ঢাকাই সিনেমার নায়িকা উপাখ্যান: শাবনূর থেকে বুবলি

ঢাকার সিনেমায় যুগে যুগে অনেক নায়িকা এসেছেন। সেসব নায়িকারা অনেকেই স্থায়ী আসন গড়েছেন, কেউ বা হারিয়ে গেছেন কিছু সিনেমা করেই। কথা বলছি নব্বই দশক থেকে চলতি সময় পর্যন্ত নায়িকাদের নিয়ে। কারা ভালো অবস্থা গড়েছেন এই সময়ের মধ্যে? এখনকার নায়িকারা কে, কেমন কাজ করছেন? কার ব্যস্ততা কতোটা?- সেসব নিয়েই এই প্রতিবেদন।
অভিনেত্রী শাবনূর এবং বুবলি। ছবি: শেখ মেহেদী মোর্শেদ

ঢাকার সিনেমায় যুগে যুগে অনেক নায়িকা এসেছেন। সেসব নায়িকারা অনেকেই স্থায়ী আসন গড়েছেন, কেউ বা হারিয়ে গেছেন কিছু সিনেমা করেই। কথা বলছি নব্বই দশক থেকে চলতি সময় পর্যন্ত নায়িকাদের নিয়ে। কারা ভালো অবস্থা গড়েছেন এই সময়ের মধ্যে? এখনকার নায়িকারা কে, কেমন কাজ করছেন? কার ব্যস্ততা কতোটা?- সেসব নিয়েই এই প্রতিবেদন।

নব্বই দশকের অন্যতম প্রধান জনপ্রিয় ও ব্যস্ত নায়িকার নাম বললে প্রথমেই যার কথা আসে- তিনি শাবনূর। এই নায়িকা দীর্ঘ সময় ঢাকাই চলচ্চিত্রে রাজত্ব করে গেছেন। যদিও এখন সিনেমা থেকে একটু দূরে রয়েছেন তিনি। তবে, একেবারে সিনেমা ছেড়ে দেননি। প্রখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক এহতেশাম পরিচালিত ‘চাঁদনী রাতে’ দিয়ে চলচ্চিত্রে পথচলা শুরু শাবনূরের। সেই থেকে এই সময় পর্যন্ত সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়িকাদের অন্যতম তিনি।

নব্বই দশকে মুক্তি পাওয়া আলোচিত সিনেমা ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’। এই সিনেমা দিয়ে আগমন। একটি সিনেমা করার পর থেকে তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একটার পর একটা সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। পেয়েছেন সফলতা। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারসহ নানা পুরস্কার পেয়েছেন। তিনি হলেন মৌসুমী।

সিনেমায় এখনো সরব মৌসুমী। তার হাতে রয়েছে কয়েকটি সিনেমা। ‘মধু দা’ নামে নতুন একটি সিনেমায় অভিনয় করছেন। ‘পবিত্র ভালোবাসা’ মুক্তির অপেক্ষায়। তার সবশেষ অভিনীত ‘নোলক’ মুক্তি পেয়েছে। ‘অর্জন ৭১’ নামে নতুন একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন তিনি।

জনপ্রিয়তার দিক থেকে পূর্ণিমাও অনেক এগিয়ে। গত বিশ বছর ধরে ঢাকাই সিনেমায় নায়িকা হিসেবে অভিনয় করছেন তিনি। অনেক জনপ্রিয় সিনেমা রয়েছে তার ক্যারিয়ারে। জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ দিয়ে পূর্ণিমার অভিষেক ঘটে সিনেমা জগতে। তারপরের ইতিহাস সবারই জানা। তার ক্যারিয়ারেও রয়েছে অনেক ব্যবসাসফল চলচ্চিত্র। অবশ্য গত কয়েকবছর সিনেমা থেকে দূরে ছিলেন তিনি। ব্যস্ত ছিলেন নাটক, মডেলিং ও উপস্থাপনা নিয়ে।

পূর্ণিমা আবারো সিনেমায় সরব হয়েছেন। ‘জ্যাম’ ও ‘গাঙচিল’ নামের নতুন দুটি সিনেমায় অভিনয় করছেন তিনি। এ দুটির কাজ অনেকটাই শেষ করেছেন।

