শীর্ষ খবর

বিজিএমইএ ভবন ভাঙতে শুরু করেছে রাজউক

অবশেষে ভাঙা হচ্ছে রাজধানীর হাতিরঝিলে অবস্থিত তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র বহুল আলোচিত সেই ভবন।
Rejaul karim-1.jpg
গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের উপস্থিতিতে বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু হয়। ছবি: এমরান হোসেন/স্টার

অবশেষে ভাঙা হচ্ছে রাজধানীর হাতিরঝিলে অবস্থিত তৈরি পোশাকশিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ’র বহুল আলোচিত সেই ভবন।

আজ (২২ জানুয়ারি) দুপুরে ভবনটি ভাঙার কাজ শুরু করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)।

ঘোষণা দেওয়ার প্রায় নয় মাস পর দুপুর ১২টা ৩৫ মিনিটে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিমের উপস্থিতিতে বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু হয়।

গত বছর এপ্রিলে আদালতের নির্দেশে অবৈধ এ ভবনটি ভাঙার নির্দেশনা পায় রাজউক। তবে ভবন ভাঙার নিলাম কাজের দীর্ঘসূত্রিতার কারণে এতোটা দেরি হলো রাজউকের।

গত বছর ১৬ এপ্রিল বুলডোজার ও পুলিশ সদস্যদের নিয়ে বিজিএমইএ ভবন ভাঙার জন্য উপস্থিত হয়েছিলেন রাজউকের কর্মকর্তারা। তখন ভবনটিতে কয়েকজন অফিস সহকারী অবস্থান করায় রাজউক তাদেরকে একদিন সময় দেয় এবং ভবনটি সিলগালা করে দেয়।

১৯৯৮ সালের ২৮ নভেম্বর তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভবনটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন এবং ২০০৬ সালের ৮ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া ১৫ তলাবিশিষ্ট বিজিএমইএ ভবন উদ্বোধন করেছিলেন। তার কিছুদিন পরেই ভবনটিকে অবৈধ ঘোষণা করা হয়।

এরপর ২০১০ সালের ৩ অক্টোবর হাইকোর্ট স্ব-প্রণোদিত হয়ে ভবনটি ভাঙার বিষয়ে একটি রুল জারি করেন।

২০১১ সালের ৩ এপ্রিল অবৈধ ভবনটিকে ভাঙার আদেশ দেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। কিন্তু দুই দিন পর আপিল বিভাগ সেই রায়ের ওপর দুই সপ্তাহের স্থগিতাদেশ জারি করেন এবং বিজিএমইএ কর্তৃপক্ষকে আপিল করার পরামর্শ দেন।

পরে ২০১৩ সালের ১৯ মার্চ হাইকোর্ট সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে তিনমাসের মধ্যে ভবনটি ভাঙার নির্দেশ প্রদান করেন এবং ভবনে যারা ফ্লোরস্পেস কিনেছিলেন, তাদেরকে টাকা ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দেন।

Comments

The Daily Star  | English