খেলা

১৪ বছর পর ফ্রান্সেই যে তিক্ত অভিজ্ঞতা হলো রিয়ালের

স্প্যানিশ লা লিগায় চার ম্যাচ খেলে অপরাজিত ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। দুটি জয়ের সঙ্গে দুটি ড্র। তবে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পা রেখেই নতুন মৌসুমের প্রথম হার দেখতে হয়েছে লস ব্লাঙ্কোসদের। তাদেরকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)।
zinedine zidane
রিয়ালের হারে হতাশ কোচ জিনেদিন জিদান। ছবি: এএফপি

স্প্যানিশ লা লিগায় চার ম্যাচ খেলে অপরাজিত ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। দুটি জয়ের সঙ্গে দুটি ড্র। তবে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পা রেখেই নতুন মৌসুমের প্রথম হার দেখতে হয়েছে লস ব্লাঙ্কোসদের। তাদেরকে স্রেফ উড়িয়ে দিয়েছে প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)।

ইউরোপের সেরা ক্লাব আসরের গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে হারতে ভুলেই গিয়েছিল রিয়াল! সবশেষ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ২০০৫-০৬ মৌসুম তারা শুরু করেছিল হার দিয়ে। ১৪ বছর পর ফের সেই তিক্ত অভিজ্ঞতা পেয়েছে স্প্যানিশ পরাশক্তিটি। প্রতিযোগিতার ইতিহাসের সবচেয়ে সফলতম দলটি বুধবার রাতে (১৯ সেপ্টেম্বর) হেরে গেছে পিএসজির মাঠে। পার্ক দে প্রিন্সেসে অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়ার জোড়া গোল ও থমাস মুনিয়েরের লক্ষ্যভেদে ৩-০ গোলের বড় জয় পেয়েছে ফরাসি লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

কাকতালীয় ব্যাপার হলো, আগের হারটিও এসেছিল ফ্রান্সের মাটিতেই। সেবার অলিম্পিক লিঁওর কাছে ধরাশায়ী হয়েছিল রিয়াল। ম্যাচের স্কোরলাইনও ছিল একই। লিঁওর হয়ে লক্ষ্যভেদ করেছিলেন জন ক্যারেও, জুনিনহো ও সিলভিয়ান উইলট্রোড।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়ালের ১৩ শিরোপার সবশেষটি এসেছিল ২০১৭-১৮ মৌসুমে। গেলবার অবশ্য তাদের থামতে হয় শেষ ষোলোতেই। নেদারল্যান্ডসের ক্লাব আয়াক্স আমস্টারডামের সঙ্গে লড়াইয়ে পেরে না উঠে ছিটকে গিয়েছিল তারা। তাই এবার শিরোপা পুনরুদ্ধারের অভিযান রিয়ালের। কিন্তু তাদেরকে যাত্রা শুরু করতে হলো পরাজয় দিয়ে। এমন ফল নিশ্চয়ই স্বস্তি দিচ্ছে না দলটির কোচ জিনেদিন জিদানকে। তাছাড়া চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসও বলছে, হার দিয়ে আসর শুরুর পর মাত্র দুবার (৬৪ আসরের মধ্যে) শিরোপা জেতার ঘটনা ঘটেছে।

পিএসজির বিপক্ষে কার্ড সমস্যার কারণে ছিলেন না রিয়াল দলনেতা সার্জিও রামোস। তাকে ছাড়া দলটির রক্ষণভাগ হয়ে পড়ে অরক্ষিত-ভঙ্গুর। পরিসংখ্যানই তার প্রমাণ দিচ্ছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রিয়ালের সবশেষ পাঁচ হারের কোনোটিতেই মাঠে ছিলেন না এই ডিফেন্ডার, হয় চোটের কারণে অথবা নিষেধাজ্ঞার কারণে।

তবে সুসংবাদ হলো দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের পরের ম্যাচে রিয়াল দলে পাচ্ছে স্প্যানিশ তারকা রামোসকে। আগামী ১ অক্টোবর ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে তারা মুখোমুখি হবে ক্লাব ব্রুগের।

বেলজিয়ামের দলটির বিপক্ষে জয় দিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যাশা থাকবে জিদানের, বলা বাহুল্য। তার আগে পিএসজির বিপক্ষে তাদের যেসব ভুল-ত্রুটি ছিল, সেগুলো পুষিয়ে নেওয়ার প্রচেষ্টাও থাকবে। রিয়ালকে টানা তিনটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতানো সাবেক এই ফুটবলার চিহ্নিতও করেছেন শিষ্যদের দুর্বলতা, ‘সব বিভাগে তারা আমাদের চেয়ে অনেক ভালো ছিল–যেভাবে তারা খেলেছে, বিশেষ করে মাঝমাঠে। আমাকে যা সবচেয়ে বেশি হতাশ করেছে তা হলো দৃঢ়তার অভাব।’

তিনি যোগ করেছেন, ‘যদি আপনি ভালো শুরু না করেন তবে এটা কঠিন। তারা (পিএসজি) ভালোভাবে সুযোগ তৈরি করে দেখিয়েছে। এটা আমাকে খুব বেশি ভাবাচ্ছে না। আমাকে যেটা ভাবাচ্ছে তা হলো প্রতিযোগিতার এই সর্বোচ্চ পর্যায়ে এসে খেলোয়াড়দের দৃঢ়তার ঘাটতি।’

Comments

The Daily Star  | English

No respite for Gazans ahead of Eid day

Tensions soar as Hezbollah launch rockets, drones at Israel; US targets Houthi assets

2h ago