টানা বিশ বছর ধরে নায়িকা হিসেবে কাজ করছেন পপি। এই নায়িকা তিনবার জিতেছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। বিশ বছর আগে ‘আমার ঘর আমার বেহেশত’ দিয়ে দর্শকপ্রিয়তা অর্জন করেছিলেন। তারও রয়েছে অনেক জনপ্রিয় সিনেমা। দীর্ঘ অভিনয় ক্যারিয়ারে শুধু সিনেমাই করেছেন পপি।

এই সময়েও পপি ব্যস্ত রয়েছেন ‘সাহসী যোদ্ধা’, ‘সেভ লাইভ’ এবং ‘কাঠগড়ায় শরৎচন্দ্র’ নিয়ে।

নব্বই দশকের আরেক আলোচিত নায়িকা শাবনাজ, ‘চাঁদনী’ দিয়ে সিনেমা জগতে যাত্রা শুরু করেছিলেন। এটি ছিলো নব্বই দশকের শুরুর দিকে একটি আলোচিত সিনেমা। এরপর তিনি অনেক সিনেমায় নায়িকা হিসেবে কাজ করেছেন। সালমান শাহর সঙ্গেও তিনি বেশ কয়েক সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন। এখন তিনি সিনেমা থেকে দূরে রয়েছেন।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা সিমলাও এখন কম সিনেমা করছেন। অবশ্য এবছর সিমলা ভারতের একটি হিন্দি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। আরেক জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা নিপুনও সিনেমা কম করছেন। সিমলা ও নিপুন এক সময় অনেক সিনেমা করেছেন।

নব্বই দশক পরবর্তী নায়িকাদের মধ্যে একসময় ব্যস্ত নায়িকা ছিলেন কেয়া। এখন তাকে সিনেমায় খুবই কম দেখা যায়।

নায়িকা শাহনূর ‘হাজার বছর ধরে’ সিনেমায় অভিনয় করে আলোচনায় এসেছিলেন। তিনি এখন সিনেমা করছেন, তবে সংখ্যায় খুবই কম। নায়িকা বর্ষা বেশ কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করে আলোচনায় ছিলেন। তিনি নায়ক অনন্ত’র স্ত্রী। এখন সিনেমা কমই করছেন তিনি।

বেশ কয়েকটি সিনেমা করেছিলেন শাকিবা। এখন তাকে সিনেমায় দেখা যায় না। জনা নামের আরেকজন নায়িকা বেশকিছু সিনেমা করলেও এখন তিনি প্রবাসী। শাবজান ও তামান্না ঢাকাই সিনেমার আরও দুই নায়িকা, যারা নব্বই পরবর্তী সিনেমায় এসেছিলেন। তারাও সিনেমা থেকে দূরে রয়েছেন।

ঢাকার সিনেমার আরেক জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। শতাধিক সিনেমা করেছেন তিনি। শাকিব খানের সঙ্গেই জুটি বেঁধে অভিনয় করেছেন ৭০টির মতো সিনেমায়। অপু বিশ্বাস এখন আগের থেকে কম সিনেমা করছেন। তার হাতে রয়েছে ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’।

বিদ্যা সিনহা মিম লাক্স-চ্যানেল আই সুপার স্টার প্রতিযোগিতা দিয়ে শোবিজ জগতে নাম লেখান। এই অভিনেত্রীও পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। তার অভিনীত ‘সাপলুডু’ দুই মাস আগে মুক্তি পেয়েছে। সম্প্রতি, তিনি ‘পরান’ নামের একটি নতুন সিনেমার শুটিং শেষ করেছেন।

মীম এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন ‘ইত্তেফাক’ নামের একটি সিনেমার শুটিং নিয়ে।

পরীমণি সিনেমায় এসেই দর্শকদের দৃষ্টি কেড়েছেন। বেশকিছু দর্শকপ্রিয় সিনেমা রয়েছে তার। সবশেষ ‘স্বপ্নজাল’ মুক্তি পায় পরীমণির। মাঝে-মাঝে ওয়েব সিরিজও করেন তিনি। আগামী মাসে মুক্তি পাবে পরীমণির ‘বিশ্বসুন্দরী’।

মাহিয়া মাহী এই সময়ের আরেক জনপ্রিয় নায়িকা। মাহী সিনেমায় এসেই বাজিমাত করেন। কিছু আলোচিত সিনেমা রয়েছে তারও। ‘অবতার’ নামে নতুন একটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে কয়েকমাস আগে। মাহীর হাতে রয়েছে নতুন দুটি সিনেমা।

