আমরণ অনশনরত খুলনার পাটকল শ্রমিকরা আতঙ্কে

জাতীয় মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে দ্বিতীয় দফায় আমরণ অনশনরত খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত নয়টি পাটকলের শ্রমিকরা আতঙ্কে রয়েছেন।
Khula-Jute-1.jpg
৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, আমরণ অনশনরত খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকরা। ছবি: স্টার

জাতীয় মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে দ্বিতীয় দফায় আমরণ অনশনরত খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত নয়টি পাটকলের শ্রমিকরা আতঙ্কে রয়েছেন।

আজ (৩১ ডিসেম্বর) সকালে দ্য ডেইলি স্টারের কাছে এমন অভিযোগ করেছেন তারা।

আমাদের খুলনা সংবাদদাতা জানান, খুলনা অঞ্চলের পাটকল শ্রমিকদের এবারের আমরণ অনশন কর্মসূচির তৃতীয় দিন চলছে। এবার আন্দোলনে তাদের সঙ্গে পরিবারের সদস্যরাও যোগ দিয়েছেন। তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে শ্রমিকেরা অনশন পালন করে যাচ্ছেন।

সকালে ক্রিসেন্ট জুট মিল ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি মুরাদ হোসেন ও প্লাটিনাম পাটকল শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি শাহানা শারমিন এবং বেশ কয়েকজন শ্রমিকের সঙ্গে এই সংবাদদাতার কথা হয়।

তাদের অভিযোগ, নগরীর খালিশপুর বিআইডিসি সড়কের যে স্থানে শ্রমিকেরা অবস্থান নিয়েছেন, তার আশপাশে সাদা পোশাক পরিহিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা ঘোরাফেরা করছেন। আন্দোলনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন কারা, কারও ইন্ধন রয়েছে কী না, শ্রমিকদের রাজনৈতিক মতাদর্শ কী, সময়ে সময়ে এসে শ্রমিকদের কাছ থেকে তারা এসব তথ্য জানার চেষ্টা করছেন।

এতে শ্রমিকদের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক বিরাজ করছে বলে জানিয়েছেন মুরাদ হোসেন। তিনি বলেন, “ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা এসে বলে গেছেন যে, আন্দোলন করতে হলে রাস্তা বন্ধ করে করা যাবে না। শ্রমিকদের যার যা করতে ইচ্ছে হয়, তা যেনো যার যার মিলের ভেতর গিয়ে করেন।”

তিনি আরও জানান, জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ছাড়াও শ্রমিকদের আতঙ্কের আরেক কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতারা।

তারা রাস্তা ছেড়ে দিয়ে শ্রমিকদের মিলের ভেতর প্রবেশের জন্য বিভিন্নভাবে শাসিয়ে যাচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন:

আবারও আমরণ অনশনে খুলনার পাটকল শ্রমিকরা

Comments

The Daily Star  | English

Finance is key to Bangladesh’s energy transition

Bangladesh must invest more in renewable energy and energy efficiency to reduce fossil fuel imports to reverse the increasing trajectory of the subsidy burden.

9h ago