খেলা

কস্তার শেষ মুহূর্তের গোলে জুভেন্টাসের স্বস্তির জয়

শক্তি, সামর্থ্য ও ঐতিহ্য সবকিছুতেই এগিয়ে জুভেন্টাস। তবে ঘরের মাঠে তাদের বিপক্ষে দারুণ প্রতিরোধ গড়েছিল লোকমোটিভ মস্কো। সমান তালে লড়াই করে ড্রয়ের পথেই এগিয়ে যাচ্ছিল তারা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ব্রাজিলিয়ান তারকা ডগলাস কস্তার জাদুকরী এক গোলে হার মানতে হয় তাদের।
ছবি: এএফপি

শক্তি, সামর্থ্য ও ঐতিহ্য সবকিছুতেই এগিয়ে জুভেন্টাস। তবে ঘরের মাঠে তাদের বিপক্ষে দারুণ প্রতিরোধ গড়েছিল লোকমোটিভ মস্কো। সমান তালে লড়াই করে ড্রয়ের পথেই এগিয়ে যাচ্ছিল তারা। কিন্তু শেষ মুহূর্তে ব্রাজিলিয়ান তারকা ডগলাস কস্তার জাদুকরী এক গোলে হার মানতে হয় তাদের।

মস্কোর আরজেডডি অ্যারেনায় এদিন লোকমোটিভ মস্কোকে ২-১ গোলে হারিয়েছে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। নিজেদের মাঠেও পিছিয়ে থেকে পাওলো দিবালার শেষ দিকের জোড়া গোলে ২-১ ব্যবধানে জিতেছিল দলটি।

এদিন ম্যাচের তৃতীয় মিনিটেই গোলরক্ষক গুইলহিরমের ভুলে গোল খেয়ে বসে মস্কো। বাঁ প্রান্ত থেকে প্রায় ৪০ গজ দূর থেকে নেওয়া রোনালদোর ফ্রি-কিক গোলরক্ষক বরাবরই এসেছিল। বল লুফেও নিয়েছিলেন গুইলহিরমে। কিন্তু অবিশ্বাস্যভাবে হাত গলে দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে বল ছুটে যায়। শেষ মুহূর্তে লাইনে গিয়ে শট নিয়ে গোল নিশ্চিত করেন অ্যারন রামসি। অন্যথায় গোলটি রোনালদোর নামের পাশে থাকতে পারতো।

দ্বাদশ মিনিটে গোল পরিশোধ করে মস্কো। মাসিয়েস রিবুসের ক্রস থেকে আলেক্সি মিরানচুকের দারুণ হেড বারপোস্টে লেগে ফিরে আসে। আলগা বলে আলতো টোকায় লক্ষ্যভেদ করেন এ রাশিয়ান। ২১তম মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার দারুণ সুযোগ মিস করে মস্কো। রিবুসের ক্রস থেকে মিরানচুকের হেড বারপোস্ট ঘেঁষে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। 

৩৩তম মিনিটে সামি খেদিরার বাড়ানো বলে দারুণ শট নিয়েছিলেন গঞ্জালো হিগুয়েইন। কিন্তু অবিশ্বাস্য দক্ষতায় বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে তা ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক । দুই মিনিট পর হিগুয়েইনের আরও একটি শট রুখে দেন  গুইলহেরমে। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে অনেকটা ফাঁকায় বল পেয়েও লক্ষ্যে রাখতে পারেননি রোনালদো।

৪৮তম মিনিটে রোনালদোর ফ্রি কিক ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক। আট মিনিট পর রোনালদোর আরও একটি দূরপাল্লার শট ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন তিনি। ৬১তম মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে এগিয়ে যাওয়ার ভালো সুযোগ ছিল মস্কোর। তবে মিরানচুকের শট ঠেকিয়ে দেন জুভেন্টাস গোলরক্ষক বয়েচেক সেজনি।

৭৭তম মিনিটে বড় বাঁচা বেঁচে যায় জুভেন্টাস। গ্রেজর্জ ক্রিচোইয়াকের শট গোললাইন থেকে ফেরান লিওনার্দো বনুচ্চি। চার মিনিট পর রোনালদোকে বদলী করে পাওলো দিবালাকে মাঠে নামান কোচ মাউরিজিও সারি। তিন মিনিট পর আদ্রিয়ান রাবিউতের পাস থেকে ভালো সুযোগও পেয়েছিলেন। কিন্তু অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয় তার প্লেসিং শট।

৮৬তম মিনিটে গোল পেতে পারতো স্বাগতিকরা। কোবিয়েকের দূরপাল্লার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ম্যাচের যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে দারুণ এক গোল করেন বদলী খেলোয়াড় ডগলাস কস্তা। দুই খেলোয়াড়কে কাটিয়ে হিগুয়েইনের সঙ্গে দেওয়া নেওয়া করে ডি-বক্সে ঢুকে ফের আরও দুই খেলোয়াড়কে কাটিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন এ ব্রাজিলিয়ান। ফলে স্বস্তির জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে জুভেন্টাস।

Comments