বিএনপির ঘাড়ে দোষ চাপাতে তাসভিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে: ফখরুল

বনানীতে এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি তাসভির-উল-ইসলামকে গ্রেপ্তারের ব্যাপারে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার ক্ষমতা খাটিয়ে তাসভিরকে গ্রেপ্তার করেছে শুধুমাত্র জনগণের কাছে বিএনপিকে দোষী করার জন্য।
Mirza Fakhrul Islam Alamgir
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

বনানীতে এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সভাপতি তাসভির-উল-ইসলামকে গ্রেপ্তারের ব্যাপারে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার ক্ষমতা খাটিয়ে তাসভিরকে গ্রেপ্তার করেছে শুধুমাত্র জনগণের কাছে বিএনপিকে দোষী করার জন্য।

আজ রোববার এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, “এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সরকারের চরম ব্যর্থতায় জনমনে যে ধিক্কার উঠেছে সেটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতেই তাসভিরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি ওই ভবনের মালিক নন কিংবা ডেভেলপারও নন। তিনি ভবন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ফ্লোর কিনেছেন মাত্র। সুতরাং তিনি কোনভাবেই দায়ী হতে পারেন না।”

ফখরুল বলেন, বহুতল ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে নিয়ম-নীতি অনুসরণে সরকারের গাফিলতি এবং আগুন নেভাতে ফায়ার সার্ভিসের মতো সরকারি প্রতিষ্ঠানের দৈন্য-দশায় আগুনে পুড়ে মানুষের মৃত্যুতে যে ট্র্যাজেডি সৃষ্টি হচ্ছে সেটির দায় অন্যের ঘাড়ে চাপিয়ে সরকার নির্দোষ সাজতে চাইছে। এর সম্পূর্ণ দায় সরকারের।

তাসভীরকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, চকবাজারের চুড়িহাট্টা, বনানীর এফআর টাওয়ার, গুলশানের কাঁচা বাজারে আগুনসহ বিভিন্ন স্থানে অগ্নিকাণ্ডে মানুষের প্রাণহানিতে চারিদিকে শুধু ট্র্যাজেডিরই পুনরাবৃত্তি ঘটছে। সরকার রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলে ব্যস্ত বলেই জনস্বার্থের বিষয়টি সবসময় তাচ্ছিল্য করছে। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা দিতে সরকার সম্পূর্ণরূপে ব্যর্থ হওয়ার জন্যই ‘উদোর পিণ্ডি বুধো’র ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। আর সেই অপচেষ্টার শিকার কুড়িগ্রাম জেলা বিএনপির সভাপতি তাসভির-উল-ইসলাম।

Comments

The Daily Star  | English

International Mother Language Day: Languages we may lose soon

Mang Pu Mro, 78, from Kranchipara of Bandarban’s Alikadam upazila, is among the last seven speakers, all of whom are elderly, of Rengmitcha language.

10h ago