কীভাবে বড় স্কোর গড়তে হয় ওরা দেখিয়েছে, আমরা পারিনি: দু প্লেসি

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে উড়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশের কাছেও হার। বিশ্বকাপের শুরতেই ব্যাকফুটে চলে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। টানা দুই হারে স্বাভাবিকভাবেই হতাশ দলটির অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তা স্পষ্টভাবে ফুটে উঠল তার কথায়। তবে একের পর এক তির্যক প্রশ্নে জর্জরিত হওয়ার মাঝে অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখানো বাংলাদেশ দলের প্রশংসাও করেছেন দু প্লেসি।
du plessis
ছবি: রয়টার্স

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে উড়ে যাওয়ার পর বাংলাদেশের কাছেও হার। বিশ্বকাপের শুরতেই ব্যাকফুটে চলে গেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। টানা দুই হারে স্বাভাবিকভাবেই হতাশ দলটির অধিনায়ক ফাফ দু প্লেসি। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে তা স্পষ্টভাবে ফুটে উঠল তার কথায়। তবে একের পর এক তির্যক প্রশ্নে জর্জরিত হওয়ার মাঝে অসাধারণ পারফরম্যান্স দেখানো বাংলাদেশ দলের প্রশংসাও করেছেন দু প্লেসি।

রবিবার (২ জুন) ওভালে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২১ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। টাইগারদের ৬ উইকেটে ৩৩০ রানের জবাবে প্রোটিয়ারা পৌঁছাতে পারে ৮ উইকেটে ৩০৯ রান পর্যন্ত।

দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিংয়ের তিন নম্বর দল। বাংলাদেশ সাতে। তাই র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ দল ইংল্যান্ডের কাছে হারটা গা সওয়া হলেও বাংলাদেশের বিপক্ষে হেরে বেশ চাপে পড়ে গেছেন দু প্লেসিরা। সংবাদ সম্মেলনে তিনি জানান, পরিকল্পনাগুলো কাজে না লাগাতেই টানা দুই হারের তিক্ত স্বাদ নিতে হয়েছে তাদের।

'ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে, আর এই ম্যাচেও আমাদের লক্ষ্য ছিল আগ্রাসী বোলিং করে তাদের (বাংলাদেশকে) ঘায়েল করা। কিন্তু আমরা নিজেদের সেরাটা দিতে পারিনি। আমাদের যারা নতুন বলে বোলিং করেছে, তারা নিজেরাই বলবে যে- আজ আমরা সেরা ছিলাম না, ভালো ছিলাম না।'

নিজেদের কৌশল কাজে না লাগার পর বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের দেখে একই কায়দায় ব্যাটিং করতে চেয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। কিন্তু নিয়মিত বিরতিতে বাংলাদেশের বোলাররা উইকেট তুলে নেওয়ায় দু প্লেসিদের ওই কৌশলটাও ব্যর্থ হয়েছে।

'বাংলাদেশ খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। ওদেরকে কৃতিত্ব দিতেই হবে। ইনিংসকে খুব ভালোভাবে এগিয়ে নিয়ে গেছে তারা। কীভাবে বড় স্কোর গড়তে হয়, ওরা তা দেখিয়েছে। আমরাও তা করার চেষ্টা করেছি, কিন্তু লম্বা সময় ধরে পারিনি। তারা বড় জুটি গড়েছে বলেই আমাদের চেয়ে বেশি রান করেছে।'

Comments

The Daily Star  | English

Raids on hospitals countrywide from Feb 27: health minister

There will be zero tolerance for child deaths due to hospital authorities' negligence, he says

1h ago