নিউজিল্যান্ডের কাছে পাত্তা পেল না আফগানিস্তান

আফগানিস্তানকে অল্প রানে বেঁধে ফেলে জয়ের পথটা তৈরি করে দেন জিমি নিশাম আর লোকি ফার্গুসন। সেই পথে হেঁটে বাকি দায়িত্বটুকু শেষ করেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। আফগানিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টানা তৃতীয় জয় পেল কিউইরা।
jimmy neesham
উইকেট প্রাপ্তির উল্লাসে জিমি নিশাম। ছবি: রয়টার্স

আফগানিস্তানকে অল্প রানে বেঁধে ফেলে জয়ের পথটা তৈরি করে দেন জিমি নিশাম আর লোকি ফার্গুসন। সেই পথে হেঁটে বাকি দায়িত্বটুকু শেষ করেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। আফগানিস্তানকে হারিয়ে বিশ্বকাপে টানা তৃতীয় জয় পেল কিউইরা।

শনিবার (৮ জুন) টন্টনে আফগানদের পাত্তা না দিয়ে ৭ উইকেটের বড় জয় তুলে নেন উইলিয়ামসনরা। টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে ৪১.১ ওভারে ১৭২ রানে গুটিয়ে যায় আফগানিস্তান। জবাবে ১০৭ বল হাতে রেখে ৩ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে নোঙর করে কিউইরা।

ব্যাটিংয়ে নেমে আফগানদের শুরুটা হয়েছিল ভালো। নিউজিল্যান্ডের পেসারদের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করে দ্রুতগতিতে রান তুলতে থাকেন হজরতুল্লাহ জাজাই-নুর আলী জাদরান। কিন্তু নিশাম আক্রমণে এসেই উল্টে দেন সমস্ত হিসাব-নিকাশ। বল হাতে নিয়ে নিজের প্রথম ও ইনিংসের ১১তম ওভারে ফেরান বিপজ্জনক হয়ে ওঠা জাজাইকে। ২৮ বলে ৩৪ রান করে জাজাই ফিরে গেলে ভাঙে আফগানদের ৬৬ রানের উদ্বোধনী জুটি।

এরপর রানের খাতায় কিছু যোগ হওয়ার আগেই পরপর দুই ওভারে আরও দুটি উইকেট হারায় আফগানরা। আরেক ওপেনার নুর আলীকে বিদায় করেন ফার্গুসন। তিনি করেন ৩১ রান। এরপর নিশামের শিকার হন রহমত শাহ। আফগান শিবিরে চতুর্থ আঘাতও করেন তিনি। ফেরান অধিনায়ক গুলবাদিন নাইবকে। ফলে দলীয় ৭০ রানে ৪ উইকেট খুইয়ে ভীষণ চাপে পড়ে আফগানরা।

এই দুরবস্থা থেকে মুক্তি মেলেনি আফগানদের। ইনিংসের ২৪তম ওভারে নিশাম জোড়া আঘাতে নিশ্চিত করেন নিজের ৫ উইকেট। চার বলের ব্যবধানে ফেরান মোহাম্মদ নবি ও নাজিবুল্লাহ জাদরানকে। দলীয় ১০৯ রানে ৬ উইকেট হারানো আফগানিস্তান প্রায় পৌনে দুইশো পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে হাসমতুল্লাহ শহিদির কল্যাণে। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে ৯৯ বলে ৯ চারে ৫৯ রান করেন তিনি।

এর মাঝে ফার্গুসনের বলে বোল্ড হন রশিদ খান। তবে কিউই গতিতারকার শর্ট ডেলিভারিটি আগে রশিদের হেলমেটে লাগে। এরপর স্ট্যাম্পে। ওই আঘাত পাওয়ার পর আর মাঠে নামেননি তারকা লেগ স্পিনার। করেননি বোলিংও।

ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে ৩১ রানে ৫ উইকেট নেন নিশাম। ফার্গুসন ৪ উইকেট পান ৩৭ রানে। বাকি উইকেটটি নেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম।

অল্প পুঁজি নিয়ে আফগানদের বোলিংয়ের শুরুটা ছিল বেশ। প্রথম বলেই বিধ্বংসী মার্টিন গাপটিলকে আউট করেন পেসার আফতাব আলম। আরেক ওপেনার কলিন মুনরোকেও হাত খোলার আগে বিদায় করেন তিনি। তাতে স্কোরবোর্ডে ৪১ রান তুলতেই ২ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড।

এই ধাক্কা সামলে ৮৯ রানের জুটি গড়েন উইলিয়ামসন ও রস টেইলর। দলকে দেখান সহজ জয়ের দিশা। আফতাবের তৃতীয় শিকার হন টেইলর। তার ব্যাট থেকে আসে ৫২ বলে ৪৮ রান। এরপর টম ল্যাথামকে নিয়ে বাকি কাজটা সহজেই সারেন উইলিয়ামসন। ৯৯ বলে ৯ চারে ৭৯ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। ম্যাচসেরা হন নিশাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

আফগানিস্তান: ৪১.১ ওভারে ১৭২ (নুর আলি ৩১, জাজাই ৩৪, রহমত ০, শাহিদি ৫৯, নাইব ৪, নবি ৯, নাজিবউল্লাহ ৪, ইকরাম ২, রশিদ ০, আফতাব ১৪, হামিদ ৭*; হেনরি ০/৫০, বোল্ট ০/৩৪, ফার্গুসন ৪/৩৭, নিশাম ৫/৩১, ডি গ্র্যান্ডহোম ১/১৪)

নিউজিল্যান্ড: ৩২.১ ওভারে ১৭৩/৩ (গাপটিল ০, মুনরো ২২, উইলিয়ামসন ৭৯*, টেইলর ৪৮, ল্যাথাম ১৩*; আফতাব ৩/৪৫, হামিদ ০/৩০, নাইব ০/৫৫, নবি ০/১৮, রহমত ০/২১)।

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30, there were murmurs of one death. By then, the fire, which had begun at 9:50, had been burning for over an hour.

52m ago