শীর্ষ খবর

প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে শামীম ওসমান: আগুন নিয়ে খেলবেন না

নারায়ণগঞ্জের প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, প্রশাসনকে বলছি শুদ্ধি অভিযান চালান প্রশাসনের ভেতরে। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ মানেই আগুন নিয়ে খেলা। সুতরাং খেলবেন না, পারবেন না। জিয়া পারে নাই, খালেদা জিয়া পারে নাই, এরশাদ পারে নাই।”
নারায়ণগঞ্জ শহরের মিশনপাড়ায় সলিমুল্লাহ সড়কে ট্রাকের ওপর অস্থায়ী মঞ্চ করে সমাবেশ করেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান। ছবি: স্টার

নারায়ণগঞ্জের প্রশাসনকে উদ্দেশ্য করে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি শামীম ওসমান বলেছেন, প্রশাসনকে বলছি শুদ্ধি অভিযান চালান প্রশাসনের ভেতরে। নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ মানেই আগুন নিয়ে খেলা। সুতরাং খেলবেন না, পারবেন না। জিয়া পারে নাই, খালেদা জিয়া পারে নাই, এরশাদ পারে নাই।”

শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ শহরের মিশনপাড়ায় সলিমুল্লাহ সড়কে ‘রুখে দাঁড়াও স্বাধীনতা বিরোধী সকল অপশক্তির বিরুদ্ধে’ আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, “শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে বলেছেন তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে অন্যায় আচরণ হলে কাউকে ছাড় দিব না। আমি সেই শেখ হাসিনার কর্মী। ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসক বলেছেন স্বাধীনতা বিরোধী কেউ যাতে পুলিশে ঢুকতে না পারে। কথাটি আমার ভালো লেগেছে। কিন্তু সেখানে শুধু পুলিশ না কোন জায়গাতেই যেন প্রবেশ করতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। অতি উৎসাহী পুলিশ অফিসার ষড়যন্ত্র করছে। অনেক পুলিশ অফিসার অনেক নেতার বিরুদ্ধে নিউজ করতে সাংবাদিকদের কারো কারো টেক্সট করে।”

তবে এ সভায় জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন সহ অনেক সিনিয়র নেতারাই উপস্থিত ছিলেন না।

শামীম ওসমান বলেন, “আজকের সমাবেশের অন্য কোন সাবজেক্ট না। গত কোরবানির ঈদে মাংস বিতরণের নামে একটি এনজিও রোহিঙ্গাদের মাঝে অস্ত্র বিতরণ করেছে। আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহা নামের এক নারী গিয়ে অনেক কিছু বলে আসছে। ড. কামাল, মির্জা ফখরুলরা বিদেশিদের জন্য মিটিং করছেন। মনে রাখতে হবে এ দেশের মানুষ, বিদেশিরা, দেশের বাইরেও বাংলাদেশকে নিয়ে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। এটা যখন শুনলাম তখনই এ সভার প্রস্তুতি নিলাম। যদি শেখ হাসিনা ডাকেন ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে, স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের বিরুদ্ধে তাহলে আবারো একাত্তরের মতো মাঠে নামতে হবে। এজন্যই মিটিং ডাকা।”

তিনি বলেন, “এখন চাইলে নারায়ণগঞ্জকে অবরুদ্ধ করতে পারি। সুতরাং আমাদের সঙ্গে খেলবেন না। কাকে খেলা শেখাবেন। আমরা তো অনেক ছোট বেলার খেলোয়াড়। যাদের এসএ আরএস সিএস পর্চার আওয়ামী লীগে তাদেরকে খাস বানিয়ে দেওয়া হচ্ছে আর যারা খাস ছিল তারা আজকে আওয়ামী লীগ। এসব যখন দেখি তখন কষ্ট লাগে। খুব কষ্ট লাগে।”

আরও পড়ুন:

‘শামীম ওসমানের সমাবেশ, গাড়ি যাবে না’

 

Comments

The Daily Star  | English

Economy with deep scars limps along

Business and industrial activities resumed yesterday amid a semblance of normalcy after a spasm of violence, internet outage and a curfew left deep wounds on almost all corners of the economy.

1h ago