খেলা

বিপিএলের কোনো চ্যাপ্টারই ‘আনকমন’ নয় শুভর

গত কয়েক মৌসুমে ধরেই ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ ধারাবাহিক শামসুর রহমান শুভ। বিশেষ করে বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে। ছোট সংস্করণেও সময়টা খারাপ যাচ্ছে না তার। গত বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের শিরোপা জয়েও প্রত্যক্ষ অবদান রেখেছিলেন তিনি। নিজেকে সবসময় প্রস্তুত রাখেন বলেই ধারাবাহিকভাবে সাফল্য পাচ্ছেন বলে জানালেন এ ক্রিকেটার। আর তাই বিপিএলের কোনো চ্যাপ্টারই ‘আনকমন’ পড়ে না শুভর।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

গত কয়েক মৌসুমে ধরেই ঘরোয়া ক্রিকেটে বেশ ধারাবাহিক শামসুর রহমান শুভ। বিশেষ করে বড় দৈর্ঘ্যের ম্যাচে। ছোট সংস্করণেও সময়টা খারাপ যাচ্ছে না তার। গত বিপিএলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের শিরোপা জয়েও প্রত্যক্ষ অবদান রেখেছিলেন তিনি। নিজেকে সবসময় প্রস্তুত রাখেন বলেই ধারাবাহিকভাবে সাফল্য পাচ্ছেন বলে জানালেন এ ক্রিকেটার। আর তাই বিপিএলের কোনো চ্যাপ্টারই ‘আনকমন’ পড়ে না শুভর।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) অনুশীলনের ফাঁকে শুভ বললেন, ‘আমি সবসময় যে কোনো টুর্নামেন্টের আগেই প্রস্তুতি নেওয়ার চেষ্টা করি। মাঠে গিয়ে সবচেয়ে বেশি কষ্ট করে থাকি। আমার চিন্তা-ভাবনা শুধু যে এনসিএল (জাতীয় লিগ) নিয়ে তা নয়। আপনি যদি চান নিজেকে তৈরি রাখতে, যে কোনোভাবেই নিজেকে তৈরি রাখতে পারবেন।’

নিজেকে কীভাবে প্রস্তুত রাখেন তার কিছু উদাহরণও দিলেন শুভ। জানালেন, প্রস্তুতির সুবাদে টি-টোয়েন্টি নামক কঠিন প্রশ্নতেও ঘাবড়ে যাননা তিনি, ‘আপনি অনুশীলনের শেষে কিছু থ্রো-ডাউন করলেন এই বিপিএল চিন্তা করে... আরও কিছু চিন্তা করে যদি আপনার কাজটা করেন, সেই হিসাবে পরীক্ষার হলে প্রশ্নটা কমনই পড়বে। আনকমন হবে না। আপনি যদি নতুন করে এনসিএল থেকে বিপিএলে আসেন, সেক্ষেত্রে টোটালি চ্যাপ্টারটা চেঞ্জ হয়। আপনার প্রশ্নে অনেক কিছুই আসতে পারে। তবে আপনি যদি বিশেষ অনুশীলন করেন সেক্ষেত্রে আপনার জন্য অনেক সহজ হবে।’

চলতি বিপিএলে খুলনা টাইগার্সের হয়ে খেলছেন শুভ। যদিও প্রথম ম্যাচে তার ব্যাটিংয়ে নামার প্রয়োজনই বোধ করেনি তার দল। আগেই জয় মিলে যায়। ক্যারিয়ারের শুরুতে ওপেনিং ব্যাটিং করলেও এখন তার ভূমিকা বদলেছে। মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করেন শুভ। যেখানে তার কাজ থাকে রানের গতি বাড়ানো। সেজন্যও নিজেকে প্রস্তুত রাখেন তিনি, ‘আমি যে দলে খেলি, সে দলের চাহিদা থাকে আমার রানটা যেন দলে সাহায্য করে। আমিও সেই দিকেই নজর রাখি, সেভাবেই খেলার চেষ্টা করি। আমরা যে দায়িত্ব তাতে আমি খুব বেশি বল হয়তো পাব না। তবে যতটুকু বল খেলি... ধরেন পাঁচ বল খেলে ১০, ১২ কিংবা ১৫ রান করি। দিন শেষে এটাই উপকারে দিবে।’

বর্তমানে টি-টোয়েন্টি বিশেষজ্ঞ হিসেবে শুভকে বিবেচনা না করা হলেও বাংলাদেশ জাতীয় দলের রাডারে তিনি এসেছিলেন বিপিএল খেলেই। জাতীয় দলের জার্সিটাও তার গায়ে উঠেছিল টি-টোয়েন্টি সংস্করণ দিয়েই। মাঝে বিপিএলে দল পাননি কিংবা পেলেও ম্যাচ খেলার সুযোগ সে অর্থে মেলেনি। তবে নিয়মিত অনুশীলন করে যাওয়ার ফল এখন পাচ্ছেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English
Raushan Ershad

Raushan Ershad says she won’t participate in polls

Leader of the Opposition and JP Chief Patron Raushan Ershad today said she will not participate in the upcoming election

6h ago