খেলা

ফিফা গেমের অনুকরণেই রুশোর উদযাপন

মাঠে নানা রকমের উদযাপনই করে থাকেন খেলোয়াড়রা। তা ফুটবলার হন কিংবা ক্রিকেটার। দারুণ কিছু করে ফেলার পর বিশেষ উদ্দেশ্যে ভিন্ন ধরনের কিছু করে আনন্দটা বাড়িয়ে নেন তারা। বিপিএলে শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ব্যতিক্রমী এক উদযাপন করলেন খুলনা টাইগার্সের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান রাইলে রুশো। আর ম্যাচ শেষে তার রহস্যও জানালেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক এই তারকা।
ছবি: ফিরোজ আহমেদ

মাঠে নানা রকমের উদযাপনই করে থাকেন খেলোয়াড়রা। তা ফুটবলার হন কিংবা ক্রিকেটার। দারুণ কিছু করে ফেলার পর বিশেষ উদ্দেশ্যে ভিন্ন ধরনের কিছু করে আনন্দটা বাড়িয়ে নেন তারা। বিপিএলে শুক্রবার (২০ ডিসেম্বর) রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে ব্যতিক্রমী এক উদযাপন করলেন খুলনা টাইগার্সের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান রাইলে রুশো। আর ম্যাচ শেষে তার রহস্যও জানালেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক এই তারকা।

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে রংপুরের বিপক্ষে ১৩৮ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ব্যাট করতে নেমে রীতিমতো ঝড় তোলেন রুশো। ঝড় তুললেও তা করেছেন একেবারে ঠাণ্ডা মাথায়। চার-ছক্কার ডালি সাজিয়ে ফিফটি আদায় করে নেওয়া ব্যাটসম্যান শেষ পর্যন্ত খেলেন ৬৬ রানের ইনিংস। একাদশ ওভারে বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানিকে চার মেরে নিজের হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। এরপরই নাচের ভঙ্গিতে সেই অদ্ভুত উদযাপন।

ডান হাতে নাক চেপে ধরার মতো করে বাঁ হাত প্রসারিত করেন রুশো। এরপর কোমর দুলিয়ে হালকা তালে নাচেন কিছুক্ষণ। এরপর অবশ্য হাসেন অনেকক্ষণ ধরে। এমন উদযাপন মনে করিয়ে দেয় ২০১০ ফুটবল বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকান সমর্থকদের সেই ঐতিহ্যবাহী নাচকে। তবে রুশো সেটা অনুকরণ করেননি। করেছেন প্লে-স্টেশনে ফিফা গেমের। রুশোর ভাষায়, ‘উদযাপনটা... প্লে-স্টেশনে ফিফা গেমের (ভিডিও গেম) একটি উদযাপন ঠিক এরকম। ছেলেদের আগেই বলে রেখেছিলাম, যদি আজ ফিফটি করতে পারি, তাহলে এভাবে উদযাপন করব।’

উদযাপনের রহস্য জানালেও ব্যাটিংয়ের রহস্য ফাঁস করেননি রুশো। ঠাণ্ডা মাথায় এমন খুনে মেজাজের ব্যাটিং কীভাবে করেন জানতে চাইলে বললেন, ‘এর পেছনে কোনো রহস্য নেই। আমি বিশ্বাস করি, অনেক চেষ্টা করে কাজটা করার চেয়ে তা-ই করা উচিৎ যা উপভোগ করা যায়। সৌভাগ্য যে আমি এমন একটি দল পেয়েছি যারা আমার সঙ্গে রয়েছে। আমি ক্রিকেটটা উপভোগ করে ও ভালোবেসেই খেলি। তাই এখানে গোপন কিছু নেই। আমি খুব শান্ত ও নির্ভার থাকি। এটা আমার দিন হলে আমার দিন। না হলে পরের ম্যাচে হবে। সুন্দর ও শান্ত থাকাই আমার পদ্ধতি।’

উল্লেখ্য, শুধু এদিনই নয়, প্রতি ম্যাচেই ধারাবাহিকভাবে পারফরম্যান্স করে যাচ্ছেন রুশো। প্রথম ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে হার না মানা ৬৪ রান করার পর রাজশাহী রয়্যালসের বিপক্ষে করেন ৪২ রান। আর এদিন তো আরও দুর্ধর্ষ তিনি! আসলে বিপিএলের গত মৌসুম থেকেই দারুণ ছন্দে আছেন রুশো। সেবার ৫৫৮ রান করেছিলেন যা বিপিএলের এক মৌসুমে কোনো ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ সংগ্রহ। এবারও যেভাবে ব্যাট করছেন তাতে হয়তো নিজেকে আরও ছাড়িয়ে যাবেন তিনি!

Comments

The Daily Star  | English

8 killed as gunmen attack churches, synagogues in Russia

Gunmen on Sunday attacked synagogues and churches in Russia's North Caucasus region of Dagestan, killing a priest, six police officers, and a member of the national guard, security officials said

2h ago