কোনো রোহিঙ্গা ফিরে যেতে রাজি নন

কক্সবাজার এবং খাগড়াছড়ির আশ্রয় শিবিরে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের মধ্যে যারা মিয়ানমারে ফিরে যেতে আগ্রহী শুধু তাদেরকেই প্রত্যাবাসন করার সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কিন্তু, কোনো রোহিঙ্গা ফিরে যেতে রাজি হয়েছেন, এমন তথ্য জানা যায়নি। জানা গেছে রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফিরে যেতে রাজি নন।
Abul Kalam
২২ আগস্ট ২০১৯, কক্সবাজারে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে কথা বলছেন রিফিউজি রিলিফ অ্যান্ড রিপেট্রিয়েশন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম। ছবি: সংগৃহীত

কক্সবাজার এবং খাগড়াছড়ির আশ্রয় শিবিরে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের মধ্যে যারা মিয়ানমারে ফিরে যেতে আগ্রহী শুধু তাদেরকেই প্রত্যাবাসন করার সব প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। কিন্তু, কোনো রোহিঙ্গা ফিরে যেতে রাজি হয়েছেন, এমন তথ্য জানা যায়নি। জানা গেছে রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফিরে যেতে রাজি নন।

মিয়ানমারের নাগরিকত্ব ও সেখানে তাদের সার্বিক নিরাপত্তাসহ চার দফা দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে যাবেন না বলেও জানিয়েছেন রোহিঙ্গারা।

আজ (২২ আগস্ট) দ্য ডেইলি স্টারের কক্সবাজার সংবাদদাতা জানান, রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার সীমান্তে নিয়ে যাওয়ার জন্যে বাস প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে। তাদের নিরাপত্তার জন্যে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও সক্রিয় রয়েছেন।

কিন্তু, রোহিঙ্গাদের মধ্যে মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার কোনো আগ্রহ দেখা যায়নি।

রিফিউজি রিলিফ অ্যান্ড রিপেট্রিয়েশন কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “আমরা বেলা সাড়ে ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত  অপেক্ষা করেছিলাম। কিন্তু, কোনো রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের জন্যে আসেননি। যারা স্বেচ্ছায় মিয়ানমারে ফিরে যেতে রাজি হবেন শুধু তাদেরকেই ফেরত পাঠানো হবে। জোর করে কাউকে পাঠানো হবে না।”

তবে রোহিঙ্গারা জানিয়েছেন, শুধুমাত্র তাদের দাবিগুলো পূরণ হলেই তারা মিয়ানমারে ফিরে যাবেন। তাছাড়া নয়।

উল্লেখ্য যে আজ ২২ আগস্ট থেকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার কথা ছিলো।

Comments

The Daily Star  | English

Broadband internet restored in selected areas

Broadband internet connections were restored on a limited scale yesterday after 5 days of complete countrywide blackout amid the violence over quota protest

8h ago