খেলা

মোস্তাফিজের ব্যাপারে ভাবনা বদল বিসিবির!

সেরা সময়ে তো বটেই, মাঝারি সময়েও মোস্তাফিজুর রহমান ছিলেন দলের মূল বোলিং অস্ত্র। কিন্তু সম্প্রতি মোস্তাফিজে দশা আরও বেহাল। নেই পুরনো ধার, নেই বৈচিত্র্য, আগের সেই জায়গাটাও বোধহয় তাই কিছুটা নড়েই গেছে। বছরখানেক আগেও দলের মূল বোলিং অস্ত্রকে চোটের হাত থেকে সুরক্ষায় বাইরের ফ্রেঞ্চাইজি লিগ খেলতে বিধিনিষেধও ছিল বিসিবির। আপাতত তা আর নেই। মোস্তাফিজ সুযোগ পেলে আইপিএলে যেতে পারেন, বাধা নেই বিসিবির।
Mustafizur Rahman
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

সেরা সময়ে তো বটেই, মাঝারি সময়েও মোস্তাফিজুর রহমান ছিলেন দলের মূল বোলিং অস্ত্র। কিন্তু সম্প্রতি মোস্তাফিজে দশা আরও বেহাল। নেই পুরনো ধার, নেই বৈচিত্র্য, আগের সেই জায়গাটাও বোধহয় তাই কিছুটা নড়েই গেছে। বছরখানেক আগেও দলের মূল বোলিং অস্ত্রকে চোটের হাত থেকে সুরক্ষায় বাইরের ফ্রেঞ্চাইজি লিগ খেলতে বিধিনিষেধও ছিল বিসিবির। আপাতত তা আর নেই। মোস্তাফিজ সুযোগ পেলে আইপিএলে যেতে পারেন, বাধা নেই বিসিবির।  

সম্প্রতি আইপিএলের নিলামে উঠতে ইচ্ছুক বাংলাদেশের এমন ছয় ক্রিকেটারের তালিকায় আছে মোস্তাফিজের নামও। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার, তাসকিন আহমেদ ও মেহেদী হাসান মিরাজের সঙ্গে মোস্তাফিজও চান এবার আইপিএলের নিলামে উঠতে।

বিসিবির তাতে সায় আছে বলেই পাঠানো হয়েছে সে তালিকা। যদিও এবার আইপিএলের নিলাম হবে আংশিক। ২৫৮ জন ইচ্ছুক বিদেশি ক্রিকেটারের মধ্যে মাত্র ২৯ জনকে ১৯ ডিসেম্বর তোলা হবে নিলামে। তারমধ্যে থেকেই বেছে বেছে ক’জন দল পাবেন। কাজেই মোস্তাফিজের আইপিএলের নিলামে উঠাও বেশ কঠিনই। দল পাওয়া তো বটেই।  

তবে কঠিন হোক আর সহজ হোক, মোস্তাফিজ আইপিএলে সুযোগ পেলে বিসিবির কোন বাধা নেই এটা মোটামুটি পরিষ্কার। চোটের থেকে বাঁচতে অন্তত দুই বছর আইপিএল বা বিদেশী লিগ থেকে দূরে থাকার মৌখিক নির্দেশনা ছিল বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসানের। মোস্তাফিজের টুকটাক চোট সমস্যা এখনো আছেই। কিন্তু বিসিবি সরে এসেছে আগের ভাবনা থেকে। তার বড় কারণ মোস্তাফিজের বিবর্ণ পারফরম্যান্স।

সর্বশেষ ভারত সফরে তিন টি-টোয়েন্টির সিরিজে একটিও উইকেট পাননি মোস্তাফিজ, বরং ছিলেন ভীষণ খরুচে। টেস্ট সিরিজে দলের সঙ্গে থাকলেও তাকে একাদশে বিবেচনাই করেনি টিম ম্যানেজমেন্ট।

মোস্তাফিজের বর্তমান পারফরম্যান্সের যে হাল, তাকে এই মুহূর্তে আর সবচেয়ে সেরা অস্ত্র মনে করছে না টিম ম্যানেজমেন্ট।

২০১৫ সালে ভারতকে হারিয়ে আলোড়ন তুলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা পড়ে মোস্তাফিজের। ২০১৬ সালের আইপিএলে মাত করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে বানান চ্যাম্পিয়ন। ২০১৭ সালে একই দলের হয়ে কেবল এক ম্যাচ খেলতে পেরেছিলেন। ২০১৮ সালের আইপিএলে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে সাত ম্যাচ খেলে উইকেট নেন কেবল ৭টি। রান বিলিয়েছেন দেদারসে।

পড়তি অবস্থায় মোস্তাফিজের দর নেমেছে ভারতে। এবার ভারত সফরে জাতীয় দলের হয়ে তার বিবর্ণ নৈপুণ্য হতাশ করেছে ভারতীয় বিশ্লেষকদেরও। বিসিবির সায় আছে, তিনি ইচ্ছুক কিন্তু আইপিএলের দলগুলো তার ব্যাপারে কতটা আগ্রহী এখন তা দেখার বিষয়।

তার আগে অবশ্য রংপুর রেঞ্জার্সের হয়ে বিপিএলে নামবেন মোস্তাফিজ।

Comments

The Daily Star  | English

Nation celebrating Eid-ul-Azha amid festive spirit

Bangladesh has begun celebrating Eid-ul-Azha, the second-largest religious festival for Muslims, with fervor and devotion

1h ago