এই বিশ্বকাপ থেকে কি কি পেল বাংলাদেশ

অনেক আশা নিয়ে খেলা বিশ্বকাপটা বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত শেষ করেছে হতাশায়। নিজেদের ইতিহাসের সেরা দল নিয়ে গিয়েও সেরা ফল আনতে না পারায় নিজেদেরকে ‘ব্যর্থ’ বলছেন ক্রিকেটাররাও। অথচ বিশ্বকাপের শুরুটা হয়েছিল আলো ঝলমলে। হতাশায় মোড়ানো বিশ্বকাপ শেষে বাংলাদেশের প্রাপ্তি আসলে কি কি। কোন কোন রেকর্ড নিয়ে গর্ব করতে পারবে বাংলাদেশ?
Bangladesh Cricket Team
ফাইল ছবি: বিসিবি

অনেক আশা নিয়ে খেলা বিশ্বকাপটা বাংলাদেশ শেষ পর্যন্ত শেষ করেছে হতাশায়। নিজেদের ইতিহাসের সেরা দল নিয়ে গিয়েও সেরা ফল আনতে না পারায় নিজেদেরকে ‘ব্যর্থ’ বলছেন ক্রিকেটাররাও। অথচ বিশ্বকাপের শুরুটা হয়েছিল আলো ঝলমলে। হতাশায় মোড়ানো বিশ্বকাপ শেষে বাংলাদেশের প্রাপ্তি আসলে কি কি? কোন কোন রেকর্ড নিয়ে গর্ব করতে পারবে বাংলাদেশ?

সাকিবের রেকর্ড, সাকিবের অবিশ্বাস্য হয়ে উঠা

না বললেও বোধহয় চলে। সাকিব আল হাসান যা করেছেন তা তো দেখেছে গোটা বিশ্বকাপ। এক বিশ্বকাপে ৬০৬ রান, ১১ উইকেট। কোনো একটি বিশ্বকাপে কমপক্ষে ১০ উইকেট আর ন্যূনতম পাঁচশোর বেশি রান করতে পারেননি দুনিয়ার আর কোনো ক্রিকেটার।

প্রথমবার অনন্য এই ডাবলসে নাম লিখে বিশ্বকাপ ইতিহাসে নিজের আলাদা একটা জায়গায় খোদাই করলেন সাকিব, তাতে থাকল বাংলাদেশের নামও।

আগের তিন বিশ্বকাপ মিলিয়ে সাকিব করেছিলেন ৫৩৯ রান, এবার ৮ ম্যাচেই ৬০৬ রান। সব মিলিয়ে বিশ্বকাপে সাকিবের রান এখন ১১৪৬। রান সংগ্রহে বিশ্বকাপ ইতিহাসের সেরা দশেও (নবম স্থানে) ঢুকে গেছেন সাকিব।

মোস্তাফিজের ২০ উইকেট, টানা দুই পাঁচ উইকেট

বিশ্বকাপের শুরুর দিকে ঠিক মনমতো বল করতে পারেননি মোস্তাফিজুর রহমান। ইংল্যান্ডের উইকেট ক্লান্ত হয়ে আসায় শেষ দিকে তার কাছ থেকে বেশি কিছু চাওয়ার ছিল। যত সময় ঘনিয়েছে, ভালোও করেছেন তিনি। প্রচুর খরুচে বল করলেও ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচে নিয়েছেন পাঁচ উইকেট। ১৯৭৫ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার গ্যারি গিলমোরের পর এতদিন বিশ্বকাপে টানা দুই ম্যাচে পাঁচ উইকেট নেওয়ার নজির ছিল না আর কারও।

সবমিলিয়ে ২০ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের হয়ে বিশ্বকাপের এক আসরে সবচেয়ে বেশি উইকেট নেওয়ার রেকর্ড হয়েছে মোস্তাফিজের। আগের রেকর্ড ছিল বাঁহাতি স্পিনার আব্দুর রাজ্জাকের (১৩ উইকেট)।

এই বিশ্বকাপে দেশের দ্রুততম বোলার হিসেবে তিনি স্পর্শ করেছেন ১০০ উইকেটের মাইলফলক। ৫৪ ম্যাচে চতুর্থ দ্রুততম বোলার হিসেবে উইকেট সংখ্যাকে মোস্তাফিজ নিতে পেরেছেন তিন অঙ্কে। উপমহাদেশীয় পেসারদের ক্যাটাগরিতে ১০০ উইকেট নেওয়ায় তিনিই দ্রুততম।

তিনশোর বেশি তাড়া করে জেতা একমাত্র দল

সেমিফাইনালের আগে লিগ পর্বের সব ম্যাচ শেষে একটা রেকর্ডে নিজেদের একেবারেই আলাদা করতে পারছে বাংলাদেশ। এই বিশ্বকাপে ভুরি ভুরি রান হলেও বাংলাদেশ ছাড়া কোনো দলই তিনশোর বেশি রান তাড়া করে জিততে পারেনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩২২ রান তাড়ায় বাংলাদেশ ৪২ ওভারেই সেরেছিল কাজ।

বিশ্বকাপে এবার বাংলাদেশ তিনশো ছাড়ানো ইনিংস খেলেছে তিনবার। এর মধ্যে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৮২ রান তাড়ায় জিততে না পারলেও ৩৩৩ রান করে ওয়ানডে ইতিহাসে নিজেদের সর্বোচ্চ ইনিংস পেয়েছে বাংলাদেশ। সেদিন এই বিশ্বকাপেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর ম্যাচে গড়া ৩৩০ রান ছাড়িয়ে যায় টাইগাররা।

Comments

The Daily Star  | English

Death came draped in smoke

Around 11:30pm, there were murmurs of one death. By then, the fire had been burning for over an hour.

9h ago