শীর্ষ খবর

পোশাক রপ্তানিতে আরেকটু ‘বার্গেইন’ করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশ খুব কম মূল্যে পোশাক রপ্তানি করে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক্ষেত্রে বিদেশি ক্রেতাদের কাছ থেকে বাড়তি দাম আদায়ে দর কষাকষির পরামর্শ দিয়েছেন।
ছবি: পিআইডি

বাংলাদেশ খুব কম মূল্যে পোশাক রপ্তানি করে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক্ষেত্রে বিদেশি ক্রেতাদের কাছ থেকে বাড়তি দাম আদায়ে দর কষাকষির পরামর্শ দিয়েছেন।

এর জন্য ব্যবসায়ীদের উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, আন্তর্জাতিক ক্রেতারা কিছুটা হলেও যাতে দাম বাড়ায়।

বাসসের খবরে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে জাতীয় বস্ত্র দিবস ২০১৯ ও বস্ত্রমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে তৈরি এসব পোশাক খুব অল্প টাকায় আমরা বিক্রয় করি। এক্ষেত্রে আমাদের পণ্য ক্রেতারা এক ডলার করেও যদি দাম বাড়াতো তাহলে মনে হয় এই খাতটাকে আমরা আরো উন্নত করতে পারতাম।

তিনি বলেন, যেহেতু প্রতিযোগিতার একটা ব্যাপার থাকে সেহেতু আমাদের রপ্তানিকারকগণ বায়ারদের সঙ্গে এই ‘বার্গেইনিংটা’ করেন কিনা আমি বলতে পারব না। কিন্তু আমার মনে হয় একটু করা উচিত। বায়ার বা দেশগুলোকে বিষয়টি বলা উচিত।

প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করেন যে, যেসব দেশে আমাদের পোশাক রপ্তানি হয় সেসব দেশ সফরে গেলে তাদের সরকার প্রধানদের কাছে তিনি নিজে বিষয়টি তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, একই সঙ্গে, আমাদের বিদ্যমান পণ্যগুলোর ক্ষেত্রে ‘ভ্যালু অ্যাড’ এবং দেশের রফতানি আয় বাড়াতে নতুন নতুন বাজারের সন্ধান করতে হবে।

এখন বিশ্ব পোশাক বাজারে বাংলাদেশ দ্বিতীয় অবস্থান অধিকার করে আছে। বাস্তবিক ক্ষেত্রে তা বিশ্ব বাজারের মাত্র ৬.৪০ শতাংশ। তাই আমাদের এই বিষয়টিতে নজর দিতে হবে, যোগ করেন তিনি।

তিনি বলেন, বিশ্ব বাজারে আমাদের পণ্যের চাহিদা বাড়ানোর জন্য আমাদেরকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। আমাদেরকে এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য স্বল্প, মধ্য এবং দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা প্রণয়ন করতে হবে।

তিনি একইসঙ্গে বাজার সম্প্রসারণ এবং বস্ত্র খাতের প্রসারের জন্য বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক বাজারে ক্রেতাদের সঙ্গে যতটুকু সম্ভব দরাদরি করে পণ্যের উপযুক্ত মূল্য আদায়েও ব্যবসায়ীদের মনযোগী হওয়ার পরামর্শ দেন।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় আয়োজিত অনুষ্ঠানে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী সভাপতিত্ব করেন।

বাণিজ্য মন্ত্রী টিপু মুনশি, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মুন্নুজান সুফিয়ান, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যান মির্জা আজম এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব লোকমান হোসেন মিয়াঁ অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে বস্ত্র খাতে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ৯টি সংস্থা এবং উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী পুরস্কার বিতরণ করেন।

Comments

The Daily Star  | English
Benazir Ahmed corruption scandal

An IGP’s eye-watering corruption takes the lid off patronage politics

Many of Benazir Ahmed's public statements since assuming high office aligned more with the ruling party's political stance than with the neutral stance expected of a civil servant.

5h ago