পাকিস্তানকে নিজেদের অবস্থান বোঝানোর চেষ্টায় বিসিবি

আসছে মাসে পাকিস্তানে গিয়ে কেবল টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চায় বিসিবি, টেস্ট খেলতে চায় নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। কিন্তু বাংলাদেশের এই প্রস্তাবে আবার রাজী নয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। শ্রীলঙ্কা পারলে পাকিস্তানে বাংলাদেশ কেন টেস্ট খেলতে পারবে না, প্রশ্ন তাদের। নিজেদের আগের অবস্থান শক্ত রেখে, সেদেশে দীর্ঘ সময় কেন অবস্থান করা যাবে না পিসিবিকে বোঝানোর চেষ্টায় করছে বিসিবি।
nizamuddin chowdhury
ফাইল ছবি: বিসিবি

আসছে মাসে পাকিস্তানে গিয়ে কেবল টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে চায় বিসিবি, টেস্ট খেলতে চায় নিরপেক্ষ ভেন্যুতে। কিন্তু বাংলাদেশের এই প্রস্তাবে আবার রাজী নয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। শ্রীলঙ্কা পারলে পাকিস্তানে বাংলাদেশ কেন টেস্ট খেলতে পারবে না, প্রশ্ন তাদের। নিজেদের আগের অবস্থান শক্ত রেখে, সেদেশে দীর্ঘ সময় কেন অবস্থান করা যাবে না পিসিবিকে বোঝানোর চেষ্টায় করছে বিসিবি।

নিরাপত্তা পর্যবেক্ষক দলের প্রতিবেদন ও সরকারের সংকেত অনুযায়ী পাকিস্তানে গিয়ে কেবল টি-টোয়েন্টি খেলতে রাজী হয়েছে বিসিবি। সে ইচ্ছের কথা জানানোর পর বেঁকে বসে পিসিবি। তৈরি হয় অনিশ্চয়তা। এই সিরিজ নিয়ে দুই বোর্ডের ক্রমাগত কথা চালাচালিও অব্যাহত।

বিসিবির সিদ্ধান্ত জানার পর প্রতিক্রিয়ায় পিসিবির সিইও ওয়াসিম খান বলেছিলেন, ‘শ্রীলঙ্কা তাদের সিরিজ পুরো করতে যাচ্ছে কোন রকমের নিরাপত্তার সমস্যা ছাড়াই। কাজেই আমরা বাংলাদেশকে জিজ্ঞেস করতে চাই তাদের না আসার কারণ কি?

সেই কারণই শনিবার ব্যাখ্যা করলেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী, ‘এর মধ্যে বিভিন্ন কথা এসেছে, শর্টার ভার্শনে যেতে পারলে লঙ্গার ভার্শনে কেন না। আসলে নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা বুঝতে পারবেন যে, একটা কম সময়ের অবস্থান আর একটা দীর্ঘ সময়ের অবস্থানের মধ্যে কিছুটা হলেও পার্থক্য আছে।’

পাকিস্তানে ক্রিকেট ফিরলেও সিরিজগুলো হচ্ছে কঠোর নিরাপত্তার ঘেরাটোপে। ক্রিকেটারদের চলাফেরা থাকছে সীমাবদ্ধ। এমনকি গ্যালারিতে অবাধে দর্শকও ঢুকাতে পারছেন না দেশটি। এসব বিষয় মাথায় রেখেই সেদেশে কেবল সীমিত পরিসরে ক্রিকেট খেলতে চায় বাংলাদেশ, ‘নিরাপত্তার বিষয়টাকে মাথায় রেখে আমরা নিরাপত্তা ও অন্যান্য বিষয়গুলা যে এসছে, একটা নির্দিষ্ট গন্ডির মধ্যে থাকতে হবে এবং কিছু সীমাবদ্ধতা থাকবে চলাফেরায়। তাই এই বিষয়গুলো বিবেচনা করেই আমরা এই ধরণের চিন্তা ভাবনা করছি।’

স্পর্শকাতর এই সিরিজ নিয়ে সরকারের উচ্চ পর্যায় আর পাকিস্তানে অবস্থানরত হাইকমিশনের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছে বোর্ড। সিইও জানালেন তারা পরামর্শ নেবেন আইসিসিরও। এই অবস্থায় পিসিবিকে নিজেদের সীমাবদ্ধতা বোঝানোর চেষ্টা করছে বিসিবি, ‘আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ হচ্ছে  , আমরা চেষ্টা করছি তাদের (পিসিবি) বোঝাতে। তারাতো চাইবেই যে পুরো সিরিজটা খেলতে। আমরা আমাদের অবস্থান পরিস্কার করেছি এবং কী কী কারণে চাচ্ছি না সেসব বিষয়গুলো আমরা বলেছি।

বিসিবির অবস্থান পরিস্কার। টেস্ট তো নয়ই, পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি সিরিজও কেবল একটা ভেন্যুতে খেলতে চায় বাংলাদেশ।

Comments

The Daily Star  | English

97pc work of HSIA third terminal complete: minister

Only three percent of work, which includes calibration and testing of various systems is yet to be completed

14m ago