রশিদের ফাইনালে নামা নিয়ে সংশয়

বাংলাদেশের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফাইনালে আফগানিস্তানের দলনেতা রশিদ খান খেলবেন কি না তা নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়া এই তারকা লেগ স্পিনারের মাঠে নামা নিয়ে সন্দিহান খোদ দলটির ম্যানেজার নাজিম জার আবদুর রহিম জাই।
rashid khan
রশিদ খান। ছবি: ফিরোজ আহমেদ

বাংলাদেশের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজের ফাইনালে আফগানিস্তানের দলনেতা রশিদ খান খেলবেন কি না তা নিয়ে তৈরি হয়েছে সংশয়। হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পাওয়া এই তারকা লেগ স্পিনারের মাঠে নামা নিয়ে সন্দিহান খোদ দলটির ম্যানেজার নাজিম জার আবদুর রহিম জাই।

আগামী মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) মিরপুরের শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে শিরোপার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। ম্যাচ শুরু সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়। প্রাথমিক পর্বের প্রথম দেখায় আফগানদের কাছে হারলেও পরেরবার অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের দৃঢ়তায় জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। ফলে আফগানিস্তানের কাছে টানা চার ম্যাচ হারের পর জয়ের স্বাদ নিয়েছে টাইগাররা।

আগের দিন চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশের কাছে ৪ উইকেটে হারের ম্যাচে ফিল্ডিংয়ের সময় হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট পান রশিদ। এক পর্যায়ে মাঠ ছাড়েন খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে। এরপর দলের প্রয়োজনে ফের মাঠে নামেন তিনি। অস্বস্তি নিয়ে বল করেও তুলে নেন ২টি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। জমে ওঠে ম্যাচ। তবে সাকিবের নৈপুণ্যের কাছে শেষ পর্যন্ত হার মানতে হয় তাকে।

প্রাথমিক পর্বের শেষ ম্যাচে রশিদ চোট নিয়ে খেললেও ফাইনালে তিনি থাকবেন কি না তা এখনই নিশ্চিত করতে পারছেন না টিম ম্যানেজার জাই। দলীয় অধিনায়কের শারীরিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে তারপরই সিদ্ধান্ত নেবেন তারা। সাংবাদিকদের কাছে জাই বলেছেন, ‘আমি বলতে পারছি না ফাইনালে তাকে (রশিদ) পাওয়া যাবে কি না। সে উন্নতি করছে। দেখা যাক কী হয়। আমরা (ফাইনালের আগে) দুই-তিনদিন সময় পাব তার সেরে ওঠার জন্য। আমি আশা করছি, এটা গুরুতর কিছু না কারণ সে আমাদের দলনেতা এবং সেরা খেলোয়াড়। আমরা আগামীকাল এবং পরের দিনও পর্যবেক্ষণ করব (চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে)।’

Comments

The Daily Star  | English
62% young women not in employment, education

62% young women not in employment, education

Three out of five young women in Bangladesh were considered NEETs (not in employment, education, or training) in 2022, a waste of the workforce in a country looking to thrive riding on the demographic dividend, official figures showed.

8h ago