২০১৮ সালের প্রশ্নে এসএসসি পরীক্ষা নেয়ায় পাঁচ শিক্ষক বহিস্কার

সোমবার প্রথমদিনের এসএসসির বহুনির্বাচনী পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের ভুল প্রশ্নপত্র দেওয়ায় যশোরের চৌগাছায় একটি পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিবসহ কমিটির পাঁচ শিক্ষককে পরীক্ষার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।
যশোর বোর্ড

সোমবার প্রথমদিনের এসএসসির বহুনির্বাচনী পরীক্ষায় পরীক্ষার্থীদের ভুল প্রশ্নপত্র দেওয়ায় যশোরের চৌগাছায় একটি পরীক্ষা কেন্দ্রের সচিবসহ কমিটির পাঁচ শিক্ষককে পরীক্ষার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

দ্য ডেইলি স্টারের যশোর প্রতিনিধি জানান, চৌগাছা সরকারি শাহাদৎ পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এসএসসির বহুনির্বাচনী (এমসিকিউ) পরীক্ষায় কেন্দ্রের নিয়মিত পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ১৯ জনকে ২০১৮ সালের প্রশ্নে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে এবং দুই জন অনিয়মিত পরীক্ষার্থীকে ২০২০ সালের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা নেয়া হয়েছে।

অব্যাহতিপ্রাপ্তরা হলেন চৌগাছা সরকারি শাহাদৎ পাইলট সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক  ও কেন্দ্রের সচিব আজিজুর রহমান, কেন্দ্র কমিটির সদস্য একই স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল জলিল, সিনিয়র শিক্ষক সালমা খাতুন, সহকারী শিক্ষক লাকি আক্তার ও ক্রীড়া শিক্ষক রবিউল ইসলাম।

অব্যাহতিপ্রাপ্ত কেন্দ্র সচিব আজিজুর রহমান দ্য ডেইলি স্টার প্রতিনিধিকে জানান, ভুল বুঝতে পেরে যশোর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানানো হয়।

ঘটনাটিকে সম্পূর্ণ ‘অনিচ্ছাকৃত ভুল’ বলে দাবি করেন তিনি।

পরে চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাহিদুল ইসলাম পরীক্ষাকেন্দ্রে এসে সচিবসহ পরীক্ষা কমিটির পাঁচ শিক্ষককে পরীক্ষার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেন। কেন্দ্র সচিবের নতুন দায়িত্ব দেয়া হয়েছে উপজেলা বিআরডিবি কর্মকর্তা আনিছুর রহমানকে।

ইউএনও দ্য ডেইলি স্টারকে জানান, কেন্দ্র সচিবের ভুলের কারণে পরীক্ষার্থীদের ভুল প্রশ্নে বহুনির্বাচনী পরীক্ষা দেওয়ার বিষয়টি বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রককে জানানো হয়েছে। তাদের সৃজনশীল লিখিত পরীক্ষা সঠিক প্রশ্নে নেয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, যশোর শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের সঙ্গে পরামর্শ করে ভুল প্রশ্নে নেয়া পরীক্ষার উত্তরপত্রগুলো আলাদাভাবে পাঠানো হয়েছে।

Comments

The Daily Star  | English
Impact of poverty on child marriages in Rasulpur

The child brides of Rasulpur

As Meem tended to the child, a group of girls around her age strolled past the yard.

13h ago