জেদ্দার কাছে ইরানি তেল ট্যাংকারে ‘ক্ষেপণাস্ত্র’ হামলা

সৌদি বন্দর জেদ্দার কাছে একটি ইরানি মালিকানাধীন তেলবাহী ট্যাংকারে ‘ক্ষেপণাস্ত্র’ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে জাহাজ চলাচল পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা রিফাইনটিভ।
১১ অক্টোবর ২০১৯, ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে তেলবাহী ট্যাংকারে ‘ক্ষেপণাস্ত্র’ হামলার দৃশ্য। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

সৌদি বন্দর জেদ্দার কাছে একটি ইরানি মালিকানাধীন তেলবাহী ট্যাংকারে ‘ক্ষেপণাস্ত্র’ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছে জাহাজ চলাচল পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা রিফাইনটিভ।

হামলার ফলে ট্যাংকারটিতে প্রচণ্ড বিস্ফোরণ হয় এবং এতে আগুন লেগে যায়।

আজ (১১ অক্টোবর) সংস্থাটির বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ সংবাদ জানায়।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, জাহাজ চলাচল পর্যবেক্ষণকারী সংস্থার সর্বশেষ তথ্যে জানা যায় ‘সাবিতি’ নামের ট্যাংকারটি ‘ইঞ্জিন’ ব্যবহার করে এর গন্তব্য ইরানের লারাক বন্দরের দিকে যাচ্ছে।

ইরানের স্টুডেন্টস নিউজ এজেন্সি (আইএসএনএ) জানায়, লোহিত সাগরে সৌদি বন্দর জেদ্দার কাছে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ট্যাংকারটিকে আঘাত করে। ইরান সরকার বলেছে, হামলার পর ট্যাংকারটি এর গতিপথ পরিবর্তন করছে।

দেশটির জাতীয় তেল ট্যাংকার কোম্পানির একজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে ইরানি বার্তা সংস্থাটিকে বলেন, “ট্যাংকারটি এখনো লোহিত সাগরে রয়েছে। তবে এর গতিপথ পরিবর্তন করা হচ্ছে।”

“কোনো দেশই ট্যাংকারটিকে সহযোগিতা করতে এগিয়ে আসেনি” বলেও মন্তব্য করেন সেই কর্মকর্তা।

বিশেষজ্ঞরা একে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ হিসেবে অভিহিত করছেন উল্লেখ করে রয়টার্সের প্রতিবেদনে আরো বলা হয়, জেদ্দা থেকে ৬০ কিলোমিটার দূরে ইরানের জাতীয় তেল কোম্পানির একটি তেল ট্যাংকারে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এর ফলে ট্যাংকারটি বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ট্যাংকার থেকে তেল লোহিত সাগরে নিঃসৃত হচ্ছে।

Comments

The Daily Star  | English
Matiur Rahman, president of the National Board of Revenue's (NBR) Customs, Excise and VAT Appellate Tribunal

Matiur Rahman removed from NBR post after controversy

The government issued a circular today directing his immediate transfer

1h ago