খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে বিশেষ আবেদনের কথা ভাবছে পরিবার

বিএনপির কারাবন্দী চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুবই খারাপ জানিয়ে তার বোন সেলিমা ইসলাম বলেছেন, “খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য মুক্তি চেয়ে বিশেষ আবেদনের কথা ভাবছি আমরা।”
selima.jpg
খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তার বোন সেলিমা ইসলাম। ছবি: সংগৃহীত

বিএনপির কারাবন্দী চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবস্থা খুবই খারাপ জানিয়ে তার বোন সেলিমা ইসলাম বলেছেন, “খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য মুক্তি চেয়ে বিশেষ আবেদনের কথা ভাবছি আমরা।”

আজ (২৪ জানুয়ারি) বিকালে খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে তার সেজো বোন সেলিমা ইসলাম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, “খালেদা জিয়ার অবস্থা তো খুবই খারাপ। সে শুধু বমি করছে। গায়ে জ্বর আছে। ব্যথায় কাতরাচ্ছে। বাম হাতটা সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য কোথাও নিতে হবে। এ হাসপাতালে এটা সম্ভব না।”

হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে কেমন দেখছেন? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে সেলিমা ইসলাম বলেন, “তারা যে চিকিৎসা দিচ্ছেন, এতে কোনো কাজ হচ্ছে না।”

পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে কোনো আবেদন করা হবে কী না? জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমরা এখনও কোনো আবেদন করিনি। উনার যে অবস্থা, উনাকে মুক্তি দিয়ে উন্নত চিকিৎসার বন্দোবস্ত করতে হবে। শরীর তো খুবই খারাপ। সে তো ব্যথায় কাতরাচ্ছে, তার ডায়াবেটিস আজকেও ১৫ তে। এভাবে কতোদিন চলবে? এ হাসপাতালে তো এক বছরের কাছাকাছি সময় রয়েছে, তার শরীরে কোনো উন্নতি হচ্ছে না বরং দিন দিন অবনতি হচ্ছে। এজন্য আমরা চাই উনাকে উন্নত হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে।”

তিনি বলেন, “আমরা ভাবছি, আমরা আবেদন করবো। তবে এটা এখনও ঠিক করিনি। কারণ তার শরীরে যে অবস্থা, এই অবস্থায় বেশীদিন থাকলে তাকে জীবিত বাসায় নিয়ে যেতে পারবো না।”

নির্বাচনের বিষয়ে খালেদা জিয়া কোনো বার্তা দিয়েছেন কী না? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, “সে তো কথাই বলতে পারছে না। তবে দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছে।”

এর আগে, বিকাল তিনটার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে প্রবেশ করেন পরিবারের সদস্যরা। সঙ্গে নিয়ে যান বাসায় রান্না করা খাবার ও কিছু ফলমূল।

পরিবারের বরাত দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেসউইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার জানান, খালেদা জিয়ার সেজো বোন সেলিমা ইসলাম, ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার, তার স্ত্রী কানিজ ফাতেমা ও ছেলে অভিক ইস্কান্দার, সাইদ ইস্কান্দারের স্ত্রী নাসরিন ইস্কান্দার আজ হাসপাতালে গিয়েছিলেন।

তবে, আরাফাত রহমান কোকোর শাশুড়ি ফাতেমা রেজা হাসপাতালে গেলেও সাক্ষাৎকারের তালিকায় তার নাম না থাকায় প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Comments

The Daily Star  | English

Trial of murder case drags on

Even 11 years after the Rana Plaza collapse in Savar, the trial of two cases filed over the incident did not reach any verdict, causing frustration among the victims.

10h ago