচে সেরাও হয়েছিলেন তাসামুলই। পাঁচ সেঞ্চুরির মধ্যে একটিতেই রানের চেয়ে বল কম ছিল। কিন্তু আশরাফুলের দল সেই ম্যাচটিতে জিততে পারেনি।

শনিবার অনুশীলন শেষে আশরাফুল জানালেন, মন্থর নয় তিনি পরিস্থিতি বিচার করেই চালিয়েছেন ব্যাট,  ‘এটা আসলে আমি মনে করি না (মন্থর ব্যাটিং)। যদি ম্যাচের পরিস্থিতি দেখেন, পরিস্থিতি অনুযায়ী, শুরুতে হয়তো কয়েকটা ম্যাচে (মন্থর হয়েছে), তবে যেগুলো আমি সেঞ্চুরি করেছিলাম। সেগুলো পরিস্থিতি অনুযায়ী ঠিকই ছিল। কারণ মোহামেডানের সাথে আমি ১২৭ করেছিলাম ১২৩ বলে। তো হাতে থাকবে রান বেশি হবে তখন এক ধরনের খেলা, আবার উইকেট পড়ে গেলে আরেকরকমের খেলা হবে।’

তবে পরিস্থিতি অনুযায়ী খেললেও নিজের ফিটনেসে আস্থা রেখে এবার স্ট্রাইকরেট আরও বাড়ানোর আশা তার, ‘গত বছর ৭৪ স্ট্রাইক রেট ছিল, এবার চেষ্টা থাকবে...(বাড়ানোর)। তবে এটাও ঠিক গত বছর থেকে আমি এখন অনেক ফিট। সবকিছু থেকে অনেক উন্নতি হয়েছে। গত বছর এতটা ফিট ছিলাম না। লক্ষ্য তো থাকবেই স্ট্রাইক রেটটা যেন ভালো হয়। দলের  পারফর্মেন্সে প্রভাব পড়ে ওইভাবে চেষ্টা করব।

আগেরবারের দল কলাবাগানের চেয়ে মোহামেডান ঢের এগিয়ে থাকাতেও ইতিবাচক কিছুর আশা দেখছেন তিনি, ‘সবাই যে প্রশ্ন করে, দলের পারফর্মেন্সে প্রভাব পড়ে নাই। আসলে একা তো সম্ভব না। তো এইবার দলটা খুব ভালো। আশা করি সবাই মিলে ভালো করব।’

এবার বিপিএলে চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে মাত্র তিন ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন আশরাফুল। নিজেকে প্রমাণ করতে পারেননি সেখানে। সেই খেদ থেকে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগেই ভালো কিছুর দিকে নজর তার, ‘বিপিএলটা যদি সুযোগ পেতাম তাহলে ভালো খেলার সম্ভাবনা থাকত। যেহেতু ঢাকা লীগটা গত বছর ভালো খেলেছিলাম, দল ফল পায় নি। কিন্তু ব্যক্তিগত পারফর্মেন্স ভালো হয়েছিল। সেটাই এবার করতে চাইব। শুরু থেকে ভালো করতে চাইব।’

Comments

The Daily Star  | English

NBR suspends Abdul Monem Group's import, export

It also instructs banks to freeze the Group's bank accounts

59m ago