ছোটপর্দা থেকে সিনেমায় আসা ববি এখন জনপ্রিয় নায়িকাদের একজন। ‘দেহরক্ষী’সহ আলোচিত কিছু সিনেমা রয়েছে তার। গেলো ঈদে ববি অভিনীত ‘নোলক’ মুক্তি পায়, যা তাকে নতুন করে আলোচনায় নিয়ে আসে। ববিও নতুন সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত রয়েছেন।

বুবলির ভাগ্যটা যেনো সিনেমার জন্যই। প্রথম সিনেমা ‘বসগিরি’ দিয়েই আলোচনায় আসেন। তারপর যে কয়টি সিনেমা করেছেন, সবগুলিই দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে। বুবলির সব সিনেমার নায়ক শাকিব খান। বুবলি অভিনীত ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’ গত ঈদে মুক্তি পেয়েছে। নতুন সিনেমা ‘বীর’-এ অভিনয় করছেন বুবলি। সেই সঙ্গে তার আরেকটি নতুন সিনেমা ‘ক্যাসিনো’র শুটিং চলছে।

নুসরাত ফারিয়া সিনেমা নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। সম্প্রতি, তার অভিনীত ‘বিবাহ অভিযান’ মুক্তি পেয়েছে এদেশে। যদিও এটি ভারতীয় সিনেমা। নুসরাত ফারিয়া বর্তমানে অভিনয় করছেন ‘ঢাকা ২০৪০’-এ। তার ব্যস্ততাও চোখে পড়ার মতো।

নুসরাত ফারিয়া ‘অপারেশন সুন্দরবন’ শিরোনামের নতুন সিনেমার শুটিং শুরু করেছেন। ‘শাহেনশাহ’ নামে তার একটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় আছে।

এদিকে, নাটক থেকে সিনেমায় এসে যারা সফলতার প্রমাণ দিয়েছেন, তাদের মধ্যে অন্যতম হচ্ছেন জয়া আহসান। ‘গেরিলা’, ‘দেবী’সহ কয়েকটি সিনেমা করে আলোচিত তিনি। পেয়েছেন একাধিকবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এছাড়াও ভারতীয় বাংলা সিনেমায় ব্যস্ত তিনি। জয়ার ‘বিউটি সার্কাস’ ও ‘পেয়ারার সুবাস’ মুক্তির তালিকায় রয়েছে।

নাটক থেকে সিনেমায় এসে সফলতা পেয়েছেন এবং একটার পর একটা সিনেমা করে চলেছেন তিশা। তিশা দুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। তার অভিনীত ‘হালদা’ দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে। তার অভিনীত ‘শনিবার বিকেলে’ বিদেশে প্রশংসিত একটি সিনেমা। ‘ডুব’-এ অভিনয় করেও তিশা সবার প্রশংসা পেয়েছেন।

তিশা অভিনীত ‘ফাগুন হাওয়ায়’ দর্শকনন্দিত ও প্রশংসিত হয়েছে। ‘মায়াবতী’ তিশার মুক্তিপ্রাপ্ত সর্বশেষ চলচ্চিত্র। এখন তিনি শুটিং করছেন ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এ।

জাকিয়া বারী মম ‘ছুঁয়ে দিলে মন’-এ করে সবার দৃষ্টি কাড়েন। তারও আগে ‘দারুচিনি দ্বীপ’-এ অভিনয় করে বেশ সাড়া পান। তার অভিনীত ‘আলতা বানু’ সিনেমাটিও দেশ-বিদেশে প্রশংসিত হয়েছে।

এই সময়ের ঢাকাই সিনেমার আরেক নায়িকার নাম ‘আইরিন’। সম্প্রতি, তার ‘পদ্মার প্রেম’ মুক্তি পেয়েছে। নতুন আরেক নায়িকার নাম অধরা খান। সবশেষ নতুন নায়িকা জাহারা মিতু। আরও কয়েকজন নতুন নায়িকা এসেছেন। সময়ই বলে দেবে তারা কতোদিন টিকে থাকবেন সিনেমায়।

Comments

The Daily Star  | English
Raushan Ershad

Raushan Ershad says she won’t participate in polls

Leader of the Opposition and JP Chief Patron Raushan Ershad today said she will not participate in the upcoming election

5h ago