সেনার গুলিতে নিহত আরেক সেনা

লোকসভা নির্বাচনে পঞ্চম দফার ভোটের কর্তব্য পালন করতে এসে দুই ভারতীয় আধা-সেনা সদস্যের মধ্যে বিবাদের জের এক সেনা সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। গুরুত্বর আহত হয়েছেন আরও দুজন জাওয়ান। নিহত এবং আহতরা সবাই আসাম রাইফেলস এর সেভেন্থ ব্যাটালিয়ানের সদস্য।

লোকসভা নির্বাচনে পঞ্চম দফার ভোটের কর্তব্য পালন করতে এসে দুই ভারতীয় সেনা সদস্যের মধ্যে বিবাদের জের এক সেনা সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। গুরুত্বর আহত হয়েছেন আরও দুজন জাওয়ান। নিহত এবং আহতরা সবাই আসাম রাইফেলস এর সেভেন্থ ব্যাটালিয়ানের সদস্য।

বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার অদূরে হাওড়ার বাগনানে এই ঘটনা ঘটে। নিহত জওয়ানের নাম ভোলা নাথ দাস।

স্থানীয় মানুষের বক্তব্য, বৃহস্পতিবার সকাল আচমকা গুলি শব্দ শুনতে পান তারা। অনেকেই আতঙ্কে ছুটোছুটি শুরু করেন। কিন্তু পরে দেখা যায়, স্থানীয় একটি স্কুলে ভেতর থেকে আধা সেনা বাহিনীর সদস্যরাও দৌড়ে বের হতে শুরু করেছেন। পরে আস্তে আস্তে ঘটনাটি সবার কাছে পরিষ্কার হয়।

কলকাতার গণমাধ্যম বলছে, ভোলানাথ দাস নামে এক সুবেদারের সঙ্গে একই ব্যাটালিয়নের এক সেনার বচসা শুরু হয়। এক পর্যায়ে দুজনের মধ্যে তুমুল হাতাহাতি শুরু হলে ভোলানাথ দাসকে গুলি করে লক্ষ্মীকান্ত নামের এক সেনা সদস্য। রিন্টু বোধক ও অনিল রাজবংশী নামে আরও দুজনের পেটে ও পায়ে গুলি লাগে। তিন জনই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এবং ভোলনাথ দাস ঘটনার সময়ই মারা যান।

গুলি চালিয়ে অভিযুক্ত জওয়ান লক্ষ্মীকান্ত বর্মণ পালানোর চেষ্টা করেন কিন্তু তাকে ধরে ফেলে অন্য জওয়ানরা। এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছেন একজন কমান্ডন্ট পদমর্যাদার কর্মকর্তা।

সেনা সূত্রের খবর, অভিযুক্ত লক্ষ্মীকান্ত ১৩ রাউন্ড গুলি চালিয়েছে। এই মুহূর্তে পুরো নিরাপত্তাবাহিনী ভারতের নির্বাচন কমিশনের অধীনে নিয়ন্ত্রিত। ফলে গোটা বিষয়টি তারাই খতিয়ে দেখছে। যদিও এই বিষয়ে সন্ধ্যা পর্যন্ত কোনও বক্তব্য দেয়নি নির্বাচন কমিশন।

Comments

The Daily Star  | English

Bailey Road Fire: Death toll climbs to 44

33 died at DMCH, 10 at the burn institute, and one at Central Police Hospital

4h ago