ভূমধ্যসাগরে নৌকাডুবিতে অন্তত ৩৭ বাংলাদেশির মৃত্যু

লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার পথে তিউনিসিয়ার উপকূলে ভূমধ্যসাগরে গত বৃহস্পতিবার রাতে (৯ মে) অভিবাসীবাহী একটি নৌকা ডুবে অন্তত ৩৭ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ত্রিপলির বাংলাদেশ দূতাবাস।

লিবিয়া থেকে ইতালি যাওয়ার পথে তিউনিসিয়ার উপকূলে ভূমধ্যসাগরে গত বৃহস্পতিবার রাতে (৯ মে) অভিবাসীবাহী একটি নৌকা ডুবে অন্তত ৩৭ বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ত্রিপলির বাংলাদেশ দূতাবাস।

লিবিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কাউন্সেলর আ স ম আশরাফুল ইসলাম আজ বলেছেন, “আমরা তিউনিসীয় রেড ক্রিসেন্টের সঙ্গে কথা বলে নিশ্চিত হয়েছি যে, ইউরোপগামী নৌকাটিতে অন্যান্যদের সঙ্গে ৫১ বাংলাদেশি নাগরিক ছিলেন।”

নৌকাডুবি থেকে বেঁচে ফেরাদের মধ্যে পাঁচজন অসুস্থ এবং তাদেরকে তিউনিসিয়ায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া জীবিত উদ্ধার বাকিরা রেড ক্রিসেন্ট এবং তিউনিসিয়ায় শরণার্থীদের নিয়ে কাজ করা একটি আন্তর্জাতিক সংস্থার হেফাজতে রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

আশরাফুল আরও জানান, দুর্ঘটনার বিষয়ে তদন্তের জন্য তিনি ত্রিপলি থেকে তিউনিসিয়া যাবেন এবং প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবেন।

বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নৌকাডুবিতে বেঁচে যাওয়া লোকজন রেড ক্রিসেন্টকে জানিয়েছেন যে লিবিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় উপকূল জুওয়ারা থেকে ৭৫ জন আরোহী নিয়ে যাত্রা করা একটি ছোট নৌকা তিউনিসিয়ার উপকূলে এসে প্রবল ঢেউয়ের মধ্যে পড়ে ডুবে যায়।

ঘটনাস্থল তিউনিসিয়ার রাজধানী তিউনিসের দক্ষিণের উপকূল সাফেক্স থেকে ৬৫ কিলোমিটার দূরে হওয়ায় জেলেরা নৌকার আরোহীদের মধ্য থেকে মাত্র ১৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করে জার্জিসে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানায় রেড ক্রিসেন্ট। 

চলতি বছর এটিই অভিবাসনপ্রত্যাশী বহনকারী কোনো নৌকাডুবির সবচেয়ে বড় ঘটনা বলে উল্লেখ করেছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম)।

জীবিতদের দেওয়া তথ্য মতে, নৌকাটিতে কেবল পুরুষ আরোহী ছিলেন। এদের মধ্যে ৫১ বাংলাদেশি, ৩ মিশরীয় এবং বেশ কয়েকজন ছিলেন মরক্কো, কানাডা ও আফ্রিকান নাগরিক।

রেড ক্রিসেন্ট বলছে, জীবিতদের মধ্যে এক শিশুসহ ১৪ বাংলাদেশি রয়েছেন।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh yet to benefit from GI-certified products

Bangladesh yet to benefit from GI-certified products

Bangladesh is yet to derive any benefit from the products granted the status of geographical indication (GI) due to a lack of initiatives from stakeholders although the recognition enhances the reputation of goods, builds consumer confidence and brings in higher prices.

6h ago