পারস্য উপসাগরের বাইরে তেল নিতে পাইপলাইন তৈরি করছে ইরান

মধ্যপ্রাচ্যে চলমান উত্তেজনার মুখে পারস্য উপসাগরের বাইরে তেল নিয়ে যেতে ইরান পাইপলাইন তৈরি করেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির তেলমন্ত্রী।
ইরানের জাসক বন্দরের দৃশ্য। ছবি: সংগৃহীত

মধ্যপ্রাচ্যে চলমান উত্তেজনার মুখে পারস্য উপসাগরের বাইরে তেল নিয়ে যেতে ইরান পাইপলাইন তৈরি করেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির তেলমন্ত্রী।

তেল মন্ত্রণালয়ের টুইটার অ্যাকাউন্টে তেলমন্ত্রী বিজান যানগেনেহ বলেন, “প্রকল্পটি এই অঞ্চলের চেহারা পাল্টে দিতে পারে। এই প্রকল্পের অধীনে জাসক বন্দরে তেল মজুদ রাখার ব্যবস্থা থাকবে। রপ্তানির জন্যে আলাদা জেটিসহ বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাও তৈরি করা হবে।”

সেখানে দুটি তেল পরিশোষণাগার এবং পেট্রোকেমিক্যাল পণ্য তৈরি ও রপ্তানির ব্যবস্থা রাখা হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তেল মন্ত্রণালয়ের টুইটে বলা হয়, “তেলমন্ত্রী বিজান যানগেনেহ বলেছেন, ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার প্রকল্পের মাধ্যমে ইরান গোরেশ থেকে জাশক বন্দর পর্যন্ত তেলের পাইপলাইন তৈরি করেছে। এর মধ্যে ৭০০ মিলিয়ন ডলার বন্দরের উন্নয়নে খরচ করা হবে।”

গতকাল (১ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ইরান ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন ডলার খরচ করে হরমুজ প্রণালীর বাইরে ওমান উপসাগরীয় এলাকায় ইরানি বন্দর জাসক পর্যন্ত পাইপলাইন তৈরি করার কথা জানিয়েছে।

২০১২ সাল থেকেই ইরান এই পাইপলাইন তৈরির চেষ্টা করছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। পারস্য উপসাগর তথা হরমুজ প্রণালীতে বিশ্ব ও আঞ্চলিক শক্তিগুলোর সঙ্গে ইরানের দীর্ঘদিনের সংঘাতময় পরিস্থিতির কারণে ইসলামী বিপ্লবের দেশটি এমন প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানায়, গত মে মাসে ইরানের ওপর নতুন করে যুক্তরাষ্ট্রের অবরোধের কারণে ইরানের তেল রপ্তানি গত জুনে প্রতিদিন তিন লাখ ব্যারেলে এসে ঠেকে। ২০১৮ সালের এপ্রিলে তা ছিলো ২৫ লাখ ব্যারেলের বেশি।

Comments

The Daily Star  | English
62% young women not in employment, education

62% young women not in employment, education

Three out of five young women in Bangladesh were considered NEETs (not in employment, education, or training) in 2022, a waste of the workforce in a country looking to thrive riding on the demographic dividend, official figures showed.

9h ago