পিকের হুঁশিয়ারিতে টনক নড়ল বার্সা বোর্ডের

বার্সালোনার খেলোয়াড় এবং বোর্ড কর্তাদের মধ্যকার সম্পর্কটা বর্তমানে মধুর নয়, বরং বেশ তেতো। গেতাফের বিপক্ষে সবশেষ ম্যাচে দলটির জয়ের পর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জেরার্দ পিকে যে ঝাঁঝালো বক্তব্য দিয়েছিলেন, তাতেই স্পষ্ট হয়ে ওঠে অন্তঃকলহের বিষয়টি। অধিনায়কদের একজন হিসেবে এই ডিফেন্ডার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন বার্সেলোনা বোর্ডের প্রতি। তার বক্তব্যকে ভীষণ গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করেছেন ক্লাবটির সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউ।
bartomeu and pique
বার্তোমেউ ও পিকে (ডানে)। ছবি: এএফপি

বার্সালোনার খেলোয়াড় এবং বোর্ড কর্তাদের মধ্যকার সম্পর্কটা বর্তমানে মধুর নয়, বরং বেশ তেতো। গেতাফের বিপক্ষে সবশেষ ম্যাচে দলটির জয়ের পর গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জেরার্দ পিকে যে ঝাঁঝালো বক্তব্য দিয়েছিলেন, তাতেই স্পষ্ট হয়ে ওঠে অন্তঃকলহের বিষয়টি। অধিনায়কদের একজন হিসেবে এই ডিফেন্ডার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন বার্সেলোনা বোর্ডের প্রতি। তার বক্তব্যকে ভীষণ গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করেছেন ক্লাবটির সভাপতি হোসে মারিয়া বার্তোমেউ। জনপ্রিয় স্প্যানিশ ক্রীড়া বিষয়ক দৈনিক মার্কা জানিয়েছে, সংকট সমাধানে চলতি সপ্তাহেই পিকের সঙ্গে আলোচনায় বসবেন তিনি।

কদিন আগেই বার্সা বোর্ডের আশীর্বাদপুষ্ট কাতালান পত্রিকা মুন্দো দেপোর্তিভোতে একটি প্রতিবেদন ছাপা হয়। কলামটির লেখক জাভি বস্ক সেখানে খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ উপস্থাপন করেন। তিনি দাবি করেন, চলতি মৌসুমে ক্লাবটির দুরবস্থার জন্য ফুটবলাররা দায়ী। মাঠের ফল বিচার করলে এই অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়ার উপায় নেই। তাছাড়া তারকা খেলোয়াড়দের সমন্বয়ে বার্সার ড্রেসিং রুম কতটা শক্তিশালী, সেটা কারও অজানা নয়। তবে প্রতিবেদনে আরও কিছু বিতর্কিত বিষয়ের দোষ চাপানো হয়েছে পিকেদের ওপর। যেমন জাভি লিখেছেন, দলের সঙ্গে সাংবাদিকদের ভ্রমণের রীতি খেলোয়াড়রা বন্ধ করে দিয়েছেন। সাবেক কোচ তিতো ভিলানোভার সময়ে কার বদলি হিসেবে কে মাঠে নামবেন, তা খেলোয়াড়রাই নির্বাচন করতেন। সাবেক একাডেমি প্রধান পেপ সেগুরাকেও না-কি তারাই বরখাস্ত করিয়েছেন। এমনকি নেইমারকে দলে টানার জন্য ওসমান দেম্বেলেকে ইচ্ছাকৃতভাবে তিরস্কার করার অভিযোগও করা হয়েছে খেলোয়াড়দের বিরুদ্ধে।

এই প্রতিবেদন ছাপা হওয়ার পর বেজায় ক্ষিপ্ত হয়েছেন বার্সা ফুটবলাররা। ড্রেসিং রুমে বিরাজ করছে চাপা উত্তেজনা। গেল শনিবার গেতাফের বিপক্ষে ম্যাচ শেষে পিকে দাবি করেন, বার্সা বোর্ডের মদদেই অভিযোগগুলো করা হয়েছে। আর এর ফল ভালো হবে না বলেও হুমকি দেন তিনি। বার্সা স্কোয়াডের পক্ষ থেকে অভিজ্ঞ তারকা সেদিন বলেছিলেন, ‘আমরা রেগে যেতে চাই না। যখন দুই পক্ষ রাগতে চায় না, তখন ঝগড়াও হয় না। আমরা এই ক্লাবকে জানি। আমরা জানি এই পত্রিকাগুলো কারা (ক্লাবের সঙ্গে যাদের যোগাযোগ রয়েছে) এবং যদিও কারও নাম লেখা নেই, তবুও আমরা জানি এসব প্রতিবেদন আসলে কারা লিখে। আমরা রাগ করতে চাই না। আমাদের লক্ষ্য হলো মাঠে পারফর্ম করা এবং শিরোপা জেতা। আশা করি যেসব বিষয়ের কোনো অস্তিত্ব নেই, সেসব নিয়ে কেউ যেন ঝামেলা বাঁধাতে প্ররোচিত না করে।’

বোঝাই যাচ্ছে, বোর্ডের সঙ্গে এরই মধ্যে খেলোয়াড়দের বেশ দূরত্ব তৈরি হয়ে গেছে। তবে পিকের চাঁছাছোলা কথার পর টনক নড়েছে বার্সা কর্তাদের। মার্কা জানিয়েছে, বোর্ড প্রধান বার্তোমেউ এই পরিস্থিতির দ্রুতই সমাধান চান। দুই পক্ষ আলোচনায় বসে নিজেদের মধ্যকার যোগাযোগের ফাঁক-ফোকরগুলো দূর করতে চান তিনি। তাই পিকেদের সঙ্গে আলোচনায় বসে চলতি সপ্তাহেই সংকট নিরসনের চেষ্টা করবেন বার্তোমেউ।

Comments

The Daily Star  | English

Inadequate Fire Safety Measures: 3 out of 4 city markets risky

Three in four markets and shopping arcades in Dhaka city lack proper fire safety measures, according to a Fire Service and Civil Defence inspection report.

6h ago