আবারও তীরে এসে তরী ডোবার গল্প

তীরে এসে আবারও তরী ডুবেছে বাংলাদেশের। এবারে হতাশাজনক ফল করেছে অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় ক্রিকেট দল। যুব (অনূর্ধ্ব-১৯) এশিয়া কাপের ফাইনালে বোলারদের নৈপুণ্যে ভারতকে অল্প রানে আটকে দিলেও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় থামতে হয়েছে লক্ষ্য ছোঁয়ার আগে।
bangladesh u-19 cricket
ছবি: এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল টুইটার

তীরে এসে আবারও তরী ডুবেছে বাংলাদেশের। এবারে হতাশাজনক ফল করেছে অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় ক্রিকেট দল। যুব (অনূর্ধ্ব-১৯) এশিয়া কাপের ফাইনালে বোলারদের নৈপুণ্যে ভারতকে অল্প রানে আটকে দিলেও ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় থামতে হয়েছে লক্ষ্য ছোঁয়ার আগে।

যুব এশিয়া কাপের শিরোপা ধরে রেখেছে ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল। লো স্কোরিং ফাইনালে বাংলাদেশকে তারা হারিয়েছে ৫ রানে। ফলে প্রথমবারের মতো এই প্রতিযোগিতার ফাইনালে উঠে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হলো লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের।

শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ভারতের ছুঁড়ে দেওয়া ১০৭ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ১০১ রানে শেষ হয়েছে যুবাদের ইনিংস। তখনও বাকি ছিল ইনিংসের ১৭ ওভার। নাটকীয় ফাইনাল জিতে রেকর্ড সপ্তমবারের মতো যুব এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারতীয়রা।

৭৮ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ফেলা বাংলাদেশকে লক্ষ্যের খুব কাছাকাছি নিয়ে যান তানজিম হাসান সাকিব ও রাকিবুল হাসান। নবম উইকেটে এই দুই টেলএন্ডার গড়েন ২৩ রানের জুটি। তাতে একশো পেরিয়ে যায় বাংলাদেশ।

কিন্তু ৩৩তম ওভারের তৃতীয় বলে তানজিমকে এলবিডব্লিউ করেন বাঁহাতি স্পিনার অথর্ব আনকোলেকার। আম্পায়ারের এই সিদ্ধান্তটি নিয়ে অবশ্য প্রশ্ন থাকছে। কারণ টেলিভিশন রিপ্লেতে দেখা গেছে, বল পায়ে লাগার আগে তানজিমের ব্যাটে লেগেছিল। তিনি ৩৫ বলে ১২ রান করেন।

তিন বল পর শাহিন আলম বোল্ড হলে উল্লাসে মাতে ভারতীয় যুবারা। তাকে বিদায় করে ম্যাচে নিজের পঞ্চম উইকেটের দেখা পান আনকোলেকার। ৮ ওভার বল করে তিনি খরচ করেন ২৮ রান, মেডেন নেন ২টি। রাকিবুল অপরাজিত থাকেন ৩৪ বলে ১১ রানে।

ভারতের বোলিংও হয়েছে দারুণ। পেসার আকাশ সিংয়ের তোপে ইনিংসের শুরুতে দলীয় ১৬ রানে ৪ উইকেট খোয়ায় বাংলাদেশ। এরপর পঞ্চম উইকেটে শাহাদাত হোসেনের সঙ্গে ২৪ ও সপ্তম উইকেটে মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরীর সঙ্গে ২৭ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক আকবর আলি।

তবে তিন বলের মধ্যে আকবর ও মৃত্যুঞ্জয় ফিরে গেলে বাংলাদেশের জয়ের আশা ফিকে হয়ে যায়। তারপরও লড়াই চালান তানজিম ও রাকিবুল। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। আকবর ৩৬ বলে ২৩ ও মৃত্যুঞ্জয় ২৬ বলে ২১ রান করেন।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩২.৪ ওভারে ১০৬ রানে অলআউট হয় ভারত। তাদেরকে গুটিয়ে দিতে দারুণ বোলিং করে বাংলাদেশের যুবারা। ফিল্ডিংও ছিল দুর্দান্ত। ইনিংসের শুরুতে ৮ রানের মধ্যে ভারতের ৩ উইকেট তুলে নেয় যুবারা।

চতুর্থ উইকেটে ৪৫ রান যোগ করে প্রতিরোধ গড়েন দলটির অধিনায়ক ধ্রুব জুরেল ও শাশ্বত রাওয়াত। এই জুটি ভেঙে ফের প্রতিপক্ষকে চেপে ধরে বাংলাদেশ। ভারত ৩১ রানের মধ্যে হারায় ৬ উইকেট।

আটে নামা করণ লালের কল্যাণে ভারতের সংগ্রহ পেরিয়ে যায় তিন অঙ্ক। তিনি ৪৩ বলে করেন ৩৭ রান। জুরেলের ব্যাট থেকে আসে ৫৭ বলে ৩৩ রান। রাওয়াত ১৯ রান করেন ২৫ বলে। বাকিরা কেউ দুই অঙ্কে পৌঁছাতে পারেননি।

বাংলাদেশের পক্ষে অফ-স্পিন অলরাউন্ডার শামিম হোসেন ৮ রানে ও বাঁহাতি পেসার মৃত্যুঞ্জয় ১৮ রানে ৩টি করে উইকেট দখল করেন। তানজিম ও শাহিন আলম ১টি করে উইকেট শিকার করেন। বাকিগুলো রানআউট।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

টস: ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল

ভারত অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ১০৬ (৩২.৪ ওভারে) (পার্কার ৪, আজাদ ০, ভার্মা ২, জুরেল ৩৩, রাওয়াত ১৯, লাভান্দে ০, আনকোলেকার ২, লাল ৩৭, মিশ্রা ৩, পাতিল ০, সিং ২*; তানজিম ১/২২, মৃত্যুঞ্জয় ৩/১৮, শাহিন ১/২৬, রাকিবুল ০/৩১, শামিম ৩/৮, হৃদয় ০/১)

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ১০১ (৩৩ ওভারে) (তানজিদ ০, ইমন ৫, জয় ১, হৃদয় ০, শাহাদাত ৩, আকবর ২৩, শামিম ৭, মৃত্যুঞ্জয় ২১, তানজিম ১২, রাকিবুল ১১*, শাহিন ০*; সিং ৩/১২, পাতিল ১/২৫, আনকোলেকার ৫/২৮, মিশ্র ১/২৭, লাল ০/৩)।

ফল: ভারত ৫ রানে জয়ী।

Comments

The Daily Star  | English

Boi Mela extended by 2 days

The duration of this year's Amar Ekushey Book Fair has been extended by two days

1h ago