শ্রীলঙ্কাকে ইনিংস ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ ভাগাভাগি নিউজিল্যান্ডের

নিশ্চিত ড্রই যেন দেখছিল বৃষ্টিবিঘ্নিত কলম্বো টেস্ট। তবে নিউজিল্যান্ডের বোলারদের ভাবনায় ছিল ভিন্ন কিছু। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় শেষ দিনে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১২২ রানে গুটিয়ে দিয়েছে তারা। পেয়েছে ইনিংস ও ৬৫ রানের নাটকীয় জয়।
new zealand cricket team
ছবি: এএফপি

নিশ্চিত ড্রই যেন দেখছিল বৃষ্টিবিঘ্নিত কলম্বো টেস্ট। তবে নিউজিল্যান্ডের বোলারদের ভাবনায় ছিল ভিন্ন কিছু। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় শেষ দিনে স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১২২ রানে গুটিয়ে দিয়েছে তারা। পেয়েছে ইনিংস ও ৬৫ রানের নাটকীয় জয়।

সোমবার (২৬ অগাস্ট) শ্রীলঙ্কাকে গুঁড়িয়ে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ১-১ ব্যবধানে ভাগাভাগি করেছে সফরকারী কেন উইলিয়ামসনের দল।

বৃষ্টির বাগড়া ছিল কলম্বো টেস্টের শুরু থেকেই। আগের দিনও বৃষ্টির তাণ্ডবে পুরো ৯০ ওভার খেলা হয়নি। চতুর্থ দিন শেষে শ্রীলঙ্কা এক ইনিংস সম্পূর্ণ করলেও কিউইরা নিজেদের প্রথম ইনিংসেই ব্যাটিং করছিল। তাতে এই ম্যাচে ফল আসা বেশ কঠিনই ছিল। কিন্তু পঞ্চম দিনে লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় ম্যাচটা ঘিরে তৈরি হয় উত্তেজনা।

৫ উইকেটে ৩৮২ রান নিয়ে খেলতে নেমে এদিন নিউজিল্যান্ড ব্যাটিং করে মাত্র ৫ ওভার। মারমুখী ব্যাটিংয়ে ৬ উইকেটে ৪৩১ রান তুলে তারা করে ইনিংস ঘোষণা।

দিনের দ্বিতীয় বলেই আগের দিন ৮৩ রান করা কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম ফিরে যান। তবে বিজে ওয়াটলিং ঠিকই তুলে নেন সেঞ্চুরি। তিনি ২২৬ বলে ১০৫ রানে অপরাজিত থাকেন। ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ১০ বলে ২৪ রান করেন তার সঙ্গী টিম সাউদি।

১৮৭ রানে পিছিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে মাঠে নেমে মাত্র ৩২ রানে ৫ উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। এরপর নিরোশান ডিকভেলা প্রতিরোধ গড়ে ১৬১ বলে ৫১ রান করলেও বাকিরা তাকে তেমন সহায়তা করতে পারেননি। ফলে ১২২ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা।

লঙ্কানদের পক্ষে দুই অঙ্কে পৌঁছান আর মাত্র তিনজন। কুসল মেন্ডিস ২০, অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে ২১ ও সুরঙ্গা লাকমল ১৪ রান করেন। নিউজিল্যান্ডের হয়ে ট্রেন্ট বোল্ট, সাউদি, আজাজ প্যাটেল ও উইলিয়াম সোমারভিল ২টি করে উইকেট নেন।

Comments

The Daily Star  | English

Midnight chaos as BCL attacks sit-in at JU

Quota reform protesters at Jahangirnagar University held a sit-in demo in front of the VC's residence last night, protesting the BCL attack on them

45m ago