সাইফউদ্দিনকে নিয়ে বেরোনো প্রতিবেদন ‘অসত্য’, প্রতিবাদ রোডসের

অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগের দিন হুট করেই জানা যায়, পীঠের চোটে পড়েছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। সেই চোটেই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাকে পায়নি বাংলাদেশ। কিন্তু ওই ম্যাচে হারের পর একটা জাতীয় দৈনিকে বেরোনো খবর নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক। বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস জানালেন এই পেস অলরাউন্ডারকে নিয়ে বিতর্ক তৈরি করা হয়েছে অকারণে, এর কোন বাস্তব ভিত্তি নেই।
Mohammad Saifuddin
ফাইল ছবি: বিসিবি

অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগের দিন হুট করেই জানা যায়, পিঠের চোটে পড়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। সেই চোটেই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাকে পায়নি বাংলাদেশ। কিন্তু ওই ম্যাচে হারের পর একটা জাতীয় দৈনিকে বেরোনো খবর নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক। বাংলাদেশের প্রধান কোচ স্টিভ রোডস জানালেন, এই পেস অলরাউন্ডারকে নিয়ে বিতর্ক তৈরি করা হয়েছে অকারণে। এর কোনো বাস্তব ভিত্তি নেই।

সাউদাম্পটন এসে রবিবারই (২৩ জুন) প্রথমবার ম্যাচ ভেন্যুতে অনুশীলনে নামে বাংলাদেশ। চোটের কারণে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে না খেলা মোসাদ্দেক হোসেন পুরোদমে অনুশীলন করলেও সাইফউদ্দিনকে দেখা যায় হালকা অনুশীলন সারতে। এই পেসারের শারীরিক অবস্থা এখন কী কিংবা তাকে নিয়ে বেরোনো খবরের পর তার মনের অবস্থাই বা কেমন?

রোডস শুরুতে দিলেন সাইফউদ্দিনের শারীরিক অবস্থার খবর। তিনি নিশ্চিত করেন যে, বানানো চোট নয়, অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে সত্যিই না খেলার মতো অবস্থায় ছিলেন এই পেসার,  ‘শারীরিক প্রসঙ্গে আসি। সে ভালো আছে। তার বিশ্রাম দরকার। পিঠ তাকে ভোগাচ্ছিল। এই কারণেই সে গত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলেনি। এটা শারীরিক ব্যাপার ছিল। সে বল করতে পারছিল না (অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের আগে)। যে বল করতে পারছে না, এমন বোলারকে তো খেলানো যায় না।’

‘খেলার মতো অবস্থায় থেকেও খেলতে রাজী হননি’, এমন খবর ছড়িয়ে পড়াতেই ভীষণ আপত্তি খুঁজে পাচ্ছেন বাংলাদেশের কোচ। শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে তাই স্পর্শকাতর বিষয়ে সংবাদ প্রকাশে আরেকবার ভাবারও অনুরোধ তার, ‘আর তার (সাইফউদ্দিনের) মানসিক অবস্থা, আমার মনে হয় এটা খুবই খুবই গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে সেটা অসত্য। যে মিটিংয়ের কথা লেখা হয়েছে, সেরকম কিছুই হয়নি। কারও বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলার আগে শতভাগ নিশ্চিত হওয়া উচিত।’

‘আমার মনে হয়, বাংলাদেশের বেশিরভাগ সাংবাদিক ও আমরা যারা স্টাফ আছি সবাই চাই বাংলাদেশ ভালো করুক। কিন্তু যখন কোনো মিথ্যা ছড়ানো হয়, তখন ওই খেলোয়াড়কে তা মানসিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে, বাংলাদেশের জন্যও এটা ভালো না। কে কী বলল সেটা ঠিক কি-না, তা নিশ্চিত হয়ে লেখা উচিত।’

Comments

The Daily Star  | English
Prime Minister Sheikh Hasina

Clamp down on illegal hoarding during Ramadan, PM tells DCs

Prime Minister Sheikh Hasina today asked field-level administration to take stern action against illegal hoarders and ensure smooth supply of essentials to consumers during the upcoming month of Ramadan

22m ago