পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক সংঘর্ষে নিহত ৪

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক সংঘর্ষে চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। কলকাতা থেকে প্রায় দেড়শো কিলোমিটার দূরে উত্তরচব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাট মহকুমার সন্দেশখালি ন্যাজার্টে থানা এলাকায় গতকাল (৮ জুন) ভারতীয় সময় সন্ধ্যায় সংঘর্ষ শুরু হয় যা চলে রাত ৯টা পর্যন্ত।
trinamool and bjp
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে রাজনৈতিক সংঘর্ষে চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। কলকাতা থেকে প্রায় দেড়শো কিলোমিটার দূরে উত্তরচব্বিশ পরগনা জেলার বসিরহাট মহকুমার সন্দেশখালি ন্যাজার্টে থানা এলাকায় গতকাল (৮ জুন) ভারতীয় সময় সন্ধ্যায় সংঘর্ষ শুরু হয় যা চলে রাত ৯টা পর্যন্ত।

নিহতরা সবাই গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন বলে পুলিশ নিশ্চিত করেছে।

রাজ্যের শাসক তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিরোধী বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলেও স্থানীয় সাংবাদিকরা দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন।

ওদিকে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের শীর্ষ নেতা ও রাজ্যটির খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক অভিযোগ করেছেন, হামলায় তাদের একজন সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে।

অন্যদিকে বিজেপির রাজ্য সম্পাদক সায়ন্তন বসু পাল্টা দাবি করেছেন নিহতদের তিনজন তাদের স্থানীয় নেতাকর্মী।

সংঘর্ষের ঘটনার পরই সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ বলে স্থানীয় অনেকেই এলাকা থেকে অন্য জায়গায় সরে যাচ্ছেন বলেও জানা গিয়েছে।

সন্দেশখালি ১ নম্বর ব্লকের হাটগাছা পঞ্চায়েতের ডাঙ্গিপাড়ায় দুটি দলের দুটি সভায় চলছিলো। ওই সভা শেষ হতেই দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়।

তৃণমূলের অভিযোগ, তাদের সভায় হামলা চালায় বিজেপি। উল্টো দিকে বিজেপি অভিযোগ করে শান্তিপূর্ণ মিটিংয়ে তৃণমূলের ক্যাডাররাও গুলি চালায় এবং এতে তাদের তিন নেতাকর্মীর মৃত্যু হয়।

নিহতদের নাম: প্রদীপ মণ্ডল, তপন মণ্ডল এবং সুকান্ত মণ্ডল। অন্যদিকে তৃণমূল দাবি করেছে তাদের নিহতকর্মীর নাম কাইয়ুস মোল্লা।

প্রসঙ্গত, ভারতের ১৭তম জাতীয় লোকসভা নির্বাচন শেষ হয়েছে। নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশের পর থেকেই রাজ্যে দুটি রাজনৈতিক দল নিজেদের ক্ষমতা প্রতিষ্ঠার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে। ফল প্রকাশের পর এখন পর্যন্ত রাজনৈতিক সংঘর্ষে দশজনের মৃত্যু হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English

How Ekushey was commemorated during the Pakistan period

The Language Movement began in the immediate aftermath of the establishment of Pakistan, spurred by the demands of student organisations in the then East Pakistan. It was a crucial component of a broader set of demands addressing the realities of East Pakistan.

15h ago