এবার রাহুলকে ইতালি চলে যেতে বললেন

ভারতের নতুন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতাকারীদের প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে যাচ্ছে দেশটির সরকার ও প্রশাসন। উত্তরপ্রদেশের মিরাটে মুসলিম অধিবাসীদের সেখানকার পুলিশ সুপার পাকিস্তান চলে যাওয়ার কথা বলে বিতর্ক সৃষ্টির পর ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধিকে পরামর্শ দিলেন ইতালি চলে যাওয়ার।
Rahul Gandhi
সম্প্রতি দিল্লিতে আয়োজিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ-সমাবেশে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের নতুন সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতাকারীদের প্রতিনিয়ত হুমকি দিয়ে যাচ্ছে দেশটির সরকার ও প্রশাসন। উত্তরপ্রদেশের মিরাটে মুসলিম অধিবাসীদের সেখানকার পুলিশ সুপার পাকিস্তান চলে যাওয়ার কথা বলে বিতর্ক সৃষ্টির পর ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধিকে পরামর্শ দিলেন ইতালি চলে যাওয়ার।

আজ (২৯ ডিসেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, কেন্দ্রীয় পশুপালন, দুগ্ধ ও মৎস্যমন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ রাহুল গান্ধিকে উদ্দেশ্য করে বলেছেন, “অনুপ্রবেশকারীদের ভালোবাসলে তাদের ইতালিতে নিয়ে যান।”

গিরিরাজের দাবি, শুধুমাত্র কংগ্রেস ও ‘কিছু লোক’ ছাড়া সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে আর কারো সমস্যা নেই।

গিরিরাজ গতকাল কংগ্রেসকে অভিযুক্ত করে বলেছেন, মিথ্যা গুজব ছড়িয়ে কংগ্রেস ‘দেশকে বিভক্ত’ করতে চাচ্ছে এবং সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন সম্পর্কে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

প্রিয়াঙ্কাকে হেনস্থা

কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধিকে উত্তরপ্রদেশের লখনৌতে হেনস্থা করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। প্রিয়াঙ্কা সাংবাদিকদের বলেন, “বিশিষ্ট সমাজসেবী এসআর দারাপুরির পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়া সময় এক নারী পুলিশ পথ রোধ করে আমাকে হেনস্থা করেছে।”

পুলিশ তাকে ধাক্কা মেয়ে রাস্তায় ফেলে দিয়েছিলো বলেও অভিযোগ করেন কংগ্রেস নেত্রী। তিনি বলেন, “দারাপুরির বাসায় যাওয়ার পথে আমাকে দুই জায়গায় থামিয়ে দেওয়া হয়েছিলো, ঘাড়ে ধরে ধাক্কা মেরেছিলো।”

অমিত শাহ ও সেনাপ্রধানের সমালোচনায় চিদাম্বরম

এদিকে, বিতর্কিত আইনটি নিয়ে রাহুল গান্ধিকে চ্যালেঞ্জ করায় অমিত শাহের সমালোচনা করেছেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা ও সাবেক কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদাম্বরম।

চিদাম্বরম বলেন, “কী করে রাহুলকে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, যেখানে তিনি নিজে সংসদে একটি প্রশ্নেরও উত্তর দেননি?”

আইনটির বিরুদ্ধে তৈরি হওয়া দেশব্যাপী প্রতিবাদ-বিক্ষোভের প্রশংসা করে চিদাম্বরম বলেন, ‘‘হাজার হাজার শিক্ষার্থী ও যুব সমাজ রাস্তায় নেমে এসেছে। রাস্তায় যারা নেমেছে তাদের অধিকাংশই হিন্দু, শিখ, জৈন, পার্সি, দলিত ও উপজাতি।”

তার মতে, “প্রত্যেকের পৃথক পরিচয় রয়েছে। কিন্তু, একটি বড় পরিচয় হলো, আমরা ভারতীয় এবং ভারতে সবাই সমান।” নাগরিকত্ব আইনটি ভারতের সংবিধানের মূল ভিত্তিকেই ধ্বংস করছে বলেও মন্তব্য করেন কংগ্রেস নেতা।

সেসময় তিনি ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতেরও সমালোচনা করেন। চিদাম্বরম বলেন, “রাজনীতিবিদদের কী করা উচিত তা বলা সেনাবাহিনীর কাজ নয়। যেমন, আমাদের কাজ নয় তাদেরকে এটা বলা যে, কেমন করে যুদ্ধ করতে হবে।”

উল্লেখ্য, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনে বলা হয়েছে, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে ভারতে আসা অমুসলিম শরণার্থীরা নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবেন। সমালোচকদের দাবি, এই আইন মুসলমানদের প্রতি বৈষম্যমূলক এবং এটি সংবিধানে বর্ণিত দেশের ধর্মনিরপেক্ষ ভাবমূর্তির পরিপন্থি।

আরও পড়ুন:

‘পাকিস্তান চলে যাও’- পুলিশের বক্তব্যে ভারতে তোলপাড়

Comments

The Daily Star  | English

Bangladeshi students terrified over attack on foreigners in Kyrgyzstan

Mobs attacked medical students, including Bangladeshis and Indians, in Kyrgyzstani capital Bishkek on Friday and now they are staying indoors fearing further attacks

2h ago