ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডারের জোড়া গোলে জিতল রিয়াল

২০ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে অন্তত এক দিনের জন্য হলেও লা লিগার শীর্ষস্থান দখল করেছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা।
casemiro
ছবি: এএফপি

আক্রমণভাগে নেই এডেন হ্যাজার্ড, গ্যারেথ বেল। চোটের কারণে রক্ষণভাগে অনুপস্থিত সার্জিও রামোসও। নিষেধাজ্ঞার খড়গে ক্রমেই মাঝমাঠের ভরসা হয়ে ওঠা ফেদেরিকো ভালভার্দে। করিম বেনজেমাকেও রাখা হয়নি শুরুর একাদশে। তারপরও পূর্ণ তিন পয়েন্ট আদায় করে নিয়ে লা লিগার পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়ে শক্তিশালী প্রতিপক্ষ সেভিয়ার বিপক্ষে দলটির জয়ের নায়ক কাসেমিরো।

শনিবার রাতে ঘরের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে ২-১ ব্যবধানে জিতেছে রিয়াল। বেশ কয়েকজন তারকা খেলোয়াড় না থাকায় প্রথমার্ধে ধুঁকতে হয়েছে তাদের। সেভিয়াই বরং তখন তুলনামূলক ভালো ফুটবল খেলেছে। লড়াই জমে ওঠে দ্বিতীয়ার্ধে। ম্যাচের তিনটি গোলই হয়েছে বিরতির পর।

শুরুর ৪৫ মিনিটে বল দখলে এগিয়ে থাকলেও আক্রমণে সুবিধা করতে পারেনি রিয়াল। উল্টো ২৯তম মিনিটে তাদের জালে বল জড়ান সেভিয়ার ফরোয়ার্ড লুক ডি ইয়ং। তবে এর ঠিক আগমুহূর্তে ফাউলের শিকার হয়েছিলেন এদার মিলিতাও। ফলে ভিএআরের সাহায্য নিয়ে গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি।

সেই ইয়ং অবশ্য গোলদাতাদের তালিকায় নাম ঠিকই ওঠান। ৬৪তম মিনিটে মুনির এল হাদ্দাদির পাস থেকে বাম পায়ের জোরালো শটে লক্ষ্যভেদ করে দলকে সমতায় ফেরান তিনি। এর সাত মিনিট আগে দৃষ্টিনন্দন গোলে কাসেমিরো এগিয়ে দিয়েছিলেন রিয়ালকে। লুকা জোভিচের ব্যাক-হিল থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের ভেতরে ঢুকে আলতো চিপে সেভিয়া গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি।

৬৯তম মিনিটে আবার রিয়ালের ত্রাতা হয়ে আসেন কাসেমিরো। ডান প্রান্ত থেকে দারুণ ক্রস করেন লুকাস ভাজকেজ। সেভিয়ার রক্ষণভাগ কাসেমিরোকে মার্কই করেনি। ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা এই ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার লাফিয়ে উঠে হেড করে বল জালে জড়ান। ম্যাচের বাকি সময়ে দুদল বেশ কিছু আক্রমণ করলেও আর গোল হয়নি। ফলে ২-১ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্বাগতিকরা।

২০ ম্যাচে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে অন্তত এক দিনের জন্য হলেও লা লিগার শীর্ষস্থান দখল করেছে জিনেদিন জিদানের শিষ্যরা। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৪০ পয়েন্ট নিয়ে নেমে গেছে দুই নম্বরে। রবিবার বাংলাদেশ সময় রাত ২টায় (২০ জানুয়ারি) নিজেদের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে গ্রানাদাকে আতিথ্য দেবে লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ২০ ম্যাচে ৩৫ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে আছে অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ। সমান ম্যাচে সেভিয়ার পয়েন্টও ৩৫। তবে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে চারে আছে তারা।

Comments