খেলা

ভারতের বিশাল রানের বোঝার পর বিপর্যয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা

দুই ওপেনার রোহিত শর্মা আর মায়াঙ্ক আগারওয়াল গড়লেন রেকর্ড জুটি। আগারওয়াল থামলেন একেবারে ডাবল সেঞ্চুরির পর। বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার পরও বিশাল পূজি নিয়ে ইনিংস ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিপর্যয়ে ফেলে দিয়েছে ভারত।

দুই ওপেনার রোহিত শর্মা আর মায়াঙ্ক আগারওয়াল গড়লেন রেকর্ড জুটি। আগারওয়াল থামলেন একেবারে ডাবল সেঞ্চুরির পর। বাকি ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার পরও বিশাল পূজি নিয়ে ইনিংস ছেড়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিপর্যয়ে ফেলে দিয়েছে ভারত।

বৃহস্পতিবার বিশাখাপত্তম টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ পুরোটাই বিরাট কোহলিদের। ভারতের করা ৭ উইকেটে ৫০২ রানের জবাবে শেষ বিকেলে ৩৯ রানেই ৩ উইকেট খুইয়ে কোনমতে দিন শেষ করেছে প্রোটিয়ারা। হাতে ৭ উইকেট নিয়ে ৪৬৩ রানে পিছিয়ে ফলোঅনের শঙ্কায় আছে তারা।

আগের দিন আগেভাগে খেলা শেষ হওয়ার পর দ্বিতীয় দিন দুর্বার শুরু করেন রোহিত-আগারওয়াল। এদিনও তাদের যেন টলানোই যাচ্ছিল না। শুরু থেকেই দক্ষিণ আফ্রিকান বোলারদের উপর চড়া হয়ে খেলতে শুরু করেন রোহিত। আগ্রাসী ব্যাট করে দলের রান বাড়াচ্ছিলেন তরতর করে। ওপেনিং জুটিতেই দুজনে তুলে ফেলেন তিনশো রান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যেকোনো উইকেট জুটিতে রেকর্ড জুটির পর তবেই ফেরেন রোহিত।

ডাবল সেঞ্চুরির আশা জাগানো রোহিত ২৩ চার, ৬ ছক্কায় ১৭৬ রান করে কেশব মহারাজের বলে স্টাম্পিং হয়ে ফেরত যান। রোহিত না পারলেও আগারওয়াল নিজের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরিকে নিয়ে যান ডাবল সেঞ্চুরিতে। ২১৫ রান করা আগারওয়ালকে আউট করেন অনিয়মিত বোলার ডিন এলগার।

এই দুজনের পর খানিকটা ধস নামের ভারতের ইনিংসে। চেতশ্বর পূজারা, কোহলি, আজাঙ্কা রাহানে ফেরেন দ্রুতই। দ্রুত রান বাড়াতে গিয়ে কাটা পড়েন ঋদ্ধিমান সাহাও। তবে দলের চাহিদা মিটিয়ে পাঁচশো পার করে দেন রবীন্দ্র জাদেজা। এরপর বেশি দেরি না করে ইনিংস ঘোষণা করে শেষ বিকেলে স্পিনারদের দিয়ে প্রোটিয়াদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়েন কোহলি।

এইডেন মার্কারাম, ডি ব্রুন শুরুতেই ছেঁটে ফেলেন টেস্টে ফেরা অফস্পিনার রবীচন্দ্র অশ্বীন। নাইটওয়াচম্যান ডেন পেইটডকে তুলে নেন জাদেজা। টেম্বা বাভুমাকে নিয়ে তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করবেন ২১ রানে অপরাজিত ওপেনার এলগার।

Comments

The Daily Star  | English
Deposits of Bangladeshi banks, nationals in Swiss banks hit lowest level ever in 2023

Deposits of Bangladeshi banks, nationals in Swiss banks hit lowest level ever

It declined 68% year-on-year to 17.71 million Swiss francs in 2023

7h ago