‘রাজাকারের সন্তানকে দিয়ে উদ্বোধন’ করানোয় সেলিম ওসমানকে আইভীর ধিক্কার

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে জাতীয় পার্টির (এরশাদ) এমপি সেলিম ওসমানের কড়া সমালোচনা করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তিনি একই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি।
IVy and Selim
নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী (বামে) এবং নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে জাতীয় পার্টির (এরশাদ) এমপি সেলিম ওসমান। ছবি: সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে জাতীয় পার্টির (এরশাদ) এমপি সেলিম ওসমানের কড়া সমালোচনা করেছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তিনি একই সঙ্গে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি।

আইভী বলেছেন, “আজকে ‘উৎসব বাস’ উদ্বোধনে কুখ্যাত রাজাকার গোলাম রাব্বানি যিনি মানুষকে মেরেছে তার ছেলে কাজলকে দিয়ে উদ্বোধন করিয়েছে। আমি ধিক্কার জানাই সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানকে যিনি সার্বক্ষণিক ওনাকে সঙ্গে রাখে। এভাবে রাজাকারের ছেলেকে দিয়ে তারা এই কাজগুলো করাচ্ছে।”

গতকাল (১ জানুয়ারি) বিকালে শহরের ডিআইটি এলাকায় আলী আহাম্মদ চুনকা পাঠাগার ও নগর মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইভী এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, “মুনতাসীর মামুনের বইতে স্পষ্ট লেখা আছে রাজাকারদের তালিকা। সেই রাজাকারদের তালিকার মধ্যে নারায়ণগঞ্জের কুখ্যাত কিছু রাজাকারের নাম আছে। আমরা জানি তার মধ্যে একজন এই গলাচিপার গোলাম রাব্বানী। আজকে যারা মুক্তিযুদ্ধের কথা বলে, বঙ্গবন্ধুর কথা বলে জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে মায়া কান্না করে তারা এই নারায়ণগঞ্জকে অস্থির করে তুলছে। পদ-পদবি নিয়ে আসে, সংসদ সদস্য হয়। তারা সেই রাজাকারের ছেলেকে দিয়ে বিভিন্নভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করাচ্ছে। চেম্বারের প্রেসিডেন্ট বানিয়ে রেখেছে। মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের অবহেলিত করে রাইফেল ক্লাবের মতো জায়গায় তাকে সাধারণ সম্পাদক বানিয়ে রেখেছে।”

মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “আপনাদের মতো মুক্তিযোদ্ধাদের অসম্মানিত করা হয়েছে। আমি নারায়ণগঞ্জের মুক্তিযোদ্ধাদের অনুরোধ করবো সাহস করে তো বলতে পারেন না। ৭১কে তো ভুলেই গিয়েছেন। দয়া করে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানদের এভাবে অপমানিত অপদস্থ করবেন না। এই সেলিম ওসমান শামীম ওসমানের সঙ্গে থেকে আপনারা মুক্তিযোদ্ধাদের রাজাকার বানাচ্ছেন। রাজাকারের সন্তানদের বড় বড় ফিল্ড দিচ্ছেন। এইটা ঠিক না, সঠিক নয়।”

মেয়র আইভী বলেন, “আমি মনে করি, কাজলকে আমাদের বর্জন করা উচিত। আর যে সব মুক্তিযোদ্ধারা ওই সমস্ত অনুষ্ঠানে যাবে তাদেরকেও বর্জন করা উচিত। আর যদি আপনারা না করেন আমরা যারা মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তান আছি, তারা পথে নামতে বাধ্য হবো।”

তিনি বলেন, “অনেক কিছু বলেন এই শহরে। মানুষ হত্যা করেছেন। গর্জন করেন। এই করবেন, সেই করবেন; মানুষকে পিষে মেরে ফেলবেন। তাহলে রাজাকারদের চারপাশে রেখে এভাবে কেনো নারায়ণগঞ্জবাসীকে অসম্মানিত করছেন? এই বিচার একদিন নারায়ণগঞ্জবাসীই করবে। তাদের উপরেই রইলো। অবশ্যই আমরা চাই না এই ধরণের সংস্কৃতি এই ধরণের অত্যাচার নারায়ণগঞ্জের মধ্যে হোক।”

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের (নাসিক) নির্বাহী কর্মকর্তা এএফএম এহতেশামুল হক, নাসিকের কাউন্সিলর, কর্মকর্তা ও নারায়ণগঞ্জের সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

Comments

The Daily Star  | English
Sheikh Hasina's Sylhet rally on December 20

Hasina doubts if JP will stay in the race

Prime Minister Sheikh Hasina yesterday expressed doubt whether the main opposition Jatiya Party would keep its word and stay in the electoral race.

1h ago