সাকিবের ভারতে সফরে যাওয়া, না যাওয়া নিয়ে নাটকীয়তা

টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান কি ভারত সফরে যাচ্ছেন? নাকি কোনো কারণে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছেন? নাকি অন্য কোনো পরিস্থিতি তাকে দূরে সরিয়ে রাখছে? হুট করে এমন সব প্রশ্ন এখন বাংলাদেশের ক্রিকেটে সবচেয়ে বড় হয়ে উঠেছে। বিসিবির প্রধান নাজমুল হাসান নিজেই সাকিবের যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তার কথা জানিয়েছিলেন। সোমবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মাঠে এসেও বোর্ড প্রধান সেই অনিশ্চয়তা দূর করতে পারেননি। উল্টো তা আরও জট পাকিয়েছে বলেই খবর।
Shakib Al Hasan
সাকিব আল হাসান। ছবি: ফিরোজ আহমেদ

টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান কি ভারত সফরে যাচ্ছেন? নাকি কোনো কারণে নিজেকে সরিয়ে নিচ্ছেন? নাকি অন্য কোনো পরিস্থিতি তাকে দূরে সরিয়ে রাখছে? হুট করে এমন সব প্রশ্ন এখন বাংলাদেশের ক্রিকেটে সবচেয়ে বড় হয়ে উঠেছে। বিসিবির প্রধান নাজমুল হাসান নিজেই সাকিবের যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তার কথা জানিয়েছিলেন। সোমবার (২৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মাঠে এসেও বোর্ড প্রধান সেই অনিশ্চয়তা দূর করতে পারেননি। উল্টো তা আরও জট পাকিয়েছে বলেই খবর।

সাকিব থাকছেন কিনা সেই নিশ্চয়তা না মেলায় তৈরি করে রাখা টেস্ট দল শেষ মুহূর্তে ঘোষণা করতে পারেননি নির্বাচকরা। ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান আকরাম খান গণমাধ্যমের কাছে জানিয়েছেন, পরিবর্তিত টি-টোয়েন্টি দল দেওয়া হবে আগামীকাল মঙ্গলবার দুপুরে। কিন্তু টেস্ট দল ঘোষণা পিছিয়ে যাচ্ছে আরও, ‘টি-টোয়েন্টি দল (পরিবর্তিত) আগামীকাল ১২টা-১টার দিকে আমরা দিয়ে দেব। টেস্টটা কিছুদিন সময় লাগবে আমাদের। দুই-তিন দিন সময় লাগতে পারে। আমাদের কিছু কথাবার্তা বাকি আছে। সেটা হয়ে গেলে দিয়ে দেব।’

অথচ আকরামের কথা বলার ঘন্টাখানেক আগেও প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন জানিয়েছিলেন, রাতেই সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে দিয়ে দেওয়া হবে টেস্ট দল।

আগে ঘোষিত টি-টোয়েন্টি দল থেকে চোটের কারণে বাদ পড়েছেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, পারিবারিক কারণে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন তামিম ইকবাল। এই দুজনের বদলি এখনও নেওয়া হয়নি। এর মধ্যে সাকিবের যাওয়া, না যাওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা।

জানা গেছে, মূলত সাকিবকে নিয়ে অনিশ্চয়তার কোনো সুরাহা না হওয়ায় পিছিয়ে গেছে দল ঘোষণা। এতে সরে গেছে ভারত সফরের প্রস্তুতির ফোকাসও। আকরাম জানিয়েছেন, সাকিব যাচ্ছেন কিনা তাও নিশ্চিত হওয়া যাবে আগামীকাল।

২৫ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া ভারত সফরের ক্যাম্পের প্রথম দিন অনুপস্থিত ছিলেন সাকিব। কেন তিনি নেই, সেই কারণ খোদ নির্বাচকরাও জানাতে পারছিলেন না, জানতেন না টিম ম্যানেজারও। পরে জানা যায়, অসুস্থতায় কোচের কাছ থেকে ছুটি নিয়েছেন তিনি। দ্বিতীয় দিনের অনুশীলনে এলেও অর্ধেক থেকে চলে যান। তৃতীয় দিন থেকেই আবার নেই সাকিবের দেখা। রবি ও সোমবার দুদিনই নিজেরা ভাগাভাগি হয়ে দুটো প্রস্তুতি ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ দল। তাতে ছিলেন না সাকিব।

দলের অপারেশন্স ম্যানেজার আকরামের সঙ্গে সাকিবের কথা হয়নি। আকরাম জানাতে পারেননি ম্যানেজারের সঙ্গে সাকিবের কথা হয়েছে কিনা। কেবল কোচের কাছ থেকেই সাকিবের ছুটি নেওয়ার কথা জেনেছেন তিনি, ‘আপনাদের (গণমাধ্যম) থেকেই শুনেছি যে যাবে কিনা ইত্যাদি ইত্যাদি। তো ও কোচের কাছ থেকে দুদিনের ছুটি নিয়েছে। তাই অনুশীলনে নেই। ও খেলছে কিনা কালকে (মঙ্গলবার) আমরা বিস্তারিত জানিয়ে দেব।’

ধর্মঘটে যাওয়া ক্রিকেটারদের হয়ে দাবিপূরণের আশ্বাস পেয়ে সাকিব নিজেই খেলায় ফেরার ঘোষণা দিয়েছিলেন। কিন্তু একটি বেসরকারি টেলিকম কোম্পানির সঙ্গে তার বেআইনি চুক্তির খবরে বিসিবি সভাপতির প্রতিক্রিয়ার পরই ঘটনার মোড় নেয় অন্য দিকে। চুক্তির নিয়ম ভঙ্গ করায় সাকিবের কাছে চিঠিও দিয়েছিল বোর্ড। এরপর থেকেই জাতীয় দলের অনুশীলনে সেভাবে সম্পৃক্ত থাকছেন না সাকিব।

শেষ পর্যন্ত সাকিব ভারতে না গেলে দল বাছাই ও সমন্বয় নিয়ে বেশ বিপাকে পড়ার শঙ্কার কথা এরই মধ্যে দ্য ডেইলি স্টারের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন বোর্ড প্রধান নাজমুল।

Comments

The Daily Star  | English

Lifts at public hospitals: Where Horror Abounds

Shipon Mia (not his real name) fears for his life throughout the hours he works as a liftman at a building of Sir Salimullah Medical College, commonly known as Mitford hospital, in the capital.

6h ago