অস্ট্রেলিয়াই বিশ্বকাপ জিতবে, ওয়ার্নের দাবি

গেল বছর স্টিভেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার যখন শাস্তি ভোগ করছিলেন, অস্ট্রেলিয়া তখন একের পর হারের ক্ষতে জর্জরিত হচ্ছিল। সব হারিয়ে ফেলা সেই অসিরাই বিশ্বকাপ ঘনিয়ে আসতে আসতে ফিরেছে চেনা রূপে। দলটির সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান বলছে, ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের অন্যতম ফেভারিট তারা। তবে কেবল ফেভারিট ‘তকমা’য় সন্তুষ্ট হতে পারছেন না দেশটির কিংবদন্তি সাবেক লেগ স্পিনার শেন ওয়ার্ন। কোনো রাখঢাক না করেই তিনি দাবি করে বসেছেন, ইংলিশদের মাটিতে বিশ্বজয়ের জয়গান গাইবে অস্ট্রেলিয়াই!
shane warne
ফাইল ছবি

গেল বছর স্টিভেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার যখন শাস্তি ভোগ করছিলেন, অস্ট্রেলিয়া তখন একের পর হারের ক্ষতে জর্জরিত হচ্ছিল। সব হারিয়ে ফেলা সেই অসিরাই বিশ্বকাপ ঘনিয়ে আসতে আসতে ফিরেছে চেনা রূপে। দলটির সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান বলছে, ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের অন্যতম ফেভারিট তারা। তবে কেবল ফেভারিট ‘তকমা’য় সন্তুষ্ট হতে পারছেন না দেশটির কিংবদন্তি সাবেক লেগ স্পিনার শেন ওয়ার্ন। কোনো রাখঢাক না করেই তিনি দাবি করে বসেছেন, ইংলিশদের মাটিতে বিশ্বজয়ের জয়গান গাইবে অস্ট্রেলিয়াই!

২০১৮ সালে তো বটেই, চলতি বছরের শুরুতেও ব্যর্থতার বৃত্তে বন্দি ছিল বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। তবে গেল মার্চ থেকে কেটে যেতে থাকে সব শঙ্কার মেঘ। ভারতের মাটিতে ২-০’তে পিছিয়ে পড়ার পরও অস্ট্রেলিয়া ঘুরে দাঁড়িয়ে ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেয় ৩-২ ব্যবধানে। ওই মাসের শেষদিকে অ্যারন ফিঞ্চের দল পাঁচ ম্যাচের সিরিজে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে। সেই ধারাবাহিকতায় নিউজিল্যান্ডকে আনঅফিসিয়াল সিরিজে পরাস্ত করার পর আসন্ন বিশ্বকাপের সবচেয়ে ফেভারিট দল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বিশ্বকাপের অফিসিয়াল প্রস্তুতি ম্যাচেও জিতেছে অস্ট্রেলিয়া।

তাছাড়া নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে ফিরেছেন স্মিথ-ওয়ার্নার। তাদের আগমনে পুরো দলের চেহারাই পাল্টে গেছে। শক্তির বিচারে যে কোনো দলকে হারানোর সামর্থ্য তারা রাখে। সবমিলিয়ে টানা আট ওয়ানডে জয়ের স্বাদ নিয়ে বিশ্বমঞ্চে পা রাখতে যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। দলটির এই পুনর্জন্মই ওয়ার্নের বিশ্বাসের পালে হাওয়ার জোগান দিচ্ছে। তাই ইংল্যান্ড ও ভারতকে ফেভারিট মানলেও নিজের উত্তরসূরিদের হাতে বিশ্বকাপের ট্রফি দেখছেন সাবেক তারকা।

অসিদের জার্সিতে ১৯৯৯ বিশ্বকাপ জেতা ঘূর্ণি-জাদুকর ওয়ার্ন ভারতীয় গণমাধ্যমের কাছে জানান, ‘সবাই অস্ট্রেলিয়াকে হালকাভাবে নিচ্ছে। কারণ, গেল ১২ মাসে তারা খুব একটা ভালো ক্রিকেট খেলেনি। কিন্তু শেষ কয়েকটি মাসে তারা বিশ্বাস ফিরে পেয়েছে। অতীতের অসি দলগুলোর মতো ভাবতে শুরু করেছে। এখন ভাবতে পারছে, যে কোনো অবস্থা থেকেই জেতা সম্ভব।’

‘আমি মনে করি ইংল্যান্ড ও ভারত শিরোপার সম্ভাব্য দাবিদার। সম্প্রতি তারা দারুণ ক্রিকেট খেলছে। কিন্তু আপনি যদি ইতিহাসের দিকে তাকান, তা হলে দেখতে পাবেন যে, শেষ পাঁচ আসরের চারটিতেই অস্ট্রেলিয়া এই প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তাই আমি বিশ্বাস করি, তারা শিরোপা জিততে পারে। শুধু তাই নয়, আমি মনে করি ওরাই জিতবে,’ যোগ করে বলেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Boi Mela extended by 2 days

The duration of this year's Amar Ekushey Book Fair has been extended by two days

1h ago