‘এখন পর্যন্ত যেমন খেলেছি, তার চেয়ে অনেক ভালো খেলতে হবে’

আইসিসি আয়োজিত সবশেষ দুটি প্রতিযোগিতা থেকে বাংলাদেশ বিদায় নিয়েছিল ভারতের কাছে হেরে। দুটি আসরই টাইগারদের জন্য স্মরণীয় হয়ে আছে। ২০১৫ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে ও ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সেমিফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু দুবারই ভারত বাধা ডিঙিয়ে যেতে ব্যর্থ হয়েছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার দল।
mashrafe bin mortaza
ছবি: রয়টার্স

আইসিসি আয়োজিত সবশেষ দুটি প্রতিযোগিতা থেকে বাংলাদেশ বিদায় নিয়েছিল ভারতের কাছে হেরে। দুটি আসরই টাইগারদের জন্য স্মরণীয় হয়ে আছে। ২০১৫ বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালে ও ২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে সেমিফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু দুবারই ভারত বাধা ডিঙিয়ে যেতে ব্যর্থ হয়েছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। ফের আরেকটি আইসিসি আসরে এমন পরিস্থিতিতে ভারতের মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ, যখন হারলেই নিশ্চিত হয়ে যাবে বিদায়। অর্থাৎ দুদলের লড়াইটা লিগ পর্বের, কিন্তু বাংলাদেশের জন্য তা আসলে নক-আউটই।

চলমান বিশ্বকাপের আসরটা এখন পর্যন্ত ভালো কেটেছে বাংলাদেশের। সাত ম্যাচে তিনটি জয়, তিনটি হার। একটি ম্যাচ বৃষ্টিতে বাতিল। জয় এসেছে দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ আর আফগানিস্তানের বিপক্ষে। হারতে হয়েছে নিউজিল্যান্ড, ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার কাছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটিতেও জয়ের প্রত্যাশা ছিল। তাই খেলা মাঠে না গড়ানোয় বেশ আক্ষেপ কাজ করেছে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটা নিয়েও একই কথা খাটে- আক্ষেপ। তারপরও মূল কথা হলো, ৭ পয়েন্ট নিয়ে সেমিফাইনালের দৌড়ে টিকে আছে বাংলাদেশ। এই স্বপ্নটা বাঁচিয়ে রাখতে এবার ভারত বাধা পার হতেই হবে বাংলাদেশকে।

তবে কাজটা সহজ নয়। খুবই কঠিন। বিশ্বকাপে প্রথম দেখায় ২০০৭ সালে ভারতকে হারিয়েছিল বাংলাদেশ। এরপর ২০১১ ও ২০১৫ আসরে একই প্রতিপক্ষের কাছে নিতে হয়েছে বড় ব্যবধানে হারের স্বাদ। এরপর চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও একই পরিণতি। ভাগ্য বদল হয়নি গেল বছর এশিয়া কাপের ফাইনালেও। নাটকীয় ম্যাচের শেষ বলে হার নিশ্চিত হয়েছিল বাংলাদেশের। অর্থাৎ প্রতিবারই জয়ের রাস্তা খুঁজে নেয় ভারত।

টাইগার দলনেতা মাশরাফির তাই সাফ কথা, চলতি আসরটায় ভালো খেলে তারা প্রশংসা কুড়িয়েছেন ঠিকই, কিন্তু ভারতের বিপক্ষে জয় তুলে নিতে হলে আরও উজাড় করে দিতে হবে। যেমন পারফরম্যান্স উপহার দিয়েছেন এখন পর্যন্ত, সেটাকেও ছাড়িয়ে যেতে হবে।

২০০৭ বিশ্বকাপে ভারতকে হারানোর দিনে ৩৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হওয়া মাশরাফি এবারের বাঁচা-মরার লড়াইয়ের আগে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আমরা এখনও (সেমিফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে) শতভাগ টিকে আছি। বিশ্বকাপের খুব বেশি আর বাকি নেই। আমাদের সেরা খেলাটা উপহার দিতে হবে। আমরা যদি জিততে পারি, সেটা অসাধারণ হবে। কিন্তু সত্যি বলছি, দুটি দলই শক্তিশালী। এই বিশ্বকাপে ভারত খুবই শক্তিশালী দল। ম্যাচটা সহজ হবে না। আমাদের কঠিন লড়াই করতে হবে এবং সবদিকে ১০০ ভাগ দিতে হবে। ভালো বিষয় হলো, এখনও আমরা প্রতিযোগিতায় টিকে আছি। আর এখন পর্যন্ত যেমন খেলেছি, তার চেয়েও অনেক ভালো খেলতে হবে (ভারতকে হারাতে)।’

বিশ্বকাপের ৪০তম ম্যাচে বার্মিংহামের এজবাস্টনে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ও ভারত। ম্যাচ শুরু মঙ্গলবার (২ জুলাই) বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে তিনটায়।

Comments

The Daily Star  | English

No global leader raised any questions about polls: PM

The prime minister also said that Bangladesh's participation in the Munich Security Conference reflected the country's commitment to global peace

3h ago