বাংলাদেশের বিপক্ষে ‘আন্ডারডগ’ তকমায় আপত্তি নেই হোল্ডারের

গেল এক বছরের ওয়ানডে পরিসংখ্যান বলছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশই ফেভারিট। টাইগার ওপেনার তামিম ইকবালও গেল পরশু সাংবাদিকদের কাছে বলেছিলেন, তারাও এমনটাই ভাবছেন। ফলে অবধারিতভাবেই ‘আন্ডারডগ’ তকমা জুড়ে গেছে উইন্ডিজের গায়ে। দলটির অধিনায়ক জেসন হোল্ডার তা মেনে নিয়েই জানিয়েছেন, এই তকমায় আপত্তি নেই তাদের।
jason holder
ছবি: রয়টার্স

গেল এক বছরের ওয়ানডে পরিসংখ্যান বলছে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশই ফেভারিট। টাইগার ওপেনার তামিম ইকবালও গেল পরশু সাংবাদিকদের কাছে বলেছিলেন, তারাও এমনটাই ভাবছেন। ফলে অবধারিতভাবেই ‘আন্ডারডগ’ তকমা জুড়ে গেছে উইন্ডিজের গায়ে। দলটির অধিনায়ক জেসন হোল্ডার তা মেনে নিয়েই জানিয়েছেন, এই তকমায় আপত্তি নেই তাদের।

সোমবার (১৭ জুন) ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে নিজেদের পঞ্চম ম্যাচে মাঠে নামতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৪ ম্যাচ শেষে দুদলের অর্জন সমান ৩ পয়েন্ট। তাই সেমিফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে এ ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই কোনো দলেরই।

২০১৮ সাল থেকে এখন পর্যন্ত মোট ৯টি ওয়ানডে খেলেছে দুদল। সেখানে বাংলাদেশের একচ্ছত্র আধিপত্য। মাশরাফি বিন মর্তুজাদের ৭ জয়ের বিপরীতে ক্যারিবিয়ানদের জয় মাত্র ২টিতে। বিশ্বকাপের আগে আয়ারল্যান্ডের মাটিতে ত্রিদেশীয় সিরিজে শিরোপা জয়ের পথে হোল্ডারদের সঙ্গে তিনবার দেখা হয়েছিল বাংলাদেশের। সবকটিতেই জিতেছিল স্টিভ রোডসের শিষ্যরা।

ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে হোল্ডারের কাছে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেওয়া হয়, সাম্প্রতিক ফলের বিচারে এ ম্যাচে বাংলাদেশ মানসিকভাবে কিছুটা এগিয়ে থাকবে কী-না। উত্তরে তিনি জানান, 'যদি আপনারা আমাদের ‘আন্ডারডগ’ বলতে চান, সেটা ঠিকই। সাম্প্রতিক অতীতে আমরা বেশ কয়েকবার তাদের মুখোমুখি হয়েছি এবং তারা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জিতেছে।'

বিশ্বকাপের হিসাবটা অবশ্য ভিন্ন। ক্রিকেটের মহাযজ্ঞে মোট চারবার পরস্পরকে মোকাবেলা করেছে দুদল। ১৯৯৯, ২০০৩, ২০০৭ ও ২০১১ সালের আসরে। এর মধ্যে ২০০৩ সালের ম্যাচটি ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। বাকি তিনটি ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে জিতেছিল উইন্ডিজ। তাছাড়া হঠাৎ করে জ্বলে ওঠার অনেক নজিরও তাদের রয়েছে। এবারের বিশ্বকাপের শুরুর ম্যাচেই পাকিস্তানকে নিয়ে ছেলেখেলা করেছিল ক্যারিবিয়ানরা।

তাই ভিন্ন প্রেক্ষাপটে ভিন্ন একটি ম্যাচে ভালো খেলার আশাবাদই জানান হোল্ডার, 'ক্রিকেট আসলে নির্ভর করে একটা নির্দিষ্ট দিনে একটা দল কেমন খেলছে তার ওপর। আগামীকাল (সোমবার) আমরা ভালো খেলার প্রত্যাশায় আছি।'

Comments

The Daily Star  | English

The never-ending hostility against female students

What was intended to be a sanctuary for empowerment has morphed into a harrowing ordeal for many female students

16h ago