‘আগুন-হামলার’ শিকার ফেনীর মাদরাসার সেই শিক্ষার্থী ঢামেকে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে

‘গায়ে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়ার’ শিকার ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার সেই শিক্ষার্থী এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।
Victims father
৮ এপ্রিল ২০১৯, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটের আইসিইউ-এর সামনে কাঁদছেন ‘আগুন-হামলার’ শিকার ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার শিক্ষার্থীর বাবা। ছবি: পলাশ খান

‘গায়ে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়ার’ শিকার ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসার সেই শিক্ষার্থী এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে।

আজ (৮ এপ্রিল) তাকে হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে।

বার্ন ইউনিটের কোঅর্ডিনেটর ড. সামন্ত লাল সেন জানান, সেই মাদরাসা শিক্ষার্থীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে দুপুর ১২টার দিকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়েছে।

১৮ বছর বয়সী সেই শিক্ষার্থীর শরীরের ৭৫ শতাংশ পুড়ে গেছে এবং তিনি “কথা বলার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছেন” উল্লেখ করে ড. সেন জানান, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীর চিকিৎসার জন্যে ৯ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছে।

গত মাসের শেষের দিকে মাদরাসার প্রিন্সিপাল মওলানা সিরাজ উদ দৌল্লার বিরুদ্ধে আনীত যৌন হয়রানির মামলা তুলে নিতে অস্বীকার জানালে সেই শিক্ষার্থীর উপর হামলার অভিযোগ উঠে।

অভিযোগ উঠে- গত ৬ এপ্রিল সকালে চলমান আলিম পরীক্ষার আরবি প্রথম পত্রের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কয়েক মিনিট আগে চারজন অপরিচিত ব্যক্তি সেই শিক্ষার্থীকে মাদরাসার ছাদে নিয়ে যান।

সেই শিক্ষার্থীর কাছে ঘটনা শুনে তার ভাই দ্য ডেইলি স্টারকে বলেন, “সেই লোকগুলো আমার বোনকে প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা তুলে নিতে বলেন। কিন্তু, সে রাজি না হওয়ায় তাদের একজন তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন।”

Comments

The Daily Star  | English
Dhaka Airport Third Terminal: 3rd terminal to open partially in October

HSIA’s terminal-3 to open in Oct

The much anticipated third terminal of the Dhaka airport is likely to be fully ready for use in October, enhancing the passenger and cargo handling capacity.

9h ago