ভারতে লোকসভা নির্বাচন

এগিয়ে যাচ্ছে বিজেপি

প্রথম আড়াই ঘণ্টার ফলাফলের যা ট্রেন্ড তাতে আবার ক্ষমতায় ফিরতে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার। আর দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদি।
India vote count
২৩ মে ২০১৯, উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের আহমেদাবাদ শহরে ভোট গুণছেন ভারতীয় নির্বাচন কমিশনের কর্মীরা। ছবি: রয়টার্স

প্রথম আড়াই ঘণ্টার ফলাফলের যা ট্রেন্ড তাতে আবার ক্ষমতায় ফিরতে চলেছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকার। আর দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন নরেন্দ্র মোদি।

তবে এটা এখনও ফলাফলের প্রবণতা মাত্র। চূড়ান্ত ফলাফলের আভাস পেতে আজ (২৩ মে) বিকাল হয়ে যাবে।

এখনও পর্যন্ত ৫৪২ আসনের মধ্যে ৩২৯ আসনে এগিয়ে এনডিএ, কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন জোট ইউপিএ ১০৬ এবং অন্যান্যরা এগিয়ে ১০২। ভারতের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে। এই তথ্যটি প্রতি সেকেন্ড আপডেটেড হচ্ছে। ফলত খবর পড়তে পড়তেই তথ্যের হেরফের হতে পারে।

অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের ৪২ আসনের মধ্যে ২৪টিতে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। এছাড়াও, বিজেপি এগিয়ে রয়েছে ১৬টিতে এবং কংগ্রেস ২টিতে। বামফ্রন্টের এগিয়ে থাকার কোনও সংবাদ নেই।

সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ অন্যদিকে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষেত্রে তৃণমূলের তারকা দুই প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী, নুসরাত জাহান, দেব এগিয়ে রয়েছেন এবং পিছিয়ে গেছেন দলটির আরেক তারকা প্রার্থী মুনমুন সেন।

বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের দেশ ভারতের ১৭তম জাতীয় লোকসভা নির্বাচনের চূড়ান্ত পর্ব ফলাফল গণনার কাজ শুরু হয়।

স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে এই গণনার কাজ শুরু হয়। পশ্চিমবঙ্গে ৪২ আসনের ৫৮টি গণনাকেন্দ্রে ৩৭৬ হলে ৪৬৬৮ টেবিলে এই গণনার কাজ করা হচ্ছে। ২৫ হাজার গণনাকর্মীরা এই কাজে অংশ নিয়েছেন।

গণনা কাজের পর্যবেক্ষণের জন্যে ৫৫ জন নির্বাচন কমিশনের পর্যবেক্ষক রয়েছেন এবং গণনা কেন্দ্রের বাইরে ৮২ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী নিরাপত্তা নিশ্চিত করছেন।

ভারতের লোকসভার আসন ৫৪৩টি হলেও এবার একটি আসনের ভোটগ্রহণ হয়নি। তাই আজ ৫৪২ আসনের ফলাফল প্রকাশ করা হবে।

Comments

The Daily Star  | English

Int’l bodies fail to deliver when needed: PM

Though there are many international bodies, they often fail to deliver in the time of crisis, said Prime Minister Sheikh Hasina

28m ago