খেলা

এক বছর বোলিং থেকে নিষিদ্ধ দনঞ্জয়া

অ্যাকশন অবৈধ হওয়ায় এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করা থেকে নিষিদ্ধ হয়েছেন শ্রীলঙ্কার স্পিনার আকিলা দনাঞ্জয়া। কারণ দুই বছর সময়সীমার মধ্যে কোনো ক্রিকেটার দুবার ত্রুটিপূর্ণ বোলিং অ্যাকশনের কারণে নিষিদ্ধ হলে তিনি আইসিসির নিয়ম অনুসারে সাধারণভাবেই এই নিষেধাজ্ঞা পেয়ে থাকেন।
akila dananjaya
আকিলা দনঞ্জয়া। ছবি: এএফপি

অ্যাকশন অবৈধ হওয়ায় এক বছরের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করা থেকে নিষিদ্ধ হয়েছেন শ্রীলঙ্কার স্পিনার আকিলা দনাঞ্জয়া। কারণ দুই বছর সময়সীমার মধ্যে কোনো ক্রিকেটার দুবার ত্রুটিপূর্ণ বোলিং অ্যাকশনের কারণে নিষিদ্ধ হলে তিনি আইসিসির নিয়ম অনুসারে সাধারণভাবেই এই নিষেধাজ্ঞা পেয়ে থাকেন।

গেল দশ মাসের মধ্যে দুবার দনাঞ্জয়ার বোলিং অ্যাকশন অবৈধ প্রমাণিত হয়েছে। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে প্রথমবার নিষেধাজ্ঞা পেয়েছিলেন এই ডানহাতি স্পিনার। এরপর তিনি অ্যাকশন সংশোধন করতে সক্ষম হন এবং চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ফের বোলিং করার ছাড়পত্র পান। কিন্তু গেল অগাস্টে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে গল টেস্টে তার অ্যাকশন সন্দেহজনক বলে উল্লেখ করেন সে ম্যাচে দায়িত্ব পালন করা অফিসিয়ালরা।

এরপর গেল ২৯ অগাস্ট চেন্নাইয়ে আইসিসি অনুমোদিত ল্যাবে পরীক্ষা দেন দনাঞ্জয়া। সেখানে ২৫ বছর বয়সী এই ঘূর্ণি বোলারের অ্যাকশন অবৈধ হিসেবে ধরা পড়ে। যার প্রেক্ষিতে শাস্তি পেতে হয়েছে তাকে।

আইসিসির নিয়ম মতে, ত্রুটিপূর্ণ অ্যাকশন শুধরে নিলেও আগামী এক বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করতে পারবেন না দনঞ্জয়া। নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হলেই কেবল ফের পরীক্ষা দিতে পারবেন তিনি। তবে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের সম্মতি সাপেক্ষে দেশটির ঘরোয়া পর্যায়ে বোলিং চালিয়ে যেতে পারবেন এই অফ স্পিনার।

প্রথম নিষেধাজ্ঞা থেকে ফিরে দারুণ পারফর্ম করছিলেন দনঞ্জয়া। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের স্কোয়াডে জায়গা না পেলেও পরবর্তীতে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠের ঝলক দেখিয়েছিলেন। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৮০ রানে নিয়েছিলেন ৫ উইকেট। এরপর তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লঙ্কানদের পক্ষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৭ উইকেট দখল করেছিলেন তিনি।

দনঞ্জয়ার এক বছরের নিষেধাজ্ঞা শ্রীলঙ্কার জন্য বড় একটি ধাক্কাই বটে। দলটি তাদের আগামী পাঁচটি টেস্টই খেলবে এশিয়ায়। ফলে দনঞ্জয়ার অনুপস্থিতি বেশ ভোগাতে পারে তাদের।

Comments

The Daily Star  | English
 remittance inflow

$12.9b in remittances received in last 6 months: minister

Finance Minister Abul Hasan Mahmud Ali today told the parliament from July to July to January of the current financial year (2023-24), the country received some $12.9 billion ($12, 900.63 million) in remittances

31m ago