আইপিএলের নিলামে মুশফিকসহ ৫ বাংলাদেশি

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগামী আসরের নিলামের জন্য ৩৩২ খেলোয়াড়ের তালিকা চূড়ান্ত করেছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ। সেখানে মুশফিকুর রহিমসহ বাংলাদেশের পাঁচ ক্রিকেটারের নাম রয়েছে।
ipl bangladesh cricketer
ছবি: সম্পাদিত

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) আগামী আসরের নিলামের জন্য ৩৩২ খেলোয়াড়ের তালিকা চূড়ান্ত করেছে আয়োজক কর্তৃপক্ষ। সেখানে মুশফিকুর রহিমসহ বাংলাদেশের পাঁচ ক্রিকেটারের নাম রয়েছে।

অভিজ্ঞ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান মুশফিকের নাম নিলামে থাকছে, তা জানা গিয়েছিল আগেই। নিলামে উঠতে যাওয়া বাংলাদেশের বাকি চার ক্রিকেটার হলেন- মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোস্তাফিজুর রহমান, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ও সাব্বির রহমান।

নিলামে নাম তুলতে আগ্রহী খেলোয়াড়দের প্রাথমিক তালিকা গেল ২ ডিসেম্বর প্রকাশ করা হয়েছিল। বাংলাদেশের ছয় জনসহ সেখানে ছিল মোট ৯৭১ ক্রিকেটারের নাম। যাচাই-বাছাই শেষে গেল বুধবার ৩৩২ ক্রিকেটারের নাম চূড়ান্ত করা হয়।

আইপিএলের আট ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের আগ্রহের কারণে প্রাথমিক তালিকায় নাম না থাকলেও চূড়ান্ত তালিকায় নতুন করে যুক্ত করা হয়েছে ২৪ ক্রিকেটারকে। তাদের মধ্যে আছেন মুশফিক ও সাব্বির।

ভারতীয় গণমাধ্যম দ্য হিন্দু জানিয়েছে, মোস্তাফিজের ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ১ কোটি রুপি। মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহর ভিত্তিমূল্য ৭৫ লাখ রুপি। সাইফউদ্দিন ও সাব্বিরের ভিত্তিমূল্য রাখা হয়েছে ৫০ লাখ রুপি।

আইপিএলের নিলামের প্রাথমিক তালিকায় ছিলেন বাংলাদেশের ছয় খেলোয়াড়। তারা হলেন- মোস্তাফিজ, মাহমুদউল্লাহ, তামিম ইকবাল, তাসকিন আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজ ও সৌম্য সরকার। তবে চূড়ান্ত তালিকায় জায়গা পাননি তামিম, মিরাজ, সৌম্য ও তাসকিন।

খেলোয়াড় বেছে নেওয়ার মাধ্যমে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো নিজেদের শক্তি বাড়ানো ও ঘাটতি পোষানোর সুযোগ পাবে আগামী ১৯ ডিসেম্বর। সেদিন কলকাতায় হবে নিলাম। এবার আট ফ্র্যাঞ্চাইজি মিলে দলে নিতে পারবে মোট ৭৩ ক্রিকেটারকে।

আগামী বছরের এপ্রিলে মাঠে গড়াবে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা আইপিএলের ১৩তম আসর।

Comments

The Daily Star  | English
Bangladesh Remittance from top 10 countries

UAE emerges as top remittance source for Bangladesh

Bangladesh received the highest remittance from the United Arab Emirates in the first 10 months of the outgoing fiscal year, well ahead of traditional powerhouses such as Saudi Arabia and the United States, central bank figures showed.

10h ago