হায়েনারা যাতে ক্ষমতায় ফিরতে না পারে: প্রধানমন্ত্রী

দেশ যাতে ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অশুভ শক্তির নিয়ন্ত্রণে যেতে না পারে সেজন্য দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
PM
৩০ আগস্ট ২০১৯, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনায় বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ছবি: পিআইডি

দেশ যাতে ১৫ আগস্ট হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত অশুভ শক্তির নিয়ন্ত্রণে যেতে না পারে সেজন্য দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, “আমি দেশবাসীকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানাই, যাতে দেশ আর কখনও ১৫ আগস্টের নির্মম হত্যাকাণ্ডের নেপথ্যে থাকা হায়েনাদের হাতে না যায়।”

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আজ (৩০ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ও উত্তর আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম রহমতুল্লাহ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ডের পর বাংলাদেশের মানুষ বেঁচে থাকার, নিজেদের উন্নত করার, জীবনকে মর্যাদাবান করার ও অন্য সব সম্ভাবনার আশা হারিয়ে ফেলেছিলো।”

“আমরা দেশের মানুষের জন্য সেসব আশা ও সম্ভাবনা ফিরিয়ে এনেছি। এসব আশা ও সম্ভাবনা যাতে আবার ওই হায়েনাদের হাতে না পড়ে,” বলেন তিনি।

দেশের বিভিন্ন খাতে নানা উন্নয়নের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “সরকারকে আগামী দিনগুলোতে আরও কাজ করতে হবে।”

“আমাদের আরও কাজ করতে হবে, দেশকে আরও উন্নত করতে হবে, আমরা লক্ষ্য নির্ধারণ করেছি এবং সেগুলো পূরণ করার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নেবো”, যোগ করেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, “বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার মাধ্যমে ষড়যন্ত্রকারীরা এ দেশ ও এর স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস বিকৃত করার চেষ্টা করেছে।”

বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ১৫ আগস্টের ষড়যন্ত্রে জড়িত ছিলেন এবং খুনিদের সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে পুনর্বাসন ও ব্যবসা করা সুযোগ করে দেন বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধু ও চার জাতীয় নেতার খুনিদের পুরস্কৃত করেন। আমার প্রশ্ন হলো যে তারা যদি খুনির দল না হয় তাহলে তারা কেমন দল?”

শেখ হাসিনা বলেন, “১৫ আগস্ট পরবর্তী সরকারগুলো বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করে ১৯৭১ সালের পরাজিত শক্তিকে খুশি করতে চেয়েছে।”

তিনি বলেন, “তার সরকারের লক্ষ্য দেশকে এগিয়ে নেওয়া। আল্লাহর রহমতে আমরা তা অর্জন করেছি। এখান থেকে কেউ বাংলাদেশকে টেনে নামাতে পারবে না।”

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “জাতির পিতা না থাকলেও তার আদর্শ রয়েছে। কেউ যদি রাজনীতিতে সফল হতে চায় তাহলে তাকে অবশ্যই জাতির পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করতে হবে।”

Comments

The Daily Star  | English

Loan default now part of business model

Defaulting on loans is progressively becoming part of the business model to stay competitive, said Rehman Sobhan, chairman of the Centre for Policy Dialogue.

3h